• বৃহস্পতিবার   ২২ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৬ ১৪২৭

  • || ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
বিপদে নিজেদের একা ভাববেন না: আইনমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৪, শনাক্ত ১৫৪৫ এনু-রুপনের জামিন আবেদনের রুল খারিজ মাধ্যমিকে বার্ষিক পরীক্ষা বাতিল রায়হান হত্যা: ৫ দিনের রিমান্ডে কনস্টেবল টিটু ১২ বছরের ব্যর্থতার জন্য বিএনপির নেতৃত্বের পদত্যাগ করা উচিত বিদেশে পালালেও এসআই আকবরকে ফিরিয়ে আনা হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী পরিপত্র জারি : ৭ মার্চকে ঐতিহাসিক দিবস ঘোষণা করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২১, শনাক্ত ১৬৩৭ জনগণের ভাষা বুঝে না বলেই বিএনপি ব্যর্থ: কাদের ২৫ টাকা কেজিতে আলু বিক্রি করবে টিসিবি: বাণিজ্যমন্ত্রী পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী ৩০ অক্টোবর সরকারের আশ্বাসে ইন্টারনেট-ডিশ সংযোগ ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত স্থগিত ইন্টারনেট-ক্যাবল টিভি বন্ধের সিদ্ধান্ত স্থগিত করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৩, শনাক্ত ১২০৯ কৃষি গবেষণা বিনিময়ের উপর জোর দিতে হবে: কৃষিমন্ত্রী ৬০ মিশনে দূতাবাস অ্যাপ চালু করা হয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ১৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৬০০ টাঙ্গাইলে গণধর্ষণ মামলায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড ভূমিহীনদের ২ শতাংশ জমি দেয়া হবে: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

বরিশালে অসহায় বৃদ্ধা নিলুফার পাশে জেলা প্রশাসক

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২ জুলাই ২০২০  

বাঁশের কয়েকটি খুঁটির ওপর দাঁড় করানো ছোট্ট একটি ঝুপড়ি ঘর। পুরনো ঢেউটিন আর পলিথিন দিয়ে মোড়ানো নড়বড়ে এ ঘরে মানবেতর দিন কাটছে মানসিক প্রতিবন্ধী বৃদ্ধা নিলুফা বেগমের। প্রায় ৬০ বছর বয়সী এ বৃদ্ধা স্বামী-সন্তানসহ সব হারিয়ে বর্তমানে মানবেতর জীবনযাপন করছেন।

বিষয়টি জানতে পেরে মাত্র ১২ ঘণ্টার মধ্যে জেলা প্রশাসক এস, এম, অজিয়র রহমান তার প্রতিনিধি হিসেবে বরিশাল সদরের সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মেহেদী হাসানকে নিলুফার বাড়িতে পাঠান।

বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) সকালে মো. মেহেদী হাসান নিলুফার বাড়িতে গিয়ে তাকে বিভিন্ন ফলমূল, চাল, ডাল, তেল, লবণ, আলু ইত্যাদি ত্রাণসামগ্রী এবং নগদ ১০ হাজার টাকার আর্থিক সহায়তা দেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন চন্দ্রমোহন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম আবদুল আজিজ, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের প্রোবেশন অফিসার সাজ্জাদ পারভেজ, বরিশাল সদরের উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা শ্যামল সেন গুপ্ত এবং ইউপি সদস্য মামুন।

জানা গেছে, প্রায় ১৫ বছর আগে নিলুফার স্বামী আজাহার আলী মারা যান। হতদরিদ্র স্বামী নিলুফার জন্য শুধু বসত ভিটেটুকু ছাড়া অন্য কোনো সহায়-সম্পত্তি রেখে যাননি। বৃদ্ধ নিলুফা এখন ভিক্ষা ছাড়া আর কোনো কাজই করতে পারছেন না। তার দুই মেয়ে ঢাকায় বসবাস করেন এবং তারাও খুব কষ্টে জীবনযাপন করছেন বিধায় মায়ের কোনো খোঁজ খবর নিতে পারছেন না। বিষয়টি জানতে পেরে জেলা প্রশাসক দ্রুত ব্যবস্থা নেন। পাশাপাশি তাকে একটি ঘূর্ণিঝড় সহনশীল ঘর নির্মাণের ব্যবস্থা করার আশ্বাস দেন।