• মঙ্গলবার   ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ১৪ ১৪২৭

  • || ১১ সফর ১৪৪২

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৬, শনাক্ত ১৪৮৮ অস্ত্র মামলায় সাহেদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম আর নেই দূরদর্শী নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন এমসি কলেজে ধর্ষণের ঘটনায় কাউকে ছাড় নয়: কাদের করোনায় আরও ২৮ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫৪০ মেহেরপুরে ‘আল্লাহর দল’র সক্রিয় সদস্য আটক করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৬৬৬ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৮, শনাক্ত ১৫৫৭ মসজিদে বিস্ফোরণে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৪ ধর্ষণ মামলায় ভিপি নুর গ্রেফতার আইসিটি মামলায় আলাউদ্দিন জিহাদী এক দিনের রিমান্ডে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৪০, শনাক্ত ১৭০৫ গাড়িচালক মালেক ১৪ দিনের রিমান্ডে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৬, শনাক্ত ১৫৪৪ গভীর সমুদ্র থেকে ৫ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার, আটক ৭ ব্যাংকটা যেন ভালোভাবে চলে সেদিকে দৃষ্টি দিবেন: প্রধানমন্ত্রী নারায়ণগঞ্জের মসজিদে বিস্ফোরণে মৃত্যু বেড়ে ৩৩ আহমদ শফী কওমি শিক্ষার আধুনিকায়নে ভূমিকা রেখেছেন: প্রধানমন্ত্রী
৮৪

মাশরুমের কনটেইনারে সাড়ে পাঁচ কোটি টাকার সিগারেট

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৭ জানুয়ারি ২০২০  

চট্টগ্রাম বন্দরে সন্দেহজনক একটি কনটেইনার খুলে ১ কোটি ৪০ লাখ ২০ হাজার শলাকা সিগারেট জব্দ করেছেন কাস্টমস গোয়েন্দা কর্মকর্তারা। গতকাল রোববার বিকেলে বন্দর থেকে আমদানিকারক কৌশলে চালানটি খালাস নেওয়ার তৎপরতা শুরুর খবর পেয়ে তা জব্দ করেন কাস্টমস কর্মকর্তারা।

এই চালানটি মালয়েশিয়া থেকে মাশরুম ঘোষণা দিয়ে আমদানি করেছিল চট্টগ্রামের আগ্রাবাদের বাংলা ভিনা এন্টারপ্রাইজ নামের একটি প্রতিষ্ঠান। সন্দেহজনক চালানটি খালাস স্থগিতও করে রেখেছিলেন কাস্টমসের এআইআর শাখার গোয়েন্দা কর্মকর্তারা। এরপরও কাস্টমস দিবস উপলক্ষে কর্মকর্তাদের ব্যস্ততার সুযোগ নিয়ে চালানটি খালাসের তৎপরতা শুরু করেছিলেন আমদানিকারকের লোকজন।

চট্টগ্রাম কাস্টমসের অডিট ইনভেস্টিগেশন অ্যান্ড রিসার্চ (এআইআর) বিভাগের সহকারী কমিশনার নুর এ হাসনা সানজিদা বলেন, চালানটিতে থাকা সিগারেটের মূল্য ৫ কোটি ৬২ লাখ টাকা। শর্তসাপেক্ষে এই চালান খালাস করতে হলে শুল্ককর দিতে হতো ২১ কোটি ৮৭ লাখ টাকা। মিথ্যা ঘোষণায় পণ্য আমদানির কারণে আমদানিকারকসহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

কাস্টমসের নথিপত্রে দেখা যায়, চালানটির রপ্তানিকারক মালয়েশিয়ার নিউ সাইন করপোরেশন। তবে চালানটি আনা হয় সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে। এই চালানের জন্য ঋণপত্র খোলা হয়েছিল ৭ হাজার ৩৩৫ মার্কিন ডলারের। চালানটি চট্টগ্রাম বন্দরে আসার পর গত ৫ জানুয়ারি খালাসের প্রক্রিয়া শুরু করেন আমদানিকারক। শুল্কায়নের পর আমদানিকারকের প্রতিনিধি ৫ লাখ ৮০ হাজার টাকার শুল্ক পরিশোধ করেন। তবে সন্দেহজনক হওয়ায় চালানটির খালাস স্থগিত করে দেওয়া হয় বলে প্রথম আলোকে জানিয়েছেন সহকারী কমিশনার নুর এ হাসনা সানজিদা।

এদিকে আরেকটি চালানে মিথ্যা ঘোষণার প্রমাণ পেয়েছে কাস্টমস। সুইট কর্ণের ঘোষণায় প্রায় ১৫ টন চকলেট নিয়ে আসে ঢাকার মতিঝিলের সামিত ট্রেডিং ইন্টারন্যাশনাল।

জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর