মঙ্গলবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ১ ১৪২৬   ১৭ মুহররম ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রী ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করবেন আজ রোহিঙ্গা ভোটার: ইসি কর্মচারীসহ আটক ৩ রিফাত-মিন্নির নতুন ভিডিও, বেরিয়ে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য ‘বিজ্ঞান-প্রযুক্তির বিকাশ ছাড়া দেশ উন্নয়ন করা সম্ভব নয়’ রোহিঙ্গা ভোটার খতিয়ে দেখতে চট্টগ্রামে কবিতা খানম আগামী ১০মাসের রোডম্যাপ তৈরি ও তার বাস্তবায়ন করবো - জয় ও লেখক ডেঙ্গুতে সরকারি হিসেবে ৬৮ জনের মৃত্যু আ. লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা ১৮ সেপ্টেম্বর বরিশাল নগরীতে আসছে স্মার্ট এলইডি লাইটিং বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপের জন্মদিন আজ আজ থেকে ট্রাকে পেঁয়াজ বিক্রি করবে টিসিবি বিশ্ব ওজন দিবস আজ শিগগিরই বন্দর-ট্রেনে যুক্ত হচ্ছে ত্রিপুরা-বাংলাদেশ দিল্লিতে শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠক ৫ অক্টোবর সারাদেশে ৭৫ প্রতিষ্ঠানকে পাঁচ লক্ষাধিক টাকা জরিমানা প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের ফল প্রকাশ এ পি জে আব্দুল কালাম স্মৃতি পুরস্কারে ভূষিত শেখ হাসিনা টস হেরে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ বরিশালকে যানজট মুক্ত রাখতে কাজ করছে ট্রাফিক সদস্যরা- ডিসি ট্রাফিক সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করুন : প্রধানমন্ত্রী
১২

রংপুর-৩ আসনে রিটা পেলেন ধানের শীষ, অসন্তুষ্ট বিএনপি নেতৃবৃন্দ!

প্রকাশিত: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে ২০ দলীয় জোটের শরিক বাংলাদেশ পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান রিটা রহমানকে ধানের শীষে মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি।

রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টার দিকে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ তথ্য জানান।

এদিকে রংপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রইচ আহমেদ, মহানগর কমিটির সহ-সভাপতি কাওছার জামান ও সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম ও সদ্য প্রয়াত মহানগর বিএনপির সভাপতি মোজাফফর হোসেনের স্ত্রী সুফিয়া হোসেনের মতো সম্ভাবনাময় ৪ প্রার্থীকে টপকিয়ে অতিথি প্রার্থী রিটা রহমানকে মনোনয়ন দেয়ায় জেলা ও মহানগর বিএনপি নেতা-কর্মীদের মধ্যে অসন্তোষ বিরাজ করছে বলে জানা গেছে। নেতাকর্মীদের অনেকের অভিযোগ, রিটা রহমান বিগত নির্বাচনের আগে উড়ে এসে জুড়ে বসেছিল। রংপুরের রাজনীতি সম্পর্কে তার ন্যূনতম ধারণাও নেই। তিনি কীভাবে নির্বাচন পরিচালনা করবেন, সে দক্ষতাও নেই। শুধু তা-ই নয়, তার কথা ও কাজের মধ্যে কোনো মিল না থাকায় নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ রয়েছে। এবারও যদি তাকে প্রার্থী করা হয়, তার পক্ষে কেউ মাঠে নামবে না- এটা প্রায় নিশ্চিত।

এদিকে তথ্যসূত্র বলছে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রিটার পক্ষে কাজ করতে গিয়ে বিএনপির অনেক নেতাই নানা সমস্যায় পড়েন। রিটা রহমান দল কিংবা নির্বাচন সম্পর্কে অভিজ্ঞ না হওয়ায় এই সমস্যার সৃষ্টি হয়। অনেকেই রিটার ওপর অভিমান করে নির্বাচনের দুই-দিন আগেই নির্বাচনী মাঠ থেকে নিজেকে গুটিয়ে নেন। যার ফলে বড় ব্যবধানে এই আসনে হেরে যান রিটা রহমান।

এদিকে স্থানীয় প্রার্থীদের বাদ দিয়ে অতিথি প্রার্থীকে মনোনয়ন দেয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে মনোনয়ন-প্রত্যাশী রংপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রইচ আহমেদ বলেন, রিটা রহমানকে মনোনয়ন দেয়ায় স্থানীয় বিএনপির নেতারা হতাশ হয়েছেন। দলের প্রার্থীদের অবজ্ঞা করে অপরিচিত ও অনভিজ্ঞ রিটা রহমানকে মনোনয়ন দেয়া নিয়ে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে তৃণমূলে। আসলে জানতে পারলাম, স্থানীয় নেতা-কর্মীদের উপর আস্থা না থাকায় রিটা রহমানকে মনোনয়ন দিয়েছে দল। এরচেয়ে দুঃখজনক বিষয় আর কী হতে পারে বিএনপির জন্য? প্রতিবার আমরা হাইকমান্ডের বলির পাঠায় পরিণত হয়েছি। যাই হোক- চেষ্টা করবো অসন্তোষ দূর করে রিটা রহমানকে বিজয়ী করতে। জানি না কতটুকু সফল হবো।

এই বিভাগের আরো খবর