সোমবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১৪ ১৪২৬   ০১ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
বরিশাল নগরীতে ৫৫০ পিস ইয়াবাসহ বিক্রেতা গ্রেপ্তার বরিশাল পুলিশের চার থানায় যুক্ত হল পরিদর্শক অপারেশন পদ ৬৬ বলে সেঞ্চুরি করলেন বরিশালের ইমান বরিশালে ইয়াবা বিক্রেতার ১০ বছরের কারাদণ্ড ক্যালিফোর্নিয়ায় হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় বাস্কেটবল তারকা নিহত হবিগঞ্জে বিশ্বের বড় কাঠবিড়াল সমালোচনা না করে দেশের সমস্যা সমাধানের আহ্বান তাজুলের বিদেশের মসজিদে আর অর্থ দেবে না সৌদি গুরুত্বপূর্ণ নথি ও সামগ্রী নিয়ে আর্কাইভ হচ্ছে এত সুন্দরভাবে নির্বাচন হচ্ছে কীভাবে: ইসি সচিব জমাদিউস সানি শুরু আজ ভাঙা হৃদয় জোড়া লাগালেন ব্র্যাড পিট ও জেনিফার অ্যানিস্টন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে মাদক ও জঙ্গিবাদ বিরোধী সচেতনতামূলক সেমিনার বাগদাদে মার্কিন দূতাবাসের কাছে ৫ ক্ষেপণাস্ত্র হামলা আজ ঐতিহাসিক সলঙ্গা বিদ্রোহ দিবস বাংলাদেশ-ভারতের সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় করার প্রত্যয় ধর্ষণ থেকে রক্ষায় জাবি শিক্ষার্থীর অ্যাপ তৈরি ইশরাকের অভিযোগ অমূলক : তাপস বিশ্বের প্রাণঘাতী ৭টি ভাইরাস ইসলামের মুদ্রাব্যবস্থা স্বর্ণ-রৌপ্যনির্ভর
৮৯

বাবুগঞ্জে বিনাধান (আউস) ১৯ কর্তন ও মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২২ আগস্ট ২০১৯  

বরিশালের বাবুগঞ্জের চাঁদপাশা ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রামে বাংলাদেশ পরমানু গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিনা) উদ্ভাবিত উচ্চফলনশীল বিনাধান-এর সম্প্রসারনের লক্ষ্যে ধান কর্তন ও কৃষকদের নিয়ে মাঠ দিবস-২০১৯ কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (২২ই আগস্ট) দুপুরে বিনা ধান কর্তন ও মাঠ দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

চাঁদপাশা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান স্বপনের সভাপতিত্বে মাঠ দিবস অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বরিশাল অঞ্চল কৃর্ষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক সাইনুর আজম খান,বিশেষ অতিথি ছিলেন বরিশাল বিজ প্রত্যায়ন এজেন্সী (ডিএসসিও) মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ,বাবুগঞ্জ উপজেলা কৃর্ষি কর্মকর্তা মোসাম্মৎ মরিয়ম আক্তার, রহমতপুর বিনা উপকেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ড. বাবুল আকতার,ফলজ গবেষনা সম্প্রসারন বিভাগের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এমদাদুল হক, কৃষক আমিনুল ইসলাম ও কৃষক আঃ জলিল।

এসময় কৃষক আঃ জলিল বলেন, যদিও আমাদেরকে বিনা ধান-১৯ (আউস) এর বিজ কৃর্ষি বিভাগ থেকে সরবরাহ করা হয়েছে মাত্র ৯০ থেকে ১’শ দিনের মধ্যে আমরা ভালো ফলন পেয়েছে কিন্তু দেখা যায় ফলন উৎপাদন করতে গিয়ে দৈনিক আমাদের ৬’শ টাকা লেবার খরচ পরে যায় আর সেখানে ধান বিক্রি করতে গিয়ে ৪’শ টাকা দরে মন বিক্রি করতে হয় তাহলে তো আমাদের মত কৃষক বাচবে না।

আমাদের ফলন ভালো হয়েছে এতে আমরা খুশি হয়েছি। অপরদিকে কৃর্ষি বিভাগ যদি কৃষকদের কাছ থেকে বিজ ক্রয় করেন তাহলে হয়ত কৃষক বেছে থাকতে পারবে।

কৃষকরা বলেন যে পরিমান বিনা ধানের ফলন হয়েছে এতে তাদের একর প্রতি ৪০ মনের মত ধান পাওয়া যাবে তারা ৭ একর জমিতে বিনাধান-১৯ (আউস) চাষ করেছে।

কৃষক জাকির হোসেন মোল্লা বলেন, আগে তার ২৮ শতাংশ জমিতে ১০ থেকে ১২ মন আমন পাওয়া যেত। তাছাড়া বাকি সময় জমি অনাবাদি পড়ে থাকত।

এখন বিনাধান-১৯ চাষ করার পাশাপাশি আমরা আউস.মশুর ও আমন সহ তিন ফসল ফলাই যার ফলে এখন জমি অনাবাদি পড়ে থাকে না।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বরিশাল আঞ্চলিক কৃর্ষি সম্প্রসারনের অতিরিক্ত পরিচালক সাইনুর আজম খান বলেন, বর্তমান সরকার একজন কৃষি বান্ধব সরকার।

আমাদের দেশে ৩’শ মেট্রিক টন চালের প্রয়োজন আমাদের এবার ৪’শ মেট্রিক টন চাল উৎপাদন হয়েছে।

অন্যদিকে এত পরিমান চাল রাখার মত সরকারের সেরকম কোন গুদাম না থাকার কারনে কৃষকদের কাছ থেকে সরকার ধান ক্রয় করেনি। ধান ক্রয় করে সরকার সেই ধান রাখবে কোথায়।

তিনি কৃষকদের বলেন আপনারা জমিতে ভাল ফসল পেতে হলে ভালমানের বিজ যন্ত্র সহকারে রাখার আহবান জানান।

এর পূর্বে বিনা ধান কৃর্ষি বিভাগ থেকে সহায়তা পাওয়া বিজ থেকে তাদের যে ফসল হয়েছে সেখান থেকে কৃর্ষি কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে কর্তন করে পরে তা মাড়াই করে ধান ভিন্ন করা হয়।

এই বিভাগের আরো খবর