রোববার   ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৩০ ১৪২৬   ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
হঠাৎ পড়ে গেলেন মোদী সিটি ভোটে চূড়ান্ত প্রস্তুতি ইসির অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে আওয়ামী লীগ এখন শক্তিশালী : ভূমিমন্ত্রী মেজাজ হারিয়ে দুই ঘণ্টায় ১২৩ টুইট করে ট্রাম্পের নতুন রেকর্ড! বিজয় দিবসে আসছে সাবিনা ইয়াসমিনের গান নারীর ক্ষমতায়নে বিস্ময়কর রেকর্ড হাত থেকে কোরআন পড়ে গেলে করণীয় সানিয়া মির্জার বোনের বিয়েতে বসেছিল চাঁদের হাট! বিএনপির ঘাড়ে ভর করেছে বুদ্ধিজীবী হত্যাকারীদের প্রেতাত্মা ‘বোরকা পরে বাংলাদেশ থেকে এসেছি’ বিজেপি এমপির টুইটে ভারতে তোলপাড় বন্দে আলী মিয়ার জন্ম ‘২ ঘণ্টার মধ্যে উড়ে যাবে সালমান খানের গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্ট!’ গরুর খামারে কম্বল দান করলেই মিলবে বন্দুকের লাইসেন্স! আজ প্রকাশ হবে রাজাকারদের তালিকা সোশ্যাল মিডিয়া বিশেষজ্ঞ খুঁজছেন ব্রিটেনের রানি শামীমের ৩৬৫ কোটি টাকা, খালেদের ৩৪, সম্রাটের ‘তেমন নেই’ মাকাসিদুশ শরিয়া তত্ত্বের প্রয়োগ ও অপপ্রয়োগ লড়েছেন মোসাদ্দেক, জিতেছে ঢাকা প্রজন্ম থেকে প্রজন্মকে সচেতন থাকতে হবে: প্রধানমন্ত্রী মোশতাক, জিয়ার মতো মীরজাফররা আর যেন ক্ষমতায় না আসে-প্রধানমন্ত্রী
৪৭

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’

প্রস্তুত বরিশাল বিভাগ : আজও চলছে দফায় দফায় সভা

প্রকাশিত: ৯ নভেম্বর ২০১৯  

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এর কারণে বরিশাল ১, ৩, ৫, ৭ পেরিয়ে সর্বশেষ ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় আসায় এখন ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন এ বিভাগের ৬ জেলা প্রশাসন।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এর তাণ্ডব থেকে উপকূলের বাসিন্দাদের রক্ষায় শুক্রবার থেকে শুরু করে আজ শনিবার দফায় দফায় সভা করে চলেছেন তারা।

পৃথক সভা সূত্রে জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় প্রস্তুত রাখা হয়েছে ২ হাজার ৯৪টি সাইক্লোন শেল্টার। এছাড়া প্রস্তুত রয়েছে একাধিক মেডিকেল টিম ও খোলা হয়েছে জরুরী কন্ট্রোল রুম। পাশাপাশি ৪০ হাজারেরও বেশি স্বেচ্ছাসেবক ছাড়াও ফায়ার সার্ভিস, জেলা পুলিশ, নৌ-পুলিশ ও কোস্টগার্ড এবং প্রয়োজনে সেনা সদস্যদের এরইমধ্যে বিভিন্ন কাজে নিয়োজিত রাখা হয়েছে। ৬ জেলা প্রশাসকই বিষয়টিনিশ্চিত করেছেন।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এর প্রভাবে শুক্রবারের মতো শনিবারও বরিশাল বিভাগজুড়ে বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করছে। বন্ধ রয়েছে যাত্রীবাহী সব ধরনের লঞ্চ চলাচল।

বরিশালের আবহাওয়া অফিসের জানিয়েছে, সর্বশেষ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী শনিবার সকাল ৬টায় পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৩৭৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। যে কারণে এ বন্দরকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি বন্দর সংলগ্ন উপকূলীয় জেলা পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি ও বরগুনা এবং তাদের অদূরবর্তী চর ও দ্বীপগুলোতে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।

বরিশালের জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান জানিয়েছেন, ঘুর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় বরিশাল জেলায় ২৩২টি সাইক্লোন শেল্টার কেন্দ্র প্রস্তুত রয়েছে। এছাড়া প্রয়োজনে বিভিন্ন বিদ্যালয় ভবন নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য ব্যবহার করা হবে। ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি), রেডক্রিসেন্টসহ বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের স্বেচ্ছাসেবকরা প্রস্তুত রয়েছেন। পাশাপাশি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী, ফায়ার সার্ভিস ও রোভার স্কাউটের সদস্যরাও যে কোনো ধরনের সহায়তা করবে। বরিশাল জেলা প্রশাসনের খোলা কন্ট্রোল রুমের নম্বর ০১৭৪১ ১৯৬৯৩৯ ও ০৪৩ ১৬৩৮৬৩।

বরগুনা জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ জানিয়েছেন, ঘুর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় বরগুনায় ৫০৯টি সাইক্লোন শেল্টার, ৪২টি মেডিক্যাল টিম, ৮টি জরুরি কন্ট্রোলরুমসহ সিপিপি, রেডক্রিসেন্ট ও বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ১০ হাজার স্বেচ্ছাসেবক প্রস্তুত রয়েছে।

ভোলা জেলা প্রশাসক মাসুদ আলম ছিদ্দিক জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় ভোলায় সর্বোচ্চ প্রস্তুতি হাতে নেয়া হয়েছে। জেলার ৬৪৮টি আশ্রয়কেন্দ্র খুলে দেওয়া হয়েছে। গঠন করা হয়েছে ৯২টি মেডিক্যাল টিম। এ ছাড়াও জেলা সদরসহ সাত উপজেলায় ৮টি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। মানুষকে সতর্ক করতে উপকূলে চলছে প্রচারণা। প্রস্তুত রাখা হয়েছে ১৩ হাজার স্বেচ্ছাসেবী। এছাড়াও মজুদ রাখা হয়েছে ত্রাণ।

ঝালকাঠী জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী জানান, ঝালকাঠীতে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় ৭৪টি সাইক্লোন শেল্টার প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়া জরুরি প্রয়োজনে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ভবনগুলো ব্যবহার করা হবে। এছাড়া চাল-শুকনো খাবারসহ পর্যাপ্ত ত্রাণ সামগ্রী রয়েছে। মেডিক্যাল টিম, উদ্ধারকারী দল প্রস্তুত রয়েছে। জেলার বিভিন্ন হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে জরুরি সেবাদানের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। জরুরি প্রয়োজনে ৫টি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। জেলাজুড়ে সতর্কতামূলক প্রচার-প্রচারণা চালানো হয়েছে।

পিরোজপুর জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় ২২৮টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত করা হয়েছে। জেলায় মোট ৫১টি মেডিক্যাল টিম প্রস্তুত রয়েছে। এছাড়া জেলা হাসপাতাল ও প্রতিটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি টিমের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রতিটি উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশকে সব ধরনের উদ্ধার কাজের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়া ২শ মেট্রিক টন চাল ও শুকনো খাবারের ব্যবস্থা থাকছে।

পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চৌধুরী জানিয়েছেন, প্রবল ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় পটুয়াখালীতে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। ৪০৩টি সাইক্লোন শেল্টার প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়া সার্বিক বিষয় মনিটরিং করতে ডিসি কার্যালয়ে একটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। কন্ট্রোল রুমের ফোন নম্বর- ০৪৪১৬২৩৯৪ এবং মোবাইল নম্বর- ০১৩১৭৩৬৫১১৩। দুর্যোগে মানবিক সহায়তার জন্য ১০০ মেট্রিক টন চাল, ২ লাখ ৭৫ হাজার টাকা, ১৬৬ বান্ডিল টিন এবং ৩ হাজার ৫০০টি কম্বল মজুদ রাখা হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর