সোমবার   ৩০ মার্চ ২০২০   চৈত্র ১৬ ১৪২৬   ০৫ শা'বান ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
পিপিই যেন নষ্ট না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় সরকার জনগণের পাশে আছে -প্রধানমন্ত্রী ছুটিতে কর্মস্থল ছাড়া যাবে না : সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন করোনা সংকটকালে জনগণের পাশে থাকবে আ.লীগ: কাদের আমি করোনায় আক্রান্ত হইনি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নেই : আইইডিসিআর পদ্মা সেতু‌তে বসলো ২৭তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো ৪ হাজার ৫০ মিটার করোনায় আক্রান্ত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন সব পোশাক কারখানা বন্ধের নির্দেশ পবিত্র শবে বরাত ৯ এপ্রিল স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জনসমাগম করবেন না: প্রধানমন্ত্রী অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না : প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী মুক্তি পেলেন খালেদা জিয়া সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী আজ থেকে একসাথে দু`জন রাস্তায় হাঁটতে পারবে না জাতির উদ্দেশে আজ ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী নিষেধাজ্ঞা অক্ষরে অক্ষরে পালন করুন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই খালেদা জিয়াকে মুক্তির সিদ্ধান্ত করোনা ছোঁয়াচে, এক মিটার দূরত্বে থাকার পরামর্শ
২৭

মুজিববর্ষে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৫টায় রাজধানীর ধানমন্ডিতে দলীয় সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে মুজিববর্ষ উদযাপন জাতীয় কমিটির সঙ্গে আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভা শেষে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বছরব্যাপী মুজিববর্ষ উদযাপন আমরা সুন্দর এবং সুশৃঙ্খল আয়োজন করতে চাই। মুজিববর্ষের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দেশি-বিদেশি সম্মানিত অতিথীরা অংশগ্রহণ করবেন। মুজিববর্ষে আমরা আমাদের উন্নয়ন, সাফল্য, অর্জন, আদর্শ-ঐতিহ্য, সংগ্রাম ইতিহাসকে ফোকাস করব। দেশে-বিদেশে বাংলাদেশ হবে ব্র্যান্ড। বাংলাদেশ ব্র্যান্ডকে ফোকাস করা হবে। বঙ্গবন্ধু থেকে শেখ হাসিনার সময়ের ইতিহাস সংগ্রাম সাফল্য অর্জন সবকিছুই তুলে ধরা হবে। মুজিববর্ষে বাংলাদেশকে বিশ্বের সামনে তুলে ধরার একটা মোক্ষম সময়।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের ইতিহাসের মহানায়ক। বঙ্গবন্ধু কোনো দলের নয়, সমগ্র বাংলাদেশের। দল-মত-নির্বিশেষে বঙ্গবন্ধু সব শ্রেণির মানুষের নেতা। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে আমরা দলীয়করণ করতে চাই না।

তিনি বলেন, দলবল নির্বিশেষে যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা-স্বাধীনতার আদর্শে বিশ্বাস করে, তাদের সবার জন্য মুজিববর্ষ উদযাপন উন্মুক্ত। এখানে কোনো সংকীর্ণতার সুযোগ নেই। বিএনপিকে আমরা জাতীয় সম্মেলনেও দাওয়াত দিয়েছি। মুজিববর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠানেও আমরা তাদের দাওয়াত করব। তারা অংশগ্রহণ করবে কি-না, সেটা তাদের বিষয়। তবে সাম্প্রদায়িক এবং স্বাধীনতাবিরোধী কোনো দলকে আমন্ত্রণ জানানো হবে না।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, প্রচার সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের উত্তর ও দক্ষিণের সভাপতি এবং কেন্দ্রীয় ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা।

এই বিভাগের আরো খবর