বুধবার   ০১ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ১৮ ১৪২৬   ০৭ শা'বান ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
দেশে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৬ জন সুস্থ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সেনাবাহিনী কতদিন মাঠে থাকবে সরকার বিবেচনা করবে: সেনাপ্রধান ঘরে বসে পড়াশোনা করতে হবে, শিক্ষার্থীদের প্রধানমন্ত্রী করোনায় খাদ্য ঘাটতি হবে না : কৃষিমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখ‌ছেন প্রধানমন্ত্রী আজ সকালে ৬৪ জেলার কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর কনফারেন্স পিপিই যেন নষ্ট না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় সরকার জনগণের পাশে আছে -প্রধানমন্ত্রী ছুটিতে কর্মস্থল ছাড়া যাবে না : সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন করোনা সংকটকালে জনগণের পাশে থাকবে আ.লীগ: কাদের আমি করোনায় আক্রান্ত হইনি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নেই : আইইডিসিআর পদ্মা সেতু‌তে বসলো ২৭তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো ৪ হাজার ৫০ মিটার করোনায় আক্রান্ত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন সব পোশাক কারখানা বন্ধের নির্দেশ পবিত্র শবে বরাত ৯ এপ্রিল স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জনসমাগম করবেন না: প্রধানমন্ত্রী অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না : প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী মুক্তি পেলেন খালেদা জিয়া
৩৭

মুঠোফোন প্রতারক জিনের বাদশা গ্রেফতার

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

মুঠোফোন প্রতারক জিনের বাদশা পরিচয়ধানকারী এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি। বুধবার সিআইডি কার্যালয় থেকে এমন তথ্য জানানো হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত জমিল হোসেন ওরফে আজিম হুজুর (৩০) ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার বাসিন্দা মৃত তৈয়ব আলী শেখের ছেলে। 

সিআইডি জানায়, মঙ্গলবার ফরিদপুরের মধুখালী থানা এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। সে মানুষকে লোভনীয়/আকর্ষণীয় পুরস্কারের প্রলোভন দেখিয়ে, কখনো জিনের বাদশা সেজে বিকাশ একাউন্টের মাধ্যমে প্রতারণা করত।

তদন্তকালে জানা যায়, সে সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের সদস্য। চক্রটি দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন নামের জাতীয় পরিচয়পত্র সংগ্রহ/সৃজন করে নতুন সিম ক্রয় এবং বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলে। দেশের বিভিন্ন এলাকার সাধারণ হাজার হাজার মানুষকে লোভনীয়/আকর্ষণীয় পুরস্কারের প্রলোভন দেখিয়ে, কখনো জিনের বাদশা সেজে বিকাশ অ্যাকান্টের মাধ্যমে প্রতারণা পূর্বক লাখ লাখ টাকা আত্মসাৎ করে। ওই টাকার উৎস গোপন করার জন্য আসামিদের নিকট রক্ষিত অবৈধ বিকাশ সিমে ট্রান্সফার করে দেশের বিভিন্ন এলাকার বিকাশ এজেন্ট পয়েন্ট থেকে ওই টাকা উত্তোলন করে।

প্রতারক চক্রটি শিমুল মাহমুদের মোবাইল নাম্বরে মেসেজের মাধ্যমে জানায়, তিনি গোল্ডেন অফারের গ্রাহক হিসেবে ২,২০,০০০ টাকা পুরস্কার পেয়েছে। এই পুরস্কারের টাকা পেতে হলে তাকে ৫০,০০০ টাকা বিকাশের মাধ্যমে পাঠাতে হবে। ভিকটিম প্রলোভিত হয়ে ৪৪,০০০ টাকা প্রদান করে প্রতারিত হয়। অতঃপর এ সংক্রান্তে গুলশান (ডিএমপি) থানায় একটি মামলা রুজু করে। 

মামলার তদন্তভার সিআইডি গ্রহণ করার পর বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে চক্রের সদস্যকে ফরিদপুর থেকে গ্রেফতার করে। চক্রের অন্যান্য সদস্যদের আইনের আওতায় আনতে মামলাটি সিআইডি'র কাছে তদন্তাধীন রয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর