শনিবার   ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৩০ ১৪২৬   ১৬ রবিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
প্রজন্ম থেকে প্রজন্মকে সচেতন থাকতে হবে: প্রধানমন্ত্রী মোশতাক, জিয়ার মতো মীরজাফররা আর যেন ক্ষমতায় না আসে-প্রধানমন্ত্রী বরিশালে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত বরিস জনসনকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন আগৈলঝাড়ায় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত বুদ্ধিজীবী দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস আজ বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীরের শাহাদতবার্ষিকী আজ বিশ্বের প্রভাবশালী ১০০ নারীর তালিকায় শেখ হাসিনা বরিশালে ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস উদযাপন আজকের নবীন কর্মকর্তারাই হবেন ৪১ সালের সৈনিক : প্রধানমন্ত্রী ঘুষ-দুর্নীতির বিরুদ্ধে সজাগ থাকার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারে দায়িত্বশীল হতে হবে: স্পিকার বয়স্ক বাবা-মাকে না দেখলে জেল চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোতে যারা ফখরুল-রিজভীসহ ১৩৫ জনের বিরুদ্ধে দুই মামলা আগৈলঝাড়ায় ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস পালন  সবার জন্য উন্মুক্ত থাকছে ‘কনসার্ট ফর ডিজিটাল বাংলাদেশ’ এসক্যাপ অধিবেশনে যোগ দিতে শেখ হা‌সিনা‌কে আমন্ত্রণ
৪৯

মাছ খেলেই কমবে শ্বাসকষ্ট!

প্রকাশিত: ৭ আগস্ট ২০১৯  

অ্যাজমার সমস্যায় বড় ছোট সবাই আক্রান্ত হয়ে থাকে। জানেন কি? পৃথিবী জুড়ে ৩০ কোটি মানুষ অ্যাজমায় আক্রান্ত, যা ২০২৫ সাল নাগাদ ৪০ কোটিতে পৌঁছাবে। বাংলাদেশে এ রোগে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১ কোটি ১০ লাখ। যার মধ্যে ৪০ লাখই শিশু। শ্বাসকষ্ট বা হাঁপানি জনিত রোগে কাবু হয়ে অনেকেই হোমিওপ্যাথি কিংবা অ্যালোপ্যাথি সব ধরনের ওষুধ খেয়ে থাকেন। 

তবুও সম্পূর্ণভাবে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা খুবই কম! ছোট থেকে বড় কাউকেই রেহাই দেয় না রোগটি। কেউ কেউ আবার অনেক কম বয়সেই রোগটিতে আক্রান্ত হয়। কিন্তু, ঘরোয়া উপায়েই মিলতে পারে সমাধান। খাদ্যতালিকাতে যোগ করতে পারেন স্যামন, ট্রাউট কিংবা সার্ডিনের মত সামুদ্রিক মাছগুলোকে।

সম্প্রতি, বিষয়টি নিয়ে গবেষণা করেন অস্ট্রেলিয়ার গবেষকরা। যেখানে দেখা গিয়েছে, স্যামন, ট্রাউট, সার্ডিনের মধ্যে থাকে বিশেষ কিছু উপাদান। যেগুলো বাচ্চাদের হাপাঁনির প্রবণতাকে অনেকাংশে কম করে। তাই, এখনই খাদ্য তালিকাতে এই মাছগুলো রাখুন।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, অতিরিক্ত ফ্যাট, চিনি এবং লবণজাতীয় খাবার শিশু শরীরকে (হাঁপানিতে আক্রান্ত) সরাসরি প্রভাবিত কর। কিন্তু, এখন এটাও প্রমাণিত স্বাস্থ্যকর খাদ্যতালিকা এবং সঠিক উপাদান কমাবে পারে শিশুদের শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যাকে।

মোট ৬৪ জন হাঁপানিতে আক্রান্ত বাচ্চার উপর পরীক্ষাটি করা হয়। যেখানে দুটি ভাগে ভাগ করে নিয়ে পরীক্ষাটি করা হয়। প্রথমের গ্রুপটিকে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য বিশেষ ডায়েট দেয়া হয়। খাওয়ানো হয় প্রচুর তেলযুক্ত মাছ।

বাকিদের সাধারণ খাবার দেয়া হয়। যারা বিশেষ তেলযুক্ত মাছের ডায়েটটি ফলো করেছিল তাদের মধ্যে এসেছে পরিবর্তন। তেলযুক্ত সামুদ্রিক মাছগুলোর মধ্যে থাকে ওমেগা-৩। যেটি অনেকাংশে কমায় শিশুদের হাঁপানির প্রবণতাকে।

এই বিভাগের আরো খবর