সোমবার   ১৯ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৪ ১৪২৬   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা নিম্নগতি: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর কোহলির ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছেন স্মিথ ব্ল্যাক কফির কত না গুণ! কীভাবে জান্নাতে প্রাসাদ গড়বেন? রাসুল (সা.)-এর প্রিয় নাতনি উমামা বিনতে আস সারাবছর স্কুলে পুষ্টিকর খাবার পাবে শিক্ষার্থীরা আদালতে হাজির সুদানের ক্ষমতাচ্যুত রাষ্ট্রপতি বানারীপাড়ায় ১১টি জলাসয় ৩’শ ৩৪ কেজি মাছের পোনা অবমুক্ত করলেন এমপি যুদ্ধ কেড়েছে বাবার কর্মস্থল, অনাহারে হাড্ডিসার সন্তান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে চাঁদপুরে নারীরা কেন পুরুষদের চেয়ে বেশিদিন বাঁচেন? মিন্নির গ্রেফতার-জিজ্ঞাসাবাদের বিষয়ে জানতে চান হাইকোর্ট বরিশালে ৬০১ জন বয়স্কদের মাঝে নতুন ভাতা’র বই বিতরণ আজ ‘বিশ্ব ফটোগ্রাফি দিবস’ বরিশালে জ্বিনের বাদশা সেজে প্রতারণা,দম্পতি আটক হাইকোর্টে আজ ফের মিন্নির জামিন শুনানি আজ ১৪ হাজার বয়স্কদের মাঝে ভাতা’র বই বিতরণ করবেন বিসিসি মেয়র জাতীয় স্কুল মিল নীতিমালার খসড়া মন্ত্রিসভায় উঠছে আজ অতিরিক্ত ডিআইজি হলেন বিএমপি উপ-পুলিশ কমিশনার হাবিবুর রহমান সাব্বির-অর্পার জমকালো গায়ে হলুদ অনুষ্ঠান
১২

মাছ খেলেই কমবে শ্বাসকষ্ট!

প্রকাশিত: ৭ আগস্ট ২০১৯  

অ্যাজমার সমস্যায় বড় ছোট সবাই আক্রান্ত হয়ে থাকে। জানেন কি? পৃথিবী জুড়ে ৩০ কোটি মানুষ অ্যাজমায় আক্রান্ত, যা ২০২৫ সাল নাগাদ ৪০ কোটিতে পৌঁছাবে। বাংলাদেশে এ রোগে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১ কোটি ১০ লাখ। যার মধ্যে ৪০ লাখই শিশু। শ্বাসকষ্ট বা হাঁপানি জনিত রোগে কাবু হয়ে অনেকেই হোমিওপ্যাথি কিংবা অ্যালোপ্যাথি সব ধরনের ওষুধ খেয়ে থাকেন। 

তবুও সম্পূর্ণভাবে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা খুবই কম! ছোট থেকে বড় কাউকেই রেহাই দেয় না রোগটি। কেউ কেউ আবার অনেক কম বয়সেই রোগটিতে আক্রান্ত হয়। কিন্তু, ঘরোয়া উপায়েই মিলতে পারে সমাধান। খাদ্যতালিকাতে যোগ করতে পারেন স্যামন, ট্রাউট কিংবা সার্ডিনের মত সামুদ্রিক মাছগুলোকে।

সম্প্রতি, বিষয়টি নিয়ে গবেষণা করেন অস্ট্রেলিয়ার গবেষকরা। যেখানে দেখা গিয়েছে, স্যামন, ট্রাউট, সার্ডিনের মধ্যে থাকে বিশেষ কিছু উপাদান। যেগুলো বাচ্চাদের হাপাঁনির প্রবণতাকে অনেকাংশে কম করে। তাই, এখনই খাদ্য তালিকাতে এই মাছগুলো রাখুন।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, অতিরিক্ত ফ্যাট, চিনি এবং লবণজাতীয় খাবার শিশু শরীরকে (হাঁপানিতে আক্রান্ত) সরাসরি প্রভাবিত কর। কিন্তু, এখন এটাও প্রমাণিত স্বাস্থ্যকর খাদ্যতালিকা এবং সঠিক উপাদান কমাবে পারে শিশুদের শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যাকে।

মোট ৬৪ জন হাঁপানিতে আক্রান্ত বাচ্চার উপর পরীক্ষাটি করা হয়। যেখানে দুটি ভাগে ভাগ করে নিয়ে পরীক্ষাটি করা হয়। প্রথমের গ্রুপটিকে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য বিশেষ ডায়েট দেয়া হয়। খাওয়ানো হয় প্রচুর তেলযুক্ত মাছ।

বাকিদের সাধারণ খাবার দেয়া হয়। যারা বিশেষ তেলযুক্ত মাছের ডায়েটটি ফলো করেছিল তাদের মধ্যে এসেছে পরিবর্তন। তেলযুক্ত সামুদ্রিক মাছগুলোর মধ্যে থাকে ওমেগা-৩। যেটি অনেকাংশে কমায় শিশুদের হাঁপানির প্রবণতাকে।