সোমবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১৪ ১৪২৬   ০১ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
বরিশাল নগরীতে ৫৫০ পিস ইয়াবাসহ বিক্রেতা গ্রেপ্তার বরিশাল পুলিশের চার থানায় যুক্ত হল পরিদর্শক অপারেশন পদ ৬৬ বলে সেঞ্চুরি করলেন বরিশালের ইমান বরিশালে ইয়াবা বিক্রেতার ১০ বছরের কারাদণ্ড ক্যালিফোর্নিয়ায় হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় বাস্কেটবল তারকা নিহত হবিগঞ্জে বিশ্বের বড় কাঠবিড়াল সমালোচনা না করে দেশের সমস্যা সমাধানের আহ্বান তাজুলের বিদেশের মসজিদে আর অর্থ দেবে না সৌদি গুরুত্বপূর্ণ নথি ও সামগ্রী নিয়ে আর্কাইভ হচ্ছে এত সুন্দরভাবে নির্বাচন হচ্ছে কীভাবে: ইসি সচিব জমাদিউস সানি শুরু আজ ভাঙা হৃদয় জোড়া লাগালেন ব্র্যাড পিট ও জেনিফার অ্যানিস্টন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে মাদক ও জঙ্গিবাদ বিরোধী সচেতনতামূলক সেমিনার বাগদাদে মার্কিন দূতাবাসের কাছে ৫ ক্ষেপণাস্ত্র হামলা আজ ঐতিহাসিক সলঙ্গা বিদ্রোহ দিবস বাংলাদেশ-ভারতের সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় করার প্রত্যয় ধর্ষণ থেকে রক্ষায় জাবি শিক্ষার্থীর অ্যাপ তৈরি ইশরাকের অভিযোগ অমূলক : তাপস বিশ্বের প্রাণঘাতী ৭টি ভাইরাস ইসলামের মুদ্রাব্যবস্থা স্বর্ণ-রৌপ্যনির্ভর
৮৯৮

বদলে যাচ্ছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২২ জুন ২০১৯  

শিক্ষার মান বাড়াতে শিক্ষক নিয়োগ, কলেজ পরিচালনা কমিটি গঠন ও মেয়াদ সংশোধনসহ বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়টির একাডেমিক কাউন্সিল সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এ বিষয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক হারুন অর রশিদ বলেন, আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন কলেজগুলোতে শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে। শিক্ষার মান বাড়াতে শিক্ষক নিয়োগে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

হারুন অর রশিদ বলেন, ভালো শিক্ষকদেরকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগ দিতে চাই। এজন্য শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়াটিতে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা নেয়ার বিষয়টি যোগ করা হয়েছে। এছাড়াও শিক্ষার পরিবেশ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কলেজের পরিচালনা কমিটি গঠন ও মেয়াদ সংশোধন করা হয়েছে।

নতুন নিয়মে পরিচালনা কমিটিতে একজন নারী সদস্য নিয়োগের বাধ্যবাধকতা আরোপ করা হয়েছে বলে জানান তিনি। এছাড়া কমিটির মেয়াদ কমিয়ে চার বছরের জায়গায় দুই বছর করা হয়েছে বলেও জানান উপাচার্য হারুন।

এদিকে, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন কলেজগুলোতে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষে ভর্তি হতে এসএসসি, এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ-২ পেতে হত। নতুন সিদ্ধান্তে ন্যূনতম এ যোগ্যতাও বাড়ানো হয়েছে। 

মানবিক শাখায় ভর্তির জন্য এসএসসি, এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ-২.৫, বিজ্ঞান ও ব্যবসা শিক্ষায় ভর্তির জন্য এসএসসিতে জিপিএ-৩ এবং এইচএসসিতে নূন্যতম জিপিএ-২.৫ নির্ধারণ করা হয়েছে।

ভর্তির ন্যূনতম যোগ্যতা বাড়লেও কলেজগুলোতে স্নাতক প্রথম বর্ষে ভর্তির জন্য এবারো কোনো পরীক্ষার প্রয়োজন পড়বে না। ফলাফল ভিত্তিক পুরনো নিয়মেই হওয়া যাবে ভর্তি। 

এ ব্যাপারে উপাচার্য হারুন অর রশিদ বলেন, ফলাফলের ভিত্তিতে ভর্তির নিয়মটি এখনি বদল করার সময় আসেনি। সময় এলে অবশ্যই আমরা ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তি শুরু করব।

এই বিভাগের আরো খবর