শুক্রবার   ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৮ ১৪২৬   ২৬ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
উন্নত দেশ গড়তে বেসরকারি সহযোগিতা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুজিববর্ষে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের ভণ্ডপীরসহ ৯ জনের কারাদণ্ড প্রধানমন্ত্রী সব সময় শিক্ষাকে গুরুত্ব দেন: পরিকল্পনামন্ত্রী মুজিব বর্ষে নতুন শিল্প কারখানা স্থাপন করা হবে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী আসন্ন সেচ মৌসুমে লোডশেডিংয়ের শঙ্কা নেই : বিদ্যুৎ বিভাগ একুশে পদক হাতে তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস শুক্রবার একুশে পদক মেধা ও মনন চর্চার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করবে : রাষ্ট্রপতি আজ একুশে পদক প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী এনামুল বাছিরের পদোন্নতির আবেদন হাইকোর্টে খারিজ জাপানের সঙ্গে জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী সমৃদ্ধ দেশ গড়তে সুস্থ যুব সমাজের বিকল্প নেই : প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ ডাকঘর সঞ্চয়ের সুদহার পুনর্বিবেচনা করা হবে : অর্থমন্ত্রী মুঠোফোন প্রতারক জিনের বাদশা গ্রেফতার করোনাভাইরাস নিয়ে গুজবে কান দিবেন না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাগর তীরে উঁচু স্থাপনা নির্মাণ না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বিএনপি জ্বালাও-পোড়াও না করলে দেশ আরো এগিয়ে যেত : তথ্যমন্ত্রী শহীদ দিবসে জঙ্গি হামলার কোনো সম্ভাবনা নেই : ডিএমপি কমিশনার দেশে ব্রয়লারসহ কোন পশু-পাখির মধ্যে করোনা পাওয়া যায়নি : আইইডিসিআর
৫০

মেলা থেকে কেনা বইয়ের যত্ন নিবেন যেভাবে

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

অমর একুশে গ্রন্থমেলায় বইয়ের বিকিকিনি জমে উঠেছে। মেলায় পাওয়া যাচ্ছে সব বয়সীদের বই। মেলায় প্রতিদিনই বিক্রি হচ্ছে প্রচুর বই। কথায় বলে,বইয়ের চেয়ে বেশি বন্ধু আর হয় না। কিন্তু সেই সঙ্গীর ঠিক যত্ন কি আমরা নিতে পারি?

তাই শুধু বই কিনলেই হবে, নিতে হবে বইয়ের যত্ন। অনেক সময় দেখা যায়, আলমারি থেকে বই নামানোর সময় পাতাগুলো কালচে বা হলদেটে হয়ে মচমচে হয়ে গিয়েছে। আবার কখনও পোকায় কেটে দেয় । আসুন জেনে নেই যেভাবে বইয়ের যত্ন নেবেন-

১. ড্যাম্প ধরা দেওয়ালে বইয়ের তাক তৈরি করবেন না। তাহলে বইয়ের পাতা নষ্ট হয়ে যায়। এ ছাড়া দেওয়ালে উঁই পোকা বাসা বাঁধলেও সতর্ক হোন।

২. দেওয়ালের সংস্পর্শে বই না রেখে একটা পাটাতন দিয়ে তা আলাদা করুন। তাক কাঠের হলে সেই কাঠ অবশ্যই সিজন করিয়ে নিন।

৩. বইয়ের পাতা ওল্টানোর সময় আঙ্গুলে থুতু লাগাবেন না। ধীরে সুস্থে বইয়ের পাতা ওল্টান। আর তাড়াহুড়ো করে পাতা ওস্টাতে গেলেও অনেক সময় পাতা ছিঁড়ে যায়।

৪. সম্ভব হলে মলাট দিয়ে বই পড়ুন। পড়ার সুবিধার জন্য তা মুড়ে পড়বেন না। এতে মাঝের সলাই খুলে যাবে।

৫. প্রতি মাসে অন্তত একবার নরম কাপড়ে বইয়ের ধুলো ঝেড়ে রোদে দিন।

৬. বুক মার্ক ব্যবহারের সময় হালকা কোনো উপাদান ব্যবহার করুন। কাগজের টুকরো, পালক, রেশমের ফিতা বা শাটিনের কাপড় ভালো বিকল্প হতে পারে।

৭. আলমারি ও শেলফে বই রাখার সময় দুটো বইয়ের মধ্যে একটু ফাঁক রাখুন। আর সঙ্গে ন্যাপথালিন রেখে দিন।

৮. উঁচু তাক থেকে বই নামানোর সময় ছুঁড়ে নিচে ফেলবেন না। এতে বইয়ের বাঁধাইয়ে চাপ পড়ে তা খুলে যায়।