সোমবার   ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১১ ১৪২৬   ২৯ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
পতাকার মর্যাদা ধরে রাখতে সেনা সদস্যদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান জুয়ার আসর থেকে আটক ২৬ দুই ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের সহযোগী র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার দৃশ্যমান পদ্মা সেতুর পৌনে চার কিলোমিটার সারা দেশে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত ইংরেজি উচ্চারণে বাংলা বলার সমালোচনা প্রধানমন্ত্রীর উন্নত দেশ গড়তে বেসরকারি সহযোগিতা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুজিববর্ষে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের ভণ্ডপীরসহ ৯ জনের কারাদণ্ড প্রধানমন্ত্রী সব সময় শিক্ষাকে গুরুত্ব দেন: পরিকল্পনামন্ত্রী মুজিব বর্ষে নতুন শিল্প কারখানা স্থাপন করা হবে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী আসন্ন সেচ মৌসুমে লোডশেডিংয়ের শঙ্কা নেই : বিদ্যুৎ বিভাগ একুশে পদক হাতে তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস শুক্রবার একুশে পদক মেধা ও মনন চর্চার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করবে : রাষ্ট্রপতি আজ একুশে পদক প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী এনামুল বাছিরের পদোন্নতির আবেদন হাইকোর্টে খারিজ জাপানের সঙ্গে জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী সমৃদ্ধ দেশ গড়তে সুস্থ যুব সমাজের বিকল্প নেই : প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ
২৪

ফের ট্রাম্পের বিরুদ্ধে রাস্তায় যুক্তরাষ্ট্রের নারীরা

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৯ জানুয়ারি ২০২০  

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে চতুর্থবারের মতো আন্দোলনে নেমেছেন যুক্তরাষ্ট্রের নারীরা। এর আগে ২০১৭ সালে প্রথম ট্রাম্পবিরোধী আন্দোলন শুরু হয়।

শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটনে ‘উইমেন মার্চ বা নারী পদযাত্রা ২০২০’ এ অংশ নিয়েছেন দেশটির কয়েক হাজার নারী। একইদিনে দেশটির ১৮০ টিরও বেশি শহরে আন্দোলন কর্মসূচী নির্ধারিত ছিল। নারীদের সঙ্গে আন্দোলনে যোগ দিয়েছিলেন পুরুষরাও। 

দেশের জলবায়ু পরিবর্তন, বেতন বৈষম্য, মাতৃত্বকালীন অধিকার, অভিবাসন ইত্যাদির মতো বিষয়গুলোর ওপর মনোনিবেশ করে দেশব্যাপী এই পদযাত্রা করে নারীরা। আন্দোলনের আরেকটি লক্ষ্য ছিল নারীদের রাজনৈতিক শক্তি বৃদ্ধি করা। তবে সেখানে আগের তুলনায় নারীদের সংখ্যা লক্ষণীয়ভাবে কম ছিল বলে জানা গেছে।

ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেয়ার একদিন পরেই যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ জানান। প্রায় এক লাখ মানুষের সেই মিছিলে ট্রাম্পকে প্রত্যাখান করার কথা বলা হয়।

 

 

ট্রাম্পের নারীবিদ্বেষী মন্তব্য, যৌন নিপীড়নমূলক ভাষার ব্যবহার ও নারীদের অবহেলিত করে দেখার প্রবণতার বিরোধিতা করছেন প্রতিবাদী নারীরা। ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সরাসরি ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে বলেও দাবি করেন তারা। এর আগে অন্য কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে এমন কোনো অভিযোগ ছিল না বলে জানান তারা। এছাড়া তারা আরো বলেন, ট্রাম্প সরকার ব্যবস্থায় সবচেয়ে অনিরাপদ জীবনযাপন করছেন নারীরা।

দেশটির ম্যানহাটন, ফোলি স্কয়ার এবং কলম্বাস সার্কেলের পৃথক পদযাত্রায় শতাধিক মানুষ একত্রিত হয়। ফোলি স্কয়ারের মানুষের উদ্দেশ্যে ডোনা হিলটন নামক এক আন্দোলন কর্মী বলেন, আজ আমরা আমাদের উদ্যমে জেগে উঠবো। পৃথিবীতে প্রয়োজনীয় পরিবর্তন আনবো আমরা।

 

 

উইমেন মার্চ পরিচালনা পরিষদের এক সদস্য বলেন, এই দেশের নারীরা ততদিন ক্ষমতায় আসতে পারবে না যতদিন ট্রাম্প সরকার ক্ষমতায় থাকবে। কারণ এই সরকারব্যবস্থা মোটেই নারীবান্ধব নয়।

এই মার্চে অংশ নেয়ার পর রাসেল রায়ান নামক একজন টুইটার বার্তায় বলেন, ‘ট্রাম্প সরকার এই দেশের যোগ্য নয়। তার শাসন প্রতিহত করার লক্ষ্যেই দীর্ঘ চার বছর ধরে আন্দোলন করছি আমরা। 

দেশটির নারীদের সমতার দাবি জানিয়ে এই পদযাত্রায় বলা হয় , নারীদের অধিকার নিশ্চিত করতে ব্যর্থ ট্রাম্প। ভবিষ্যতে নারীরা যেন কোনো ধরণের বৈষম্যের শিকার না হয় তাই এই আন্দোলন দেশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। 

এই বিভাগের আরো খবর