বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৬ ১৪২৬   ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
ক্রিকেটের সঙ্গে টেনিসও এগিয়ে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী রিফাত হত্যা : চার্জ গঠন ২৮ নভেম্বর বরিশালে ৪৫ টাকা দরে টি‌সি‌বির পেঁয়াজ বি‌ক্রি, উপচেপড়া ভিড় র‌্যাব-৮ এর অভিযানে শীর্ষ সন্ত্রাসী গ্রেফতার কর্মবিরতি প্রত্যাহার, বরিশালে বাস চলাচল স্বাভাবিক ৭ ডিসেম্বর বিচারবিভাগীয় সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী বরিশাল বোর্ডে এসএসসিতে বৃত্তি পাচ্ছেন ১৪১৭ শিক্ষার্থী কবি সুফিয়া কামালের মৃত্যুবার্ষিকী আজ বরিশাল বোর্ডে এসএসসির ফরম পূরণে সময় বাড়লো জাতীয় অর্থনীতিতে নারীর অবদান সবচেয়ে বেশি: পলক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ট্রাক মালিকদের ফের বৈঠক আজ চক্রান্তকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে: ওবায়দুল কাদের দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে জয় দিয়ে বছর শেষ করল ব্রাজিল দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী লবণের দাম বাড়ালে জেল-জরিমানা : বাণিজ্যমন্ত্রী লবণ নিয়ে গুজবে কান দিবেন না: শিল্প মন্ত্রণালয় ২০২১ সালের মধ্যে ১০০০ উদ্যোক্তা তৈরিতে সহায়তা দেবে সরকার পদ্মাসেতুর প্রায় আড়াই কিলোমিটার দৃশ্যমান সেনা কল্যাণ সংস্থার চারটি স্থাপনা উদ্বোধন মেয়র সাদিক আবদুল্লাহর জন্মদিন আজ
১২

বরিশালে মিথ্যা সাক্ষী দেওয়ায় ইউপি সদস্য কারাগারে

প্রকাশিত: ৬ নভেম্বর ২০১৯  

 

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম রতনপুর গ্রামে মায়ের অবৈধ সম্পর্ক দেখে ফেলায় ছেলে রনিকে (১১) শ্বাসরোধ করে হত্যা মামলায় মিথ্যা সাক্ষ্য দেয়ার অভিযোগে ইউপি সদস্য হুমায়ুন কবির সিকদারকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 

গতকাল মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) বিকেলে বরিশালের জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালে রাষ্ট্রপক্ষের স্পেশাল পিপি লস্কর নুরুল হকের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিচারক কেএম শহীদ আহম্মেদ আগামী ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত তাকে নিরাপদ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন। হুমায়ুন ওই উপজেলার বিদ্যানন্দপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য এবং মৃত মোবারক আলী সিকদারের ছেলে।

স্পেশাল পিপি লস্কর নুরুল হক জানান, ২০১৪ সালের ২১ ফেব্রুয়ারী কাজীরহাট থানা এলাকার আব্দুল লকিতুল্লাহ দুয়ারীর স্ত্রী কণা বেগমের সাথে তার চাচাতো ভাই শাহিন নলীর অবৈধ শারীরিক সম্পর্ক দেখে ফেললে তারা কনার ছেলে রনিকে গলায় রশি পেঁচিয়ে হত্যা করে। পরে কনা তার ছেলে রনিকে গলায় সাপে কেটে মেরে ফেলেছে বলে প্রচার চালায়। এ ঘটনায় একই দিন কাজীরহাট থানায় নিহতের বাবা আব্দুল লকিতুল্লাহ তার স্ত্রী কণা, শাহিন নলী ও রুহুল আমিন নলীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। 
একই বছর ১৯ জুন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এসআই নজরুল ইসলাম মৃধা ওই ৩ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেন। মামলাটি বিচারের জন্য জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হয়। গতকাল মঙ্গলবার মামলার সাক্ষ্য গ্রহনকালে ইউপি সদস্য হুমায়ুন কবির সিকদার শপথ পাঠ করে মিথ্যা সাক্ষ্য দিলে বিষয়টি ট্রাইব্যুনালের দৃষ্টিতে আনেন স্পেশাল পিপি। একই সাথে তিনি ইউপি সদস্যকে হেফাজতে রাখার আবেদন করেন। 

ট্রাইব্যুনালের বিচারক তাৎক্ষনিক ইউপি সদস্য হুমায়ুনকে পরবর্তীতে সঠিক সাক্ষ্য প্রদানের ধার্য্য তারিখ ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত কারাগারের নিরাপদ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন। 

এই বিভাগের আরো খবর