রোববার   ২৯ মার্চ ২০২০   চৈত্র ১৪ ১৪২৬   ০৪ শা'বান ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নেই : আইইডিসিআর পদ্মা সেতু‌তে বসলো ২৭তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো ৪ হাজার ৫০ মিটার করোনায় আক্রান্ত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন সব পোশাক কারখানা বন্ধের নির্দেশ পবিত্র শবে বরাত ৯ এপ্রিল স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জনসমাগম করবেন না: প্রধানমন্ত্রী অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না : প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী মুক্তি পেলেন খালেদা জিয়া সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী আজ থেকে একসাথে দু`জন রাস্তায় হাঁটতে পারবে না জাতির উদ্দেশে আজ ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী নিষেধাজ্ঞা অক্ষরে অক্ষরে পালন করুন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই খালেদা জিয়াকে মুক্তির সিদ্ধান্ত করোনা ছোঁয়াচে, এক মিটার দূরত্বে থাকার পরামর্শ টিসিবি-ভোক্তা অধিদফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল ২৬ মার্চ থেকে সারাদেশে ১০ দিন গণপরিবহন বন্ধ সারাদেশে যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ সকল বেসরকারি প্রতিষ্ঠানও বন্ধের নির্দেশ সরকারি অফিস-আদালত বন্ধ ঘোষণা
৬২৪

বরিশাল বিভাগের ২১-আসনে ৩৭ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ৩ ডিসেম্বর ২০১৮  

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বরিশাল বিভাগে ২১টি আসনে ৩৭ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়েছে।

রোববার সকাল থেকেই ১৮২ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শুরু হয়। যাচাই-বাছাই শেষে আগামী ৯ ডিসেম্বর মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে চুড়ান্ত প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হবে।

বরিশাল বিভাগের ২১ আসনে মনোনয়ন বাতিল হলো যাদের-

বরিশাল-১ : বরিশাল-১ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী বাদশা মিয়ার মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়েছে।

বরিশাল-২ : বরিশাল -২ আসনে জাতীয় পার্টির মনোনিত প্রার্থী চিত্র নায়ক মাসুদ পারভেজ সোহেল রানা, লীগের বিদ্রোহী প্রাথী রুবিনা আক্তার, ক্যাপটেন এম মোয়াজ্জেম হোসেন, ফায়জুল হক রাজুর মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়। এছাড়া জাসদের মনোনীত প্রার্থী আনিচুজ্জামান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহ আলম মিয়ার মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়।

বরিশাল-৩ : বরিশাল-৩ আসনে ঐক্য ন্যাপের মনোনীত প্রার্থী নুরুল ইসলামের মনোনয়ন বাতিল করা হয়।

বরিশাল-৬ : বরিশাল-৬ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ওসমান হোসাইনের মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়।

ঝালকাঠি-১ : ঝালকাঠি-১ আসনে মো. মনিরুজ্জামান, ফয়েজুল হক, মুহাম্মদ শাহজালাল শামীম, ইয়াসমিন আক্তার পপি, মো. দেলোয়ার হোসেন ও নজরুল ইসলাম। এরা সবাই স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন।

ঝালকাঠি-২ : ঝালকাঠি-২ আসনে গণফোরাম প্রার্থী জাহান শাহ কবিরের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন ও সাবেক আইন প্রতিমন্ত্রী ব্যারিষ্টার শাহজাহান ওমর বীর উত্তমের মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে।

পটুয়াখালী-১ : পটুয়াখালী-১ আসনে মনোনয়ন বাদ পড়া প্রার্থীরা হলেন- স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম মৃধা, জাকের পার্টির প্রার্থী আব্দুর রশিদ, এনপিপির প্রার্থী মো. সুমন সন্যামত এবং বাংলাদেশ মুসলিম লীগের প্রার্থী খবির উদ্দিন রেজা হাওলাদার। জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদারের মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। পটুয়াখালী-১ আসনে দলীয় প্রার্থী হয়েছিলেন তিনি।

পটুয়াখালী-২  : পটুয়াখালী-২ আসনে বাদ পড়া প্রার্থীরা হলেন- বিএনপির প্রার্থী শহিদুল ইসলাম তালুকদার, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. শফিকুল ইসলাম, স্বতন্ত্র প্রার্থী মিজানুর রহমান খান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু নাইম।

পটুয়াখালী-৩ : হলফনামায় স্বাক্ষর না থাকায় পটুয়াখালী-৩ আসনের বিএনপি মনোনীত প্রার্থী গোলাম মাওলা রনির মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন জেলা রিটার্নিং অফিসার। রোববার দুপুর ১২টায় পটুয়াখালী জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের সময় এ ঘোষণা দেয়া হয়।

বরগুনা-১ : যাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে তারা হলেন- বরগুনা-১ আসনের বিএনপির প্রার্থী মো. মতিউর রহমান তালুকদার,

বরগুনা-২ : বরগুনা-২ আসনের প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের প্রার্থী মো. সালাহ উদ্দিন ও এনপিপির প্রার্থী মো. মিজানুর রহমান।

ভোলা-১ : ভোলা-১ আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী গোলাম নবী আলমগীরের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।

ভোলা-২ : আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হুমায়ুন কবির সেলিম,

ভোলা-৪ : আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী এম এ মান্নানের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়।

পিরোজপুর-১ : পিরোজপুর-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মো. গোলাম হায়দার . মনোনয়নপত্রের সঙ্গে সমর্থকদের স্বাক্ষর সঠিক না থাকায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। অপরদিকে এ আসনে বিএনএফর (বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট) মনিমোহন বিশ্বাসের মনোনয়নপত্রও বাতিল করা হয়েছে।

পিরোজপুর-৩ : পিরোজপুর-৩ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ডা. এম নজরুল ইসলাম, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আবু তারেকের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। তাদের মনোনয়নপত্রে সমর্থকদের স্বাক্ষর সঠিক না থাকায় বাতিল করা হয়েছে। আর স্বতন্ত্র প্রার্থী সুধীর রঞ্জন বিশ্বাসের সমর্থকদের স্বাক্ষরের তালিকা না দেয়ায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর