রোববার   ২০ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৫ ১৪২৬   ২০ সফর ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
কুমার শানুর জন্মদিন আজ ২০২১ সাল নাগাদ সব ডিজিটাল সেবা আরও সহজ হবে: জয় ফাদার রিগনের মৃত্যুবার্ষিকী আজ বিকেলে যুবলীগ নেতাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক অখ্যাত মায়োর্কার মাঠে রিয়ালের প্রথম হার টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত শ্রমিকের স্বার্থে কাজ করছে সরকার: শ্রম প্রতিমন্ত্রী যুবলীগ থেকে বহিষ্কার কাউন্সিলর রাজীব টেকনাফে পৃথক অভিযানে ইয়াবাসহ ৩ রোহিঙ্গা আটক রাজীবের মোহাম্মদপুরের বাসায় অভিযান পরিচালনা করছে র‌্যাব অস্ত্র ও মাদকসহ রাজীবকে আটক করেছে র‌্যাব কাউন্সিলর তারেকুজ্জামান রাজিব গ্রেফতার আসছে ‘জলের গান’র অ্যালবাম, থাকছে বারী সিদ্দিকীর গান বছর শেষ হলেই বাতিল হচ্ছে ২ হাজার রুপির নোট ঢাকায় আসছেন নিউইয়র্ক সিটির ৫ সিনেটর বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত দাইয়ুস জান্নাতে যাবে না ড্রাগনের রক্ত বয়ে চলেছে যে গাছ! বালিশকাণ্ডের মতো কলঙ্কজনক কাজ যেন না হয় :পরিকল্পনামন্ত্রী দলে অনুপ্রবেশকারীদের জায়গা দেওয়া হবে না: নাসিম
১৭

বড় ঋণে ব্যাংক চেয়ারম্যানকেও ‘গ্যারান্টার’ করার নিয়ম হচ্ছে

প্রকাশিত: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

খেলাপী ঋণের লাগাম টেনে ধরতে আইন পরিবর্তন করে ব্যাংক চেয়ারম্যান ও পরিচালকদেরও ব্যক্তিগতভাবে ‘গ্যারান্টার’ করার নিয়ম চালুর পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেন, কোনো ব্যাংক থেকে বড় অংকের ঋণ দেয়ার সময় আদায় নিশ্চিত করার জন্য পর্যাপ্ত মর্টগেজের আওতায় থাকতে হবে। এর বাইরে যারা পরিচালক, চেয়ারম্যান, তারা সবাই পারসোনাল গ্যারান্টি দেবে। এই সমস্ত গ্যারান্টিগুলো আমাদের আইনি প্রক্রিয়ায় এতটা শক্তিশালী হবে যে, কেউ যদি ফেইল করে ঋণ শোধে, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আমরা অ্যাকশন নিতে পারব।

গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে রাষ্ট্রায়ত্ত চার বাণিজ্যিক ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের সঙ্গে বৈঠকে এ বিষয়ে ঐকমত্য হয়েছে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন তিনি। বৈঠকের পর এক ব্রিফিংয়ে মন্ত্রী বলেন, খেলাপী ঋণ নিয়ে আমাদের যে দুশ্চিন্তা থাকে, সেটা থেকে মুক্তি লাভের জন্য আমরা সবাই ঐকমত্য পোষণ করেছি যে আমরা আইনি প্রক্রিয়ায় কিছু পরিবর্তন নিয়ে আসব।  তিনি আরও বলেন, আমরা রাষ্ট্রায়ত্ত চার বাণিজ্যিক ব্যাংকের জন্য কর্মপরিকল্পনা নিয়েছি। ব্যাংকগুলো সুষ্ঠু পরিচালনার জন্য যা যা করা দরকার সেগুলো তারা করবেন। আয় বাড়ানোর জন্য, ব্যাংকগুলোর ব্যয় কমানোর জন্য, যেখানে যেখানে যা প্রয়োজন তারা করবেন।
 

এই বিভাগের আরো খবর