• শনিবার   ০৮ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৩ ১৪২৭

  • || ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
সুযোগ আছে, করোনা সংকটেও বিনিয়োগ আনতে হবে: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জাপানের প্রধানমন্ত্রী আবের ফোন করোনায় আরও ৩৩ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬৫৪ কামাল বেঁচে থাকলে সমাজকে অনেক কিছু দিতে পারতো: শেখ হাসিনা সাবেক সেনা কর্মকর্তা সিনহার মাকে প্রধানমন্ত্রীর ফোন করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৫০ মৃত্যু, শনাক্ত ১৯১৮ করোনায় আরও ৪৮ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬৯৫ ঈদ-বন্যা ঘিরে করোনা সংক্রমণের হার বাড়তে পারে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী ট্রাফিক পুলিশ বক্সে বিস্ফোরণ, ‘নব্য জেএমবির সদস্য’ আটক করোনায় আরও ৩৫ মৃত্যু, শনাক্ত ৩০০৯ ১২ কোটি টাকা আত্মসাত করে গ্রেফতার যমুনা ব্যাংকের ম্যানেজার থানায় বিস্ফোরণে জঙ্গি সংশ্লিষ্টতা নেই : পুলিশ ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ২৯৬০, মৃত্যু ৩৫ হাতের তালু দিয়ে আকাশ ঢাকা যায় না: বিএনপিকে কাদের দেশে একদিনে ৩৭ মৃত্যু, আক্রান্ত ২৭৭২ সাবরিনার অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানে ৪ জনকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৫৪, শনাক্ত ২২৭৫ কোরবানি পশুর চামড়ার দাম নির্ধারণ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৩৮ মৃত্যু, শনাক্ত ২৫২০ তিন দিনের রিমান্ডে শারমিন
৮৬

মুজিববর্ষ থেকে শিশুদের স্কুল ড্রেস-জুতা কেনার টাকাও দেবে সরকার

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৩ জানুয়ারি ২০২০  

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেছেন, ‘প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির পাশাপাশি শিক্ষা সহায়ক উপকরণ (ড্রেস, জুতা, ব্যাগ) কেনার টাকা দেবে সরকার। বছরের শুরুতে এক কোটি ৪০ লাখ শিক্ষার্থীকে ৫০০ টাকা করে দেয়া হবে।’

সোমবার (১৩ জানুয়ারি) বিকেলে সরকারি দলের সদস্য এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বর্তমান সরকার শিক্ষার উন্নয়নের জন্য প্রাথমিক স্তরে উপবৃত্তি প্রদান ধারাবাহিকভাবে অব্যাহত রেখেছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের স্কুলে যাওয়ার আনন্দকে আরও জোরালো করতে প্রতিটি স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীকে বছরের শুরুতে শিক্ষা উপকরণ (ড্রেস, জুতা, ব্যাগ) কেনার জন্য প্রাথমিকভাবে ৫০০ টাকা করে দেয়ার প্রস্তাব প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘স্কুলর সার্বিক পরিবেশ ও ছাত্র-ছাত্রীদের মানসিক অবস্থা আরও প্রফুল্ল করতে ছাত্র-ছাত্রীদের উপবৃত্তির পাশাপাশি শিক্ষা সহায়ক উপকরণ কিনতে প্রতিবছরের শুরুতে এককালীন ৫০০ টাকা করে দেয়া হবে। প্রকল্পটির মূল লক্ষ্য হলো- দারিদ্র-বিমোচন, শিক্ষার্থীদের শিক্ষা উপকরণ ক্রয়ের জন্য শিক্ষা সহায়তা প্রদান করা, যেন তারা সন্তুষ্টি এবং আনন্দের সঙ্গে স্কুলে যেতে পারে।’

সরকারি দলের সংসদ সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী জানান, ২০১৮ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত প্রধান শিক্ষক পদে সরাসরি নিয়োগযোগ্য ৩৫ শতাংশ অর্থাৎ তিন হাজার ৭১৬টি শূন্য পদে ৩৭তম বিসিএস হতে পিএসসির মাধ্যমে নিয়োগের জন্য পিএসসির সুপারিশ পাওয়া গেছে। এছাড়া প্রধান শিক্ষকের শূন্য পদ পূরণের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। তাছাড়া প্রধান শিক্ষকের পদোন্নতিযোগ্য শূন্য পদে সহকারী শিক্ষকদের মধ্যে হতে পদোন্নতি/চলতি দায়িত্ব প্রদানের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

সরকারি দলের আরেক সদস্য মোরশেদ আলমের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী জানান, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর সবশেষ তথ্য অনুযায়ী (২০১৮) দেশের স্বাক্ষরতার হার ৭৩ দশমিক ৯ শতাংশ। দেশের স্বাক্ষরতার হার বৃদ্ধির জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

শিক্ষা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর