বুধবার   ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৬ ১৪২৬   ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
ধর্ষকদের ধরিয়ে দিন, কঠোর ব্যবস্থা নেবো: প্রধানমন্ত্রী টাকা না থাকলে এত উন্নয়ন কাজ করছি কীভাবে : প্রধানমন্ত্রী সব ব্যথা চেপে রেখে দেশের জন্য কাজ করছি : প্রধানমন্ত্রী ট্রেনে খোলা খাবার বিক্রি ও প্লাস্টিকের কাপ নিষিদ্ধ হচ্ছে চলতি বছরে জিপিএ-৪ কার্যকর হচ্ছে মজুদ গ্যাসে চলবে ২০৩০ সাল পর্যন্ত : খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী গুজব-অপপ্রচার রোধে কাজ করছে উচ্চ পর্যায়ের কমিটি : তথ্যমন্ত্রী সব কারখানায় ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপনের নির্দেশ আজ বাংলাদেশ-নেপাল পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক সরকার-জনগণের মধ্যে সম্পর্ক জোরদার করতে সাংসদের রাষ্ট্রপতির আহ্বান দেশে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বিরাজ করছে : নাসিম ব্যাংকের জঙ্গি অর্থায়ন নজরদারিতে রয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ৪০০ মেট্রিক টন মধু রফতানির অর্ডার পেয়েছে বাংলাদেশ : কৃষিমন্ত্রী নয় বছরে সাড়ে ৯৭ হাজার কর্মকর্তা নিয়োগ : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী দেশে মোবাইল টাওয়ার রেডিয়েশনের মাত্রা ক্ষতিকর নয় : বিটিআরসি সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী ২০ বছর পর আজ ঢাকায় আসছেন নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খালেদার প্যারোলে মুক্তির কোনো আবেদন পাইনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উহান ফেরত শিক্ষার্থীরা নজরদারিতেই থাকবেন : আইইডিসিআর রোহিঙ্গা ইস্যুতে ইন্দোনেশিয়ার সহায়তা চাইলেন ড. মোমেন

ভ্রাম্যমাণ আদালতের আদেশ অমান্য করায় বর ও বরের বাবাকে কারাদণ্ড

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

 


ফরিদপুরে বোয়ালমারীতে জরিমানা ও মুচলেকা দেওয়ার পরও বাল্যবিবাহ দেয়ায় বর ও বরের বাবাকে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। নিয়মিত মামলা দায়েরের সুপারিশ কনে ও কনের বাবার বিরুদ্ধে। গত শুক্রবার ১৬ বছরের কিশোরী কন্যাকে বাল্যবিয়ে দেওয়ার আয়োজন করায় ওই কিশোরীর বাবাকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এটি বোয়ালমারী সদর ইউনিয়নের চালিনগর গ্রমের ঘটনা। এ আদালত পরিচালনা করেছিলেন নির্বাহী হাকিম ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ঝোটন চন্দ। ওইদিন আদালতের কাছে মেয়ে প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ের আয়োজন করাবেন না মর্মে মুচলেকাও দিয়েছিলেন মেয়ের বাবা।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ভ্রাম্যমাণ আদালতের নিকট জরিমানা ও মুচলেকা দেওয়ার পরও ওই দিনই ওই বিয়ে সম্পন্ন হয়। তবে গোপনে তা সংঘটিত হওয়ায় জানাজানি হয়নি। তবে মঙ্গলবার দুপুরে ছেলের বাড়িতে ঘোষপুর ইউনিয়নের ভীমপুর গ্রামে বউভাত (বিবাহত্তোর সংবর্ধনা) এর আয়োজন করায় বিষয়টি আবার নজরে আসে ভ্রাম্যমাণ আদালতের। এ খবর শুনে মঙ্গলবার বরের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বর ও বরের বাবাকে আটক করে নিজ কার্যালয়ে নিয়ে আসেন ইউএনও ঝোটন চন্দ। পরে সন্ধ্যায় নিজ কার্যালয়ে আদালত বসিয়ে ২০১৭ সালের বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনে বর আলামীন (২৪) কে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং বরের বাবা এনায়েত হোসেন (৫৫) কে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 
তবে বরের বাড়িতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের এ অভিযান পরিচালনাকালে কনের বাবাকে পাওয়া যায়নি। এজন্য আদালত কনের বাবা ও কনের বিরুদ্ধে আদালতের শাস্তি উপেক্ষা করে বাল্যবিয়ে দেয়ার দায়ে নিয়মিত মামলা গ্রহণের জন্য বোয়ালমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ইউএনও ঝোটন চন্দ বলেন, আদালত অভিযান করে বাল্যবিবাহের আয়োজন ঠেকানোর পরও এ বিয়ে দিয়ে আইনের প্রতি অশ্রদ্ধা দেখিয়েছে ওই দুটি পরিবার। এজন্য বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনে এ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর