বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৬ ১৪২৬   ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
সারাদেশের পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন লিখতে হবে স্পষ্ট অক্ষরে: হাইকোর্ট আজ সশস্ত্র বাহিনী দিবস শাহজালালে পৌঁছেছে পাকিস্তানের ৮২ টন পেঁয়াজ ক্রিকেটের সঙ্গে টেনিসও এগিয়ে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী রিফাত হত্যা : চার্জ গঠন ২৮ নভেম্বর বরিশালে ৪৫ টাকা দরে টি‌সি‌বির পেঁয়াজ বি‌ক্রি, উপচেপড়া ভিড় র‌্যাব-৮ এর অভিযানে শীর্ষ সন্ত্রাসী গ্রেফতার কর্মবিরতি প্রত্যাহার, বরিশালে বাস চলাচল স্বাভাবিক ৭ ডিসেম্বর বিচারবিভাগীয় সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী বরিশাল বোর্ডে এসএসসিতে বৃত্তি পাচ্ছেন ১৪১৭ শিক্ষার্থী কবি সুফিয়া কামালের মৃত্যুবার্ষিকী আজ বরিশাল বোর্ডে এসএসসির ফরম পূরণে সময় বাড়লো জাতীয় অর্থনীতিতে নারীর অবদান সবচেয়ে বেশি: পলক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ট্রাক মালিকদের ফের বৈঠক আজ চক্রান্তকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে: ওবায়দুল কাদের দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে জয় দিয়ে বছর শেষ করল ব্রাজিল দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী লবণের দাম বাড়ালে জেল-জরিমানা : বাণিজ্যমন্ত্রী লবণ নিয়ে গুজবে কান দিবেন না: শিল্প মন্ত্রণালয়
২৮

ফ্রান্সকে স্যালুট দিয়ে শীর্ষে থাকল তুরস্ক

প্রকাশিত: ১৫ অক্টোবর ২০১৯  

ইউরো বাছাইয়ের গ্রুপ 'এইচ' এর শীর্ষ দুই দলের লড়াই। ম্যাচ নিয়ে তাই এমনিতেই আগ্রহের কমতি ছিল না। এর ওপর তুরস্ক ফুটবলাররা শেষ ম্যাচে আলবেনিয়ার বিপক্ষে জয় নিশ্চিত করে আর্মি স্যালুট দিয়ে উদযাপন করে বিতর্ক উস্কে দিয়েছিল। সিরিয়ার চলমান অচলাবস্থা নিয়ে ফ্রান্স ও তুরস্কের রাজনীতির আঁচড় পড়েছিল তাই ম্যাচের ওপর। ফ্রান্সের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা ম্যাচটি বাতিল করারও আহ্বান জানিয়েছিলেন। এসবের ভেতরই স্টাড ডি ফ্রান্সে খেলা গড়িয়েছে। বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের নিজেদের মাঠে জিততে দেয়নি তুরস্ক। ১-১ গোলে ড্র করে গ্রুপের শীর্ষেই থেকে গেছে তারা।

ফ্রান্সকে এগিয়ে দিয়েছিলেন অলিভিয়ের জিরু। আইসল্যান্ডের পর ফ্রান্সের বিপক্ষেও তার একমাত্র গোলে জয় দেখছিল ফ্রান্স। কিন্তু ৮২ মিনিটে কান আয়হানের গোলে সমতায় ফেরে তুরস্ক। পরে পুরো তুরস্ক দল ও মাঠে উপস্থিত হাজার চারেক তুরস্ক সমর্থক সমতাসূচক গোল উদযাপন করেছেন আর্মি স্যালুটে। বিতর্ক নিশ্চিতভাবেই আরেদ দফা বেড়েছে তাই। তুরস্ক এর আগে দাবি করেছিল এই স্যালুট সিরিয়া সীমান্তে চলা যুদ্ধে তাদের সেনাবাহিনীর শহীদদের উদ্দেশ্যে। 

দিদিয়ের দেশম এদিন একাদশে রাখেননি অলিভিয়ের জিরুকে। তার অভাব বুঝতেও সময় লাগছিল ফ্রান্সের। ঘরের মাঠে প্রথমার্ধে দারুণ কিছু আক্রমণ করেও গোল পায়নি দেশমের দল। জিরুর জায়গায় নেমেছিলেন বিন ইয়েদের। তবে অ্যান্টোয়ান গ্রিযমান সবচেয়ে বেশি বল পাচ্ছিলেন। ফ্রান্সের সেরা সুযোগ ঠেকিয়ে দেন তুরস্ক গোলরক্ষক মের্ত গুনকের। ডাবল সেভে গ্রিযমান-সিসোকোকে পরাস্ত করেন তিনি।

দ্বিতীয়ার্ধে তুরস্ক অধিনায়ক বুরক ইলমাজও দারুণ এক সুযোগ হাতছাড়া করেন। তিনি অবশ্য ফ্রান্সের গোলরক্ষক স্টিভেন মাঁদাদা পর্যন্ত যেতে পারেননি। বক্সের মাথায় ফাঁকায় থেকেও বল মেরেছিলেন গোলের অনেক ওপর দিয়ে। এরপর ঝিমিয়ে আসা দ্বিতীয়ার্ধে ৭২ মিনিটে জিরু মাঠে নেমেই বদলে দেন খেলার গতি।

মাঠে নামার চার মিনিট পর গ্রিযমানের কর্নার থেকে দারুণ এক হেডে গোল করে ফ্রান্সকে এগিয়ে নিয়েছিলেন এই স্ট্রাইকার। কিন্তু আরেক বদলি কান আয়হান পরে আলো কেড়ে নিয়ে অন্ধকার ডেকে এনেছেন মাঠে। হাকান চালহাগলুর ফ্রি কিক গিয়ে পড়েছিল দূরের পোস্টের কাছাকাছি। সেখানে ছিলেন আয়হান। তিনি কাছের পোস্টে বল মেরেই মাঁদাদাকে চমকে দিয়েছেন, গোল পেয়েছে তুরস্ক, হার এড়িয়ে ধরে রেখেছে শীর্ষস্থানও।

বাছাইপর্বে এই গ্রুপে ম্যাচ বাকি আর দুইটি করে। শীর্ষে থাকা তুরস্ক এগিয়ে আছে হেড টু হেডে। ফ্রান্সের পয়েন্টও তুরস্কের সমান ১৯। গ্রুপের শীর্ষ দুই দল আগামী বছর ইউরোর জন্য বাছাই করবে। এই দুই দলই ফেবারিট তবে, আইসল্যান্ডও টিকিয়ে রেখেছে নিজেদের সম্ভাবনা। অ্যান্ডোরাকে হারিয়ে ১৫ পয়েন্ট তাদের অবস্থান এই দুইদলের পরে।

এই বিভাগের আরো খবর