• বুধবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ১৪ ১৪২৭

  • || ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
আগে নিলে বলবে কাউকে দিলো না: প্রধানমন্ত্রী ৪০তম বিসিএসের ফল প্রকাশ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ১৭ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৫২৮ দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী: প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী চাল আমদানির ফলে বাজার স্থিতিশীল হয়েছে: কৃষিমন্ত্রী ৩ কোটি ৪০ লাখ ভ্যাকসিন পাবে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী করোনার প্রথম টিকা নিলেন নার্স রুনু দেশে করোনা টিকা কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ৭ ফেব্রুয়ারি একযোগে টিকাদান কর্মসূচি শুরু: স্বাস্থ্যমন্ত্রী দেশে করোনায় ১৪ মৃত্যু, শনাক্ত ৫১৫ কারও ব্যবসায়িক স্বার্থে ভ্যাকসিন সংগ্রহ করেনি সরকার: কাদের দেশের প্রথম নৌপ্রধান ক্যাপ্টেন নুরুল হক আর নেই দেশে ফিটনেসবিহীন গাড়ি চার লাখ ৮১ হাজার: কাদের শেখ হাসিনার আমলে কোন মানুষ গৃহহীন থাকবে না: শাহরিয়ার আলম বৈধ পথে বাড়ছে রেমিট্যান্স: পলক করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১৮, শনাক্ত ৬০২ চার ফিফটিতে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২৯৭ সব জেলায় ৪-৫ দিনের মধ্যে ভ্যাকসিন পৌঁছে যাবে: পাপন দেশে পৌঁছেছে সেরামের ৫০ লাখ টিকা রমজানে টিসিবির পণ্য ৩ গুণ বাড়ানো হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী

বরিশাল বিভাগে করোনা শনাক্ত ২৮৪৮ জনের, মৃত্যু ৬০

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ৩০ জুন ২০২০  

বরিশাল বিভাগের ৬ জেলায় এ পর্যন্ত মোট ২ হাজার ৮৪৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। এছাড়া সুস্থ হয়েছে ৮১৫ জন এবং মৃত্যু হয়েছে মোট ৬০ জনের।

মঙ্গলবার (৩০ জুন) বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল বিভাগের ৬ জেলায় ১২৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। আর গেলো ২৪ ঘণ্টায় পটুয়াখালী ব্যতিত বিভাগের ৫ জেলায় ৭২ জন রোগী সুস্থ হয়েছে।

পাশাপাশি সর্বোশেষ তথ্যানুযায়ী, সম্প্রতি মৃত্যুবরণ করা বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার আব্দুল্লাহ খান (৭৫), পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার শাহানাজ পারভীন (৬২) ও ভোলা সদরের খোরশেদ আলমের (৮২) রিপোর্টে করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। ফলে এ নিয়ে বিভাগে মোট মৃত্যুর সংখ্যা গিয়ে ৬০ জনে দাঁড়িয়েছে।

এদিকে করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে বিদেশি নাগরিকসহ ভিন্ন জেলা (সংক্রমিত) থেকে আগত ব্যক্তিদের কোয়ারেন্টিনে রাখার কার্যক্রম চলমান রয়েছে। ফলে গত ১০ মার্চ থেকে এ পর্যন্ত বরিশাল সিটি করপোরেশনসহ বিভাগের ৬ জেলায় মোট ২১ হাজার ৫২৯ জনকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়।

এর মধ্য হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয় ১৮ হাজার ৯৪৬ জনকে, আর এরমধ্যে ১৫ হাজার ৮৩৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বর্তমানে বিভাগের বিভিন্ন জেলায় হাসপাতালে (প্রতিষ্ঠানিক) কোয়ারেন্টিনে ২ হাজার ৫৮৩ জন রয়েছেন এবং এ পর্যন্ত ১ হাজার ২৯৮ জনকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। এর বাইরে শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালসহ বিভাগের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে আইসোলেশনে চিকিৎসা প্রাপ্ত রোগীর সংখ্যা ১ হাজার ৩৩০ জন এবং এরইমধ্যে ৭৪৪ জনকে ছাড়পত্রও দেওয়া হয়েছে। এছাড়া শুধুমাত্র বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আইসোলেশন ও করোনা ওয়ার্ডে মোট ৯৫ জনের মৃত্যু হয়েছে এ পর্যন্ত। এর মধ্যে ৩৫ জন করোনা পজিটিভ রোগী ও বাকিরা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন।

এদিকে বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস জানিয়েছেন, বিভাগের মধ্যে এ পর্যন্ত বরিশাল জেলায় ১ হাজার ৫১৪ জন, পটুয়াখালীতে ৩৯১, ভোলায় ২৮৬, পিরোজপুরে ২০৮, বরগুনায় ২৪৭ ও ঝালকাঠিতে ২০২ জনের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে গোটা বিভাগে ৮১৫ জন করোনা পজিটিভ রোগী সুস্থ হয়েছে। এছাড়া মৃত্যু হওয়া করোনা পজিটিভ ৬০ জনের মধ্যে বরিশাল নগরসহ জেলায় ২৩ জন, পটুয়াখালীতে ১৮ জন, ঝালকাঠিতে ৮ জন, পিরোজপুরে ৫ জন, ভোলায় ৪ জন ও বরগুনায় ২ জন রয়েছেন।