• রোববার   ২৫ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৯ ১৪২৭

  • || ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
নৈরাজ্য সৃষ্টিকারী কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১৯, শনাক্ত ১০৯৪ ব্যারিস্টার রফিক-উল হক মারা গেছেন সারা দেশের নৌ ধর্মঘট প্রত্যাহার করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ২৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৬৯৬ বিপদে নিজেদের একা ভাববেন না: আইনমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৪, শনাক্ত ১৫৪৫ এনু-রুপনের জামিন আবেদনের রুল খারিজ মাধ্যমিকে বার্ষিক পরীক্ষা বাতিল রায়হান হত্যা: ৫ দিনের রিমান্ডে কনস্টেবল টিটু ১২ বছরের ব্যর্থতার জন্য বিএনপির নেতৃত্বের পদত্যাগ করা উচিত বিদেশে পালালেও এসআই আকবরকে ফিরিয়ে আনা হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী পরিপত্র জারি : ৭ মার্চকে ঐতিহাসিক দিবস ঘোষণা করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২১, শনাক্ত ১৬৩৭ জনগণের ভাষা বুঝে না বলেই বিএনপি ব্যর্থ: কাদের ২৫ টাকা কেজিতে আলু বিক্রি করবে টিসিবি: বাণিজ্যমন্ত্রী পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী ৩০ অক্টোবর সরকারের আশ্বাসে ইন্টারনেট-ডিশ সংযোগ ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত স্থগিত ইন্টারনেট-ক্যাবল টিভি বন্ধের সিদ্ধান্ত স্থগিত করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৩, শনাক্ত ১২০৯

মেডিটেশনেই ওজন কমবে তরতরিয়ে

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৪ অক্টোবর ২০২০  

অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাত্রায় অভ্যস্ততা শরীরের ওজন বাড়িয়ে দিচ্ছে। আর একবার ওজন বাড়লে তা কমানো খুবই কষ্টের ব্যাপার। খাওয়া দাওয়া কমিয়ে দেন শুরুতেই। এরপর শারীরিক কসরত তো রয়েছেই। 

ওজন কমাতে ব্যস্ত এখন বিশ্বের সব মানুষ। সুন্দর শারীরিক গঠন কে না চায়। আর ওজন বাড়া মানেই শরীরে নানান রোগের বাসা বাঁধা। হাঁটু ব্যথা, ডায়াবেটিস, হার্টের সমস্যা, এই সব রোগের প্রকোপ থেকে বাঁচতে চিকিত্‍সকরা সর্বদাই শরীরের বাড়তি ওজন কমানোর কথা বলে থাকেন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, শুধুমাত্র ব্যায়াম করার মাধ্যমে কখনোই ওজন কমানো বা রোগা হওয়া সম্ভব নয়। তাই এক্ষেত্রে এক্সারসাইজের পাশাপাশি মেনে চলতে হবে বিশেষ কিছু নিয়ম। এরমধ্যে রয়েছে মেডিটেশন। ওজন কমাতে এর বিকল্প কিছু হতেই পারে না। তাই প্রতিদিন নিয়ম করে মেডিটেশন করুন। এতে মানসিক চাপ কমবে। কারণ সারা দিনের ব্যস্ততা, স্ট্রেস, চিন্তা থেকেও শরীরে হরমোনের ভারসাম্যতা নষ্ট হয় এবং মেদ জমে।

এছাড়াও যে নিয়মগুলো আপনাকে অবশ্যই মানতে হবে। তা হলো- 

মেডিটেশন করুন, এতে মানসিক চাপ কমবে। কারণ সারা দিনের ব্যস্ততা, স্ট্রেস, চিন্তা থেকেও শরীরে হরমোনের ভারসাম্যতা নষ্ট হয় এবং মেদ জমে।

খাবার খাওয়ার একটি নির্দিষ্ট সময় মেনটেন করুন। যখন তখন খেলে হবে না, ঘড়ি ধরে খেতে হবে। আর অবশ্যই খাবারের পরিমাণও যেন ঠিক থাকে।

প্যাকেটজাত বা প্রক্রিয়াজাত খাবার খাওয়া এড়িয়ে চলতে হবে। টাটকা ও প্রাকৃতিক খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন।

ফাস্ট ফুড, জাঙ্ক ফুড বা তেলে ভাজা জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলতে হবে। 

এছাড়াও অ্যালকোহল যুক্ত খাবার ও কোল্ড ড্রিঙ্কস্ খাওয়াও বন্ধ করতে হবে। বাড়ির সাধারণ খাবারেই মন বসান।

ভাত খাওয়ার পরিমাণ কমিয়ে ডায়েটে শাকসবজি, ফল বেশি করে রাখুন। এতে শরীরে পুষ্টির ভারসাম্যতা বজায় থাকবে।

চিনি, আইসক্রিম ও মিষ্টি জাতীয় খাবার খাওয়া পুরোপুরি বন্ধ করুন।