বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬   ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সশস্ত্র বাহিনীকে গড়ে তোলা হবে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে সশস্ত্র বাহিনীকে কাজ করার আহ্বান আজ বরিশালে জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে যুদ্ধ জাহাজ সড়ক পরিবহন আইনের অসঙ্গতি দূর করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ‘বিএনপি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুজব সৃষ্টি করছে’- কাদের অনার্স ২য় বর্ষের ২৫ নভেম্বরের পরীক্ষা স্থগিত কোন অপপ্রচারে কান না দিতে জনগণের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান ‘গোলাপি’ যাত্রা রাঙ্গাতে কাল মাঠে নামছে বাংলাদেশ সারাবিশ্বে বাংলাদেশ এখন সম্মানের দেশ: প্রধানমন্ত্রী আগৈলঝাড়ায় প্রতিবন্ধি শিশু ধর্ষণ, এক ঘন্টার মধ্যে ধর্ষক গ্রেফতার সশস্ত্র বাহিনী দিবসের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী আজ সন্ধ্যায় আ. লীগের অভ্যর্থনা উপকমিটির সভা ইউনেস্কোর সাধারণ অধিবেশনে অংশ নিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বরিশালে পৃথক অভিযানে ২৫ মণ জাটকা জব্দ শিখা অনির্বাণে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা দুদকের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ সশস্ত্র বাহিনী নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবেন- প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আইভোরি কোস্টের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ সশস্ত্র বাহিনী জাতির গর্বের প্রতীক : রাষ্ট্রপতি আজ বিশ্ব টেলিভিশন দিবস
২০

‘পাকিস্তান, চীনের ছড়ানো বিষাক্ত গ্যাসে দিল্লিদূষণ’

প্রকাশিত: ৭ নভেম্বর ২০১৯  

ভারতের নয়াদিল্লিতে বিপজ্জনক বায়ুদূষণের জন্য প্রতিবেশী দুই শত্রু দেশ পাকিস্তান ও চীনকে দায়ী করেছেন ক্ষমতাসীন বিজেপির এক নেতা। বিনীত আগরওয়াল সারদা নামের উত্তর প্রদেশ রাজ্যের ওই নেতা বলেছেন, দিল্লির বায়ু দূষিত করতে ইসলামাবাদ ও বেইজিং বিষাক্ত পদার্থ ছড়িয়ে দিয়েছে। আর সেই কারণেই দিল্লির আকাশ–বাতাস বিষাক্ত হয়ে যাচ্ছে।

সারদাকে উদ্ধৃত করে ভারতের বার্তা সংস্থা এএনআইয়ের একটি প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।

দিল্লি ও এর আশপাশের এলাকাগুলো বায়ুদূষণের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে বিজেপির এই নেতা বলেন, ‘এটা দেখে (বায়ুদূষণ) মনে হচ্ছে যে পাশের কোনো দেশ বিষাক্ত গ্যাস ছড়িয়ে দিয়েছে। পাকিস্তান ও চীন ভয়ে আতঙ্কিত। তারা আমাদের এখন ভয় পায়।’

সারদা বলেন, নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহ ক্ষমতায় আসার পর থেকেই তাঁদের বিরুদ্ধে সব ধরনের কৌশল প্রয়োগ করছে পাকিস্তান। পাকিস্তান এখন হতাশ। তারা কখনোই ভারতের বিরুদ্ধে একটি যুদ্ধেও জেতেনি।

গত ২৭ অক্টোবর দেওয়ালির অনুষ্ঠানের পর রাজধানী নয়াদিল্লি ও এর আশপাশের এলাকাগুলো মারাত্মক বায়ুদূষণের শিকার। এতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে ওই এলাকার জনজীবন। গত শুক্রবার থেকে দিল্লিতে জারি রয়েছে জনস্বাস্থ্যগত জরুরি অবস্থা। ওই দিন থেকেই বন্ধ এখানকার বিদ্যালয়গুলো। হরিয়ানা, পাঞ্জাবসহ আশপাশের রাজ্যগুলোতে কৃষকদের খড় পোড়ানোর ধোঁয়া দিল্লির বায়ুদূষণের অন্যতম কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালসহ বিভিন্ন পরিবেশ সংস্থা।

তবে খড় পোড়ানোর জন্য দিল্লির বায়ুদূষণ হচ্ছে, কেজরিওয়ালের এমন মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন সারদা। তিনি বলেন, দিল্লির অবস্থার জন্য কৃষক ও কারখানাগুলোকে দায়ী করা উচিত নয়।

এই বিভাগের আরো খবর