• রোববার   ১৬ মে ২০২১ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১ ১৪২৮

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪২

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
২৪ ঘণ্টা করোনায় আরও ৪০ মৃত্যু, আক্রান্ত ১১৪০ আল-আকসা মসজিদে হামলায় প্রধানমন্ত্রীর নিন্দা খালেদা জিয়ার চিকিৎসার ব্যাপারে সরকার আন্তরিক: হানিফ লাইলাতুল কদর এক মহিমান্বিত রজনী: প্রধানমন্ত্রী ২৪ ঘণ্টায় করোনায় দেশে ৪৫ মৃত্যু খালেদা জিয়াকে বিদেশে নেয়ার প্রয়োজন নেই : হানিফ দিনবদলের অভিযাত্রায় অদম্য গতিতে দেশ এগিয়ে চলছে: সেতুমন্ত্রী তাণ্ডবকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনলাইনে পরীক্ষা নিতে পারবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আজই ফিরছেন সাকিব-মুস্তাফিজ যে যেখানে আছেন সেখানেই ঈদ উদযাপন করুন: প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার আবেদন পেয়েছি, দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে: আইনমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ২০ মিলিয়ন টিকা চেয়েছে বাংলাদেশ: আব্দুল মোমেন গ্রামে বাড়ি নির্মাণে ইউনিয়ন পরিষদের অনুমতি লাগবে: তাজুল করোনা প্রাণ নিল আরও ৫০ জনের, নতুন শনাক্ত ১৭৪২ সেরামের টিকা না পেলে টাকা ফেরত চাওয়া হবে: অর্থমন্ত্রী ধান-চাল ক্রয়ের জন্য অত্যন্ত যৌক্তিক দাম নির্ধারণ: কৃষিমন্ত্রী শপিংমল খোলা রাত ৮টা পর্যন্ত ১২ মে’র আগেই আসবে চীনের টিকা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডবের ঘটনায় আরো ১০ জন গ্রেফতার

পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে বিশাল গ্রহাণু, বিপদের আশঙ্কায় বিজ্ঞানীরা

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১১ এপ্রিল ২০২১  

মহাকাশের গভীর থেকে গোলার মতো ছুটে আসে পাথর বা ধাতুর তৈরি গ্রহাণু। সেগুলির মধ্যে কয়েকটির গতিপথ এমন যে, তা পৃথিবীর জীব-জগতের জন্য বিপজ্জনক হতে পারে। প্রায় ১০ কিলোমিটার ব্যাসের এমনই একটি গ্রহাণু বহুকাল আগে আমাদের গ্রহে তাণ্ডব সৃষ্টি করেছিল। সেটির আঘাতে ডাইনোসার প্রজাতি লুপ্ত হয়ে যায়।

সম্প্রতি নাসা জানিয়েছে, পৃথিবীর কক্ষপথের কাছাকাছি আরও একটি গ্রহাণু আসতে চলেছে। অচিরেই পৃথিবীর গা-ঘেঁষে ছুটে যাবে ফুটবল মাঠের আকারের এই গ্রহাণু! খবর জি নিউজের।

মহাশূন্যে ভেসে বেড়াচ্ছে পৃথিবী। মহাশূন্যেই ভেসে বেড়াচ্ছে আরও গ্রহ, উপগ্রহ, গ্রহাণু। ফলে, কখন কোনটা আমাদের গ্রহের কাছাকাছি এসে পড়ে তা নিয়ে বিজ্ঞানীদের উদ্বেগ খুব স্বাভাবিক। নাসা তাই নিরন্তর গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে গ্রহাণুদের গতিবিধি নিয়ে।

সেই পর্যবেক্ষণেরই ফলস্বরূপ সম্প্রতি নাসা জানিয়েছে, পৃথিবীর কক্ষপথের কাছাকাছি আরও একটি গ্রহাণু ধেয়ে আসতে চলেছে। গ্রহাণুটির নাম এএফ৮। জানা গেছে, এর আয়তন একটা ফুটবল মাঠের সমান। এর ব্যাস ২৬০ থেকে ৫৮০ মিটারের মতো।

গ্রহাণুটি প্রতি সেকেন্ডে ৯ কিলোমিটার বেগে মহাশূন্যে ছুটছে। পৃথিবীর কক্ষপথের ৩ দশমিক ৪ মিলিয়ন কিলোমিটার ঘেঁষে এটি অবস্থান করবে। নাসার বিজ্ঞানীদের দাবি, এর থেকে বিপদের আশঙ্কা থাকতেই পারে!

গত ২৫ ডিসেম্বর নাসার বিজ্ঞানীরা প্রথম এই গ্রহাণুটির অস্তিত্ব সম্পর্কে অবহিত হয়েছিলেন। তার পর থেকে গ্রহাণুটি ঘিরে এখন পর্যন্ত মোট ১৫৭টি পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে। তার ভিত্তিতেই নিশ্চিত হওয়া গেছে, ৪ মে গ্রহাণুটি পৃথিবীর কক্ষপথে ঢুকে পড়বে। যদিও তার পর ঠিক কী হবে, তা নিয়ে কোনো কিছু নিশ্চিত করে বলতে পারেননি বিজ্ঞানীরা।