মঙ্গলবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১৪ ১৪২৬   ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
ইসলামে শূকর নিষিদ্ধের বিষয়টি যেভাবে সমর্থন করে বিজ্ঞান আমেরিকা ও ইসরায়েলের কমান্ডাররাও পালানোর পথ খুঁজে পাবে না নেহা-আদিত্যর বিয়ে ১৪ ফেব্রুয়ারি সোয়া ৯ কোটি টাকা আত্মসাতে তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা এবার বিএনপি ছাড়ছেন কোষাধ্যক্ষ সিনহা! নারীর নিরাপত্তায় ৪৮ হাজার এলইডি লাইট লাগানোর প্রতিশ্রুতি আতিকের নির্বাচনী কার্যালয়ে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক হাতিরঝিল—বনশ্রী হয়ে চট্টগ্রাম রোডে মিলবে পৃথক চারলেন ব্যাংককের ইমিগ্রেশন হচ্ছে শাহ আমানত বিমানবন্দরেও মেহেন্দিগঞ্জে ড্রেজার মেশিন সহ দুজন আটক, কারাদন্ড চীনে আটকে পড়াদের দেশে ফেরাতে বিশেষ ফ্লাইট পাঠাবে সরকার গৌরনদীতে সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী বাবুল গ্রেফতার বিশ্ববিদ্যালয় জ্ঞান অর্জনের স্থান, র‌্যাগিং করার নয়- রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশ-পাকিস্তানের টি টোয়েন্টি ম্যাচ বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত বরিশাল নগরীতে ৫৫০ পিস ইয়াবাসহ বিক্রেতা গ্রেপ্তার বরিশাল পুলিশের চার থানায় যুক্ত হল পরিদর্শক অপারেশন পদ ৬৬ বলে সেঞ্চুরি করলেন বরিশালের ইমান বরিশালে ইয়াবা বিক্রেতার ১০ বছরের কারাদণ্ড ক্যালিফোর্নিয়ায় হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় বাস্কেটবল তারকা নিহত হবিগঞ্জে বিশ্বের বড় কাঠবিড়াল
৩৪

মুজিববর্ষ থেকে শিশুদের স্কুল ড্রেস-জুতা কেনার টাকাও দেবে সরকার

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৩ জানুয়ারি ২০২০  

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেছেন, ‘প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির পাশাপাশি শিক্ষা সহায়ক উপকরণ (ড্রেস, জুতা, ব্যাগ) কেনার টাকা দেবে সরকার। বছরের শুরুতে এক কোটি ৪০ লাখ শিক্ষার্থীকে ৫০০ টাকা করে দেয়া হবে।’

সোমবার (১৩ জানুয়ারি) বিকেলে সরকারি দলের সদস্য এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বর্তমান সরকার শিক্ষার উন্নয়নের জন্য প্রাথমিক স্তরে উপবৃত্তি প্রদান ধারাবাহিকভাবে অব্যাহত রেখেছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের স্কুলে যাওয়ার আনন্দকে আরও জোরালো করতে প্রতিটি স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীকে বছরের শুরুতে শিক্ষা উপকরণ (ড্রেস, জুতা, ব্যাগ) কেনার জন্য প্রাথমিকভাবে ৫০০ টাকা করে দেয়ার প্রস্তাব প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘স্কুলর সার্বিক পরিবেশ ও ছাত্র-ছাত্রীদের মানসিক অবস্থা আরও প্রফুল্ল করতে ছাত্র-ছাত্রীদের উপবৃত্তির পাশাপাশি শিক্ষা সহায়ক উপকরণ কিনতে প্রতিবছরের শুরুতে এককালীন ৫০০ টাকা করে দেয়া হবে। প্রকল্পটির মূল লক্ষ্য হলো- দারিদ্র-বিমোচন, শিক্ষার্থীদের শিক্ষা উপকরণ ক্রয়ের জন্য শিক্ষা সহায়তা প্রদান করা, যেন তারা সন্তুষ্টি এবং আনন্দের সঙ্গে স্কুলে যেতে পারে।’

সরকারি দলের সংসদ সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী জানান, ২০১৮ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত প্রধান শিক্ষক পদে সরাসরি নিয়োগযোগ্য ৩৫ শতাংশ অর্থাৎ তিন হাজার ৭১৬টি শূন্য পদে ৩৭তম বিসিএস হতে পিএসসির মাধ্যমে নিয়োগের জন্য পিএসসির সুপারিশ পাওয়া গেছে। এছাড়া প্রধান শিক্ষকের শূন্য পদ পূরণের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। তাছাড়া প্রধান শিক্ষকের পদোন্নতিযোগ্য শূন্য পদে সহকারী শিক্ষকদের মধ্যে হতে পদোন্নতি/চলতি দায়িত্ব প্রদানের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

সরকারি দলের আরেক সদস্য মোরশেদ আলমের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী জানান, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর সবশেষ তথ্য অনুযায়ী (২০১৮) দেশের স্বাক্ষরতার হার ৭৩ দশমিক ৯ শতাংশ। দেশের স্বাক্ষরতার হার বৃদ্ধির জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর