সোমবার   ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ১ ১৪২৬   ১৬ মুহররম ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
রোহিঙ্গা ভোটার খতিয়ে দেখতে চট্টগ্রামে কবিতা খানম আগামী ১০মাসের রোডম্যাপ তৈরি ও তার বাস্তবায়ন করবো - জয় ও লেখক ডেঙ্গুতে সরকারি হিসেবে ৬৮ জনের মৃত্যু আ. লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা ১৮ সেপ্টেম্বর বরিশাল নগরীতে আসছে স্মার্ট এলইডি লাইটিং বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপের জন্মদিন আজ আজ থেকে ট্রাকে পেঁয়াজ বিক্রি করবে টিসিবি বিশ্ব ওজন দিবস আজ শিগগিরই বন্দর-ট্রেনে যুক্ত হচ্ছে ত্রিপুরা-বাংলাদেশ দিল্লিতে শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠক ৫ অক্টোবর সারাদেশে ৭৫ প্রতিষ্ঠানকে পাঁচ লক্ষাধিক টাকা জরিমানা প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের ফল প্রকাশ এ পি জে আব্দুল কালাম স্মৃতি পুরস্কারে ভূষিত শেখ হাসিনা টস হেরে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ বরিশালকে যানজট মুক্ত রাখতে কাজ করছে ট্রাফিক সদস্যরা- ডিসি ট্রাফিক সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করুন : প্রধানমন্ত্রী বরিশালে কাজী নজরুল ইসলামের ৪৩তম প্রয়াণ বার্ষিকী অনুষ্ঠিত রাজশাহীর পুলিশ একাডেমিতে কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী গণপরিবহনে মাসিক বেতনে চালক নিয়োগের নির্দেশ হাইকোর্টের সারদার পথে প্রধানমন্ত্রী
৬১৬

মাইক্রোওয়েভ ওভেন ব্যবহারের যত টিপস

আকাশলীনা

প্রকাশিত: ২৫ ডিসেম্বর ২০১৮  

            মাইক্রোওয়েভ ওভেন ব্যবহারের যত টিপস

১।    মাইক্রোওয়েভ ওভেনের কয়েক রকম প্রকারভেদ আছে। শুধু খাবার গরম করা, রান্না করা, বেকিং– সবই করতে পারবেন এতে। শুধু ওভেন কেনার সময় আপনার প্রয়োজনের কথাটি মাথায় রেখে মাইক্রোওয়েভ ওভেন নির্বাচন করুন। 

২।    দেয়াল থেকে কমপক্ষে ১ বিঘাত দূরত্বে কাঠের টেবিলে, অন্য ইলেকট্রনিক ডিভাইস থেকে দূরে এবং সুবিধাজনক ঊচ্চতায় মাইক্রোওভেন রাখার ব্যবস্থা করুন। 

৩।    খাবার গরম বা রান্না করার কাজে ভাল মানের মাইক্রোওভেন প্রুফ পাত্র ব্যবহার করুন। প্লাষ্টিকের পাত্র ব্যবহার করা একেবারেই ঠিক হবেনা। ধাতব পাত্রও ব্যবহার করা যাবে না।
 
৪।    খাবার ছিটে যেন মাইক্রোওভেন নোংরা না হয় সেজন্যে সব সময় ঢেকে রান্না করুন বা খাবার গরম করুন।

৫।    খাবার গরম করার ক্ষেত্রে বাটি উপচানো খাবার না নিয়ে পরিমাণমতো একই সাইজের টুকরা নিয়ে সময় নির্ধারণ করে দিন। ঝটপট, সহজে খাবার গরম হয়ে যাবে। 

৬।    মাইক্রোওয়েভ ওভেনে রান্নার জন্য সব্জী, মাছ, মাংস ১১/২ ইঞ্চি পুরু করে টুকরা করতে চেষ্টা করুন। এই সাইজের টুকরোর মধ্যে সহজে তাপ প্রবেশ করতে পারে এবং স্বল্প সময়ে সিদ্ধ হয়। 

৭।    খাবারের ধরণ অনুযায়ী রান্নার সময় এবং পাওয়ার সেট করুন। নির্ধারিত সময়ের পর ৫-৬ মিনিট খাবার স্ট্যান্ডিং টাইম এ রেখে দিন। 

৮।    খাবার ঢুকানোর ক্ষেত্রে সব সময় খেয়াল রাখবেন পাত্র যেন কোন দিকের ওয়াল টাচ না করে থাকে। 

৯।    মাইক্রোওয়েভ ওভেনের রান্নায় বেশী তেল ব্যবহার করা যাবে না। তেল ছিটে দূর্ঘটনার ভয় আছে। 

১০।    তেলে ভাজা মচমচে ধরণের খাবার মাইক্রোওভেনে গরম করতে যাবেন না। খাবার নরম হয়ে নেতিয়ে যাবে। 

১১।    চালের আটার রুটি, ভাপা পিঠা এগুলো গরম করতে চাইলে প্রথমে ১ মগ পানি ঢুকিয়ে বয়েল করে নিন। তারপর ভিজা পাতলা তোয়ালে পেচিয়ে এগুলো গরম করুন। সুন্দর গরম হয়ে যাবে। 

১২।    খালি হাতে মাইক্রোওয়েভ ওভেন থেকে গরম খাবার বের করতে যাবেন না। হাত পুড়ে যাবে। হাতে গ্লাভস পরে নিন। 


১৩।  গরম অবস্থায় ওভেনের দরজা বন্ধ করবেন না। ঠান্ডা হওয়ার পর ওভেনটি মুছে দরজা বন্ধ করে রাখুন। না হলে তেলাপোকা ঢুকে ওভেন নষ্ট করবে।

১৪।  সপ্তাহে অন্তত ১টি দিন রাখুন ওভেনটি ভাল করে পরিস্কার করার জন্যে। ১ কাপ পানিতে ১ চা চামচ ভিনিগার মিশিয়ে মাইক্রোওয়েভ ওভেনে ঢুকিয়ে ফুটিয়ে নিন। এতে ভিতরের দূগন্ধ দূর হবে। এরপর বৈদ্যুতিক সংযোগ বন্ধ করে ভিতরের ট্রে বের করে নিন। নরম স্পঞ্জের টুকরোর সাহায্যে হালকা গরম সাবান-পানি দিয়ে ঘসেঘসে ভিতরটা পরিস্কার করে নিন। ভেজা গেঞ্জির কাপড় দিয়ে মুছে সাবান-পানি দূর করে নিন। ভিতরের ট্রে মেজে শুকিয়ে আবার ঢুকিয়ে দিন।

 ১৫। আমাদের দেশে ভোল্টেজ খুব ওঠা নামা করে। তাই দীর্ঘ দিন ভাল রাখতে মাইক্রোওয়েভ ওভেনে একটি স্ট্যাবিলাইজার ব্যবহার করুন।