সোমবার   ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১১ ১৪২৬   ২৯ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
পতাকার মর্যাদা ধরে রাখতে সেনা সদস্যদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান জুয়ার আসর থেকে আটক ২৬ দুই ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের সহযোগী র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার দৃশ্যমান পদ্মা সেতুর পৌনে চার কিলোমিটার সারা দেশে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত ইংরেজি উচ্চারণে বাংলা বলার সমালোচনা প্রধানমন্ত্রীর উন্নত দেশ গড়তে বেসরকারি সহযোগিতা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুজিববর্ষে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের ভণ্ডপীরসহ ৯ জনের কারাদণ্ড প্রধানমন্ত্রী সব সময় শিক্ষাকে গুরুত্ব দেন: পরিকল্পনামন্ত্রী মুজিব বর্ষে নতুন শিল্প কারখানা স্থাপন করা হবে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী আসন্ন সেচ মৌসুমে লোডশেডিংয়ের শঙ্কা নেই : বিদ্যুৎ বিভাগ একুশে পদক হাতে তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস শুক্রবার একুশে পদক মেধা ও মনন চর্চার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করবে : রাষ্ট্রপতি আজ একুশে পদক প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী এনামুল বাছিরের পদোন্নতির আবেদন হাইকোর্টে খারিজ জাপানের সঙ্গে জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী সমৃদ্ধ দেশ গড়তে সুস্থ যুব সমাজের বিকল্প নেই : প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ
১৭৫

বরিশালে চারলেন সড়কের সঙ্গে হচ্ছে বাইপাস

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৪ জানুয়ারি ২০২০  


বরিশাল নগরকে ঘিরে নতুন পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ)। শুধু নগর কেন্দ্রীক পরিকল্পনাই নয়, সড়কের দীর্ঘস্থায়িত্ব বজায় রাখতে এ পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।
পরিকল্পনা অনুসারে, নগরের নথুল্লাবাদ থেকে রুপাতলী পর্যন্ত চারলেন সড়ক নির্মাণ করা হবে। পাশাপাশি গড়িয়ারপাড়-কুদঘাটা-কালিজিরায় তৈরি করা হবে বাইপাস সড়ক। 
সড়ক ও জনপথ বিভাগ জানায়, বরিশাল বিভাগজুড়ে তৃতীয় বৃহৎ সমুদ্র বন্দর পায়রা, আর্ন্তুজাতিক মানের শিপ ইয়ার্ড, পর্যটন কেন্দ্র, তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রসহ শিল্প নগরী গড়ে তোলার কার্যক্রম চলমান রয়েছে। তার ওপর পদ্মা সেতু নির্মাণ হলে বরিশালেন বেসরকারি পর্যায়ে প্রচুর শিল্প-কারখানা গড়ে উঠবে। এ কারণে সরকার ভবিষ্যতের চিন্তা করে এ অঞ্চলের প্রত্যেকটি সড়ক মেরামত এবং প্রশস্তকরণের পরিকল্পনা করেছে। এ পরিকল্পনা অনুযায়ী ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছে সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগ।
জানা গেছে, দুটি কারণে বরিশাল নগরের মধ্য থেকে চারলেন এবং গড়িয়ার পাড় থেকে কালিজিরা পর্যন্ত বাইপাস সড়ক নির্মাণের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে চারলেন সড়ক ব্যবহার করা হবে আঞ্চলিক ও ক্ষুদ্র থেকে মাঝারি আকৃতির যানবাহনের জন্য। আর বাইপাস ব্যবহার করা হবে শিল্প কারখানার কাচামাল বহনকারী এবং ভারী যানবাহন চলাচলের জন্য। এতে করে সড়কের দীর্ঘস্থায়িত্ব যেমন বজায় থাকবে, তেমনি যানজটের কোনো সম্ভাবনা থাকবে না। 
প্রকৌশল বিভাগ বলছে, বরিশাল নগরের ভেতরে থাকা চারলেন সড়কটি নামে মাত্র চারলেন। এ সড়কটির জন্য বেশ কয়েকটি কালভার্ট এবং আমতলার মোড় থেকে রুপাতলী বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত সরু সড়ক প্রধান প্রতিবন্ধকতা। চলতি মাসের শেষের দিকে এ প্রতিবন্ধকতা দূর করতে আমতলা মোড় এলাকা প্রশস্ত করতে সমাজ কল্যাণ অধিদফতরের কাছে জমির চাহিদা প্রস্তাব করা হবে। পাশাপাশি ওই অংশের সড়কের নিজস্ব জমিও উদ্ধার করা হবে। একইসঙ্গে কালভার্টগুলোকে চারলেনের উপযুক্ত করার পরিকল্পনাও রয়েছে সওজের। 
এদিকে সড়ক ও জনপথ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, কাশিপুর থেকে রুপাতলী পর্যন্ত ৯৫৭টি অবৈধ স্থাপনা চিহ্নিত করা হয়েছে। একইসঙ্গে মূল সড়কের পাশে কতটুকু জমি রয়েছে সড়ক ও জনপথ বিভাগের তা নির্ধারণ করে অভিযানে নামারও পরিকল্পনা করেছে। এছাড়া ভুরঘাটা থেকে কাশিপুর এবং রুপাতলী থেকে লেবুখালী পর্যন্ত সড়কে অবৈধ স্থাপনা সনাক্তের কাজও এগিয়ে চলছে। 
জানা গেছে, চারলেন ব্যবহার উপযোগী করার পাশাপাশি জুন মাসের মাঝামাঝি সময়ে বাইপাস সড়ক নির্মাণে হাত দেবে সড়ক ও জনপথ বিভাগ। এ নিয়ে ইতোমধ্যে স্থানীয় সুধীজন ও সম্ভাব্য বিভিন্ন দফতরের সাথে বৈঠক করা হয়েছে।
বরিশাল সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মাসুদ খান জানান,এখন দুটি ভাগে কাজ শুরু হয়েছে। প্রথমত যেসব সড়ক রয়েছে তাতে আর্ন্তজাতিক নিয়ম মেনে সংস্কার করার। এ কাজের অংশ হিসেবে সাত থেকে ১০ দিনের মধ্যে ভুরঘাটা থেকে লেবুখালী মহাসড়কের মোট ১০টি স্পিড ব্রেকার উচ্ছেদ করা হবে। কারণ মহাসড়কে স্পিড ব্রেকার রাখার কোনো নিয়ম নেই। এর পরপরই হাত দেওয়া হবে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের কাজে।
অপরদিকে চারলেন ও বাইপাস নির্মাণের জন্য সম্ভাব্য সবকিছু করা হয়েছে। বাইপাসের জন্য ডিপিপি দাখিল করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।
উল্লেখ্য, কাশিপুর থেকে নথুল্লাবাদ হয়ে সিএন্ডবি রোড থেকে রুপাতলী পর্যন্ত সড়কটি চারলেন মহাসড়কে উন্নীত করার পরিকল্পনা নেওয়া হলে এ সড়কের দু’পাশের বাসিন্দারা প্রতিবাদ জানায়। এমনকি সিএন্ডবি রোডকে চারলেনে উন্নীত না করার জন্য এবং নিজেদের ভবন ও জমি রক্ষার জন্য বরিশাল শহর বাইপাস সড়ক বাস্তবায়ন কমিটিও গঠন করে কর্মসূচিও পালন করে স্থানীয়রা। অপরদিকে শহরের মধ্য থেকে চারলেনের বিরোধিতা করে বরিশাল নগর উন্নয়ন অধিদপ্তর। এতে পুরো বিষয়টি পুনরায় বিবেচনায় নেয় সড়ক ও জনপথ বিভাগ। 

এই বিভাগের আরো খবর