বুধবার   ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৭ ১৪২৬   ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
ধর্ষকদের ধরিয়ে দিন, কঠোর ব্যবস্থা নেবো: প্রধানমন্ত্রী টাকা না থাকলে এত উন্নয়ন কাজ করছি কীভাবে : প্রধানমন্ত্রী সব ব্যথা চেপে রেখে দেশের জন্য কাজ করছি : প্রধানমন্ত্রী ট্রেনে খোলা খাবার বিক্রি ও প্লাস্টিকের কাপ নিষিদ্ধ হচ্ছে চলতি বছরে জিপিএ-৪ কার্যকর হচ্ছে মজুদ গ্যাসে চলবে ২০৩০ সাল পর্যন্ত : খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী গুজব-অপপ্রচার রোধে কাজ করছে উচ্চ পর্যায়ের কমিটি : তথ্যমন্ত্রী সব কারখানায় ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপনের নির্দেশ আজ বাংলাদেশ-নেপাল পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক সরকার-জনগণের মধ্যে সম্পর্ক জোরদার করতে সাংসদের রাষ্ট্রপতির আহ্বান দেশে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বিরাজ করছে : নাসিম ব্যাংকের জঙ্গি অর্থায়ন নজরদারিতে রয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ৪০০ মেট্রিক টন মধু রফতানির অর্ডার পেয়েছে বাংলাদেশ : কৃষিমন্ত্রী নয় বছরে সাড়ে ৯৭ হাজার কর্মকর্তা নিয়োগ : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী দেশে মোবাইল টাওয়ার রেডিয়েশনের মাত্রা ক্ষতিকর নয় : বিটিআরসি সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী ২০ বছর পর আজ ঢাকায় আসছেন নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খালেদার প্যারোলে মুক্তির কোনো আবেদন পাইনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উহান ফেরত শিক্ষার্থীরা নজরদারিতেই থাকবেন : আইইডিসিআর রোহিঙ্গা ইস্যুতে ইন্দোনেশিয়ার সহায়তা চাইলেন ড. মোমেন
১০৬

`মৃত` বলে ফিরিয়ে দিল হাসপাতাল, বাড়ি ফিরতেই বেঁচে উঠলেন বৃদ্ধা!

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ৬ নভেম্বর ২০১৯  

হাসপাতাল থেকে  ৭৮ বছর বয়সী এক বৃদ্ধাকে 'মৃত' বলে ফিরিয়ে দিয়েছিল। কিন্তু বাড়ি ফিরতেই বেঁচে উঠেছেন তিনি। এমনটাই দাবি করেছে তার পরিবার। সম্প্রতি এ ঘটনা ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে। 

ওই নারীর নাম আনন্দময়ী দাস। হাসপাতাল থেকে  বাড়িতে আনার পর দেখা গেছে রীতিমতো শ্বাস চলছে ওই বৃদ্ধার। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে বীরভূমের বোলপুরে। ফের বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় ওই বৃদ্ধাকে। পরে সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়। এরপরই গাফিলতির অভিযোগে ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি হয় হাসপাতাল চত্বরে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ। বেশ খানিকক্ষণ পর নিয়ন্ত্রণে আসে পরিস্থিতি।

জানা গেছে, বোলপুরের ২ নম্বর ওয়ার্ডের কুমোরপুকুর পাড়ার বাসিন্দা আনন্দময়ী দাস। বার্ধক্যজনিত কারণে তাঁকে বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। 

পরিবারের অভিযোগ, হাসপাতালের চিকিৎসক পঙ্কজ বিশ্বাস বৃদ্ধাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর মৃত বলে জানিয়ে দেন। বৃদ্ধাকে আর হাসপাতালে ভর্তি নেওয়া হয়নি। দেহ নিয়ে বাড়ি ফিরে যান স্বজনরা।

মৃত নারীর ছেলে নিতাই দাস বলেন, বাড়ি ফিরে দেখা যায় মায়ের শ্বাস চলছে। 

বাড়িতে আনার পর আনন্দময়ী দাস পানিও পান করেছেন বলে দাবি করেছেন পরিবারের লোকেরা। এরপরই তড়িঘড়ি ফের তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখানে বৃদ্ধার মৃত্যু হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগে হাসপাতাল চত্বরে বিক্ষোভ করেন পরিবারের লোকজন। 

তাঁদের অভিযোগ, প্রথমবার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর সঠিক চিকিৎসা হয়নি। কোনও চিকিৎসা না করিয়েই ফিরিয়ে দেওয়া হয় তাঁদের। সে সময় সঠিক চিকিৎসা হলে আনন্দময়ী দাস প্রাণে বেঁচে যেতেন।

এদিকে, বিক্ষোভের খবর পেয়েই  ঘটনাস্থলে আসে বোলপুর থানার পুলিশ। অভিযুক্ত চিকিৎসক পঙ্কজ বিশ্বাস সমস্ত অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি দাবি করেছেন, নার্ভ পাচ্ছিলাম না, আমার সিনিয়ররাও নার্ভ পাচ্ছিলেন না। তাই তাদের জানিয়ে দিই। তারা দেহ নিয়ে চলে যায়। এবার এসে বলছে বাড়িতে পানি খেয়েছে। এখন দেখলাম রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর