রোববার   ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৩০ ১৪২৬   ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
বিজয় দিবসে আসছে সাবিনা ইয়াসমিনের গান নারীর ক্ষমতায়নে বিস্ময়কর রেকর্ড হাত থেকে কোরআন পড়ে গেলে করণীয় সানিয়া মির্জার বোনের বিয়েতে বসেছিল চাঁদের হাট! বিএনপির ঘাড়ে ভর করেছে বুদ্ধিজীবী হত্যাকারীদের প্রেতাত্মা ‘বোরকা পরে বাংলাদেশ থেকে এসেছি’ বিজেপি এমপির টুইটে ভারতে তোলপাড় বন্দে আলী মিয়ার জন্ম ‘২ ঘণ্টার মধ্যে উড়ে যাবে সালমান খানের গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্ট!’ গরুর খামারে কম্বল দান করলেই মিলবে বন্দুকের লাইসেন্স! আজ প্রকাশ হবে রাজাকারদের তালিকা সোশ্যাল মিডিয়া বিশেষজ্ঞ খুঁজছেন ব্রিটেনের রানি শামীমের ৩৬৫ কোটি টাকা, খালেদের ৩৪, সম্রাটের ‘তেমন নেই’ মাকাসিদুশ শরিয়া তত্ত্বের প্রয়োগ ও অপপ্রয়োগ লড়েছেন মোসাদ্দেক, জিতেছে ঢাকা প্রজন্ম থেকে প্রজন্মকে সচেতন থাকতে হবে: প্রধানমন্ত্রী মোশতাক, জিয়ার মতো মীরজাফররা আর যেন ক্ষমতায় না আসে-প্রধানমন্ত্রী বরিশালে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত বরিস জনসনকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন আগৈলঝাড়ায় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত বুদ্ধিজীবী দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
৩২১

বিশ্ব ব্র্যান্ড ভ্যালু র‌্যাংকিংয়ে ৪ ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ

প্রকাশিত: ১১ নভেম্বর ২০১৯  

গত বছরের র‌্যাংকিংয়ে ৩৯তম অবস্থানে ছিলো বাংলাদেশ, এবার অবস্থান ৩৪তম হয়েছে। দ্রুতবর্ধনশীল ১০০টি দেশের তালিকায় বাংলাদেশ রয়েছে চতুর্থ স্থানে। গত বছর দেশের ব্র্যান্ড ভ্যালু ছিলো ২৫৭ বিলিয়ন ডলার যা এই বছর  ৫৪ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৩৯৫ বিলিয়ন ডলার। 

তিনটি বিষয়ের ভিত্তিতে ব্র্যান্ড ভ্যালু হিসাব করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ব্র্যান্ড স্ট্রেংথ ইনডেক্স (বিএসআই), ব্র্যান্ড রয়্যালটি রেট ও ব্র্যান্ডের রেভিনিউ। আগের বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত তথ্যের ভিত্তিতে তৈরি ‘নেশন ব্র্যান্ডস ২০১৯’ শীর্ষক প্রতিবেদনটি অক্টোবরে প্রকাশ করেছে ব্র্যান্ড ফিন্যান্স।

বাংলাদেশের চেয়ে বেশি হারে ব্র্যান্ড ভ্যালু বেড়েছে মাত্র তিনটি দেশের। এর মধ্যে প্রথমেই আছে ঘানা। দেশটির ব্র্যান্ড ভ্যালু বেড়েছে ৬৭ দশমিক ১ শতাংশ। দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে থাকা উগান্ডা ও প্যারাগুয়ের ব্র্যান্ড ভ্যালু বেড়েছে যথাক্রমে ৫৫ দশমিক ৮ ও ৫৫ দশমিক ৪ শতাংশ।

ব্র্যান্ড ভ্যালু হিসাবের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ সূচক ব্র্যান্ড স্ট্রেনথ ইনডেক্স প্রকাশ করা হয়েছে তিনটি স্তম্ভের ভিত্তিতে। এগুলো হলো বিনিয়োগ, সমাজ এবং পণ্য ও সেবা। এগুলোর বিপরীতে আবার রয়েছে আলাদা উপসূচক। বিনিয়োগ স্তম্ভের আওতায় রয়েছে তিনটি উপসূচক—সুশাসন, বাজার এবং জনগোষ্ঠী ও দক্ষতা। সুশাসন পরিমাপ করা হয়েছে নিয়ন্ত্রণ, কর ব্যবস্থা, অবকাঠামো ও বিনিয়োগকারীর সুরক্ষার ভিত্তিতে।

প্রাপ্ত মান অনুযায়ী, ছয়টি আলাদা শ্রেণীতে ভাগ করা হয় প্রতিটি ব্র্যান্ডকে। এগুলো হলো অসাধারণ, অত্যন্ত শক্তিশালী, শক্তিশালী, উন্নয়নশীল, দুর্বল ও ক্ষয়িষ্ণু। প্রতিটি শ্রেণীতে তিনটি করে উপশ্রেণী রয়েছে। ব্র্যান্ড ভ্যালুতে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষে রয়েছে ভারত। ব্র্যান্ড ফিন্যান্সের বৈশ্বিক তালিকায় দেশটির অবস্থান সপ্তম। গত বছরের চেয়ে ১৮ শতাংশ বেড়েছে দেশটির ব্র্যান্ড ভ্যালু।

উল্লেখ্য, বরাবরের মতো এবারো ব্র্যান্ড ভ্যালুতে শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির ব্র্যান্ড ভ্যালু দাঁড়িয়েছে ২৭ হাজার ৭৫১ বিলিয়ন ডলার। আগের বছরের চেয়ে ৭ দশমিক ২ শতাংশ বেড়েছে দেশটির ব্র্যান্ড ভ্যালু। চলতি বছর ব্র্যান্ড ভ্যালুতে শীর্ষ পাঁচে থাকা অন্য দেশগুলো হলো চীন, জার্মানি, জাপান ও যুক্তরাজ্য। দেশগুলোর ব্র্যান্ড ভ্যালু যথাক্রমে ১৯ হাজার ৪৮৬, ৪ হাজার ৮৫৫, ৪ হাজার ৫৩৩ ও ৩ হাজার ৮৫১ বিলিয়ন ডলার। 

এই বিভাগের আরো খবর