বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৭ ১৪২৬   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
এসক্যাপ অধিবেশনে যোগ দিতে শেখ হা‌সিনা‌কে আমন্ত্রণ কৃষি আধুনিক হলেই মাথাপিছু আয় বাড়বে: কৃষিমন্ত্রী ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস আজ মাওলানা ভাসানীর জন্মবার্ষিকী আজ ববি শিক্ষক সমিতির নির্বাচন : সভাপতি আরিফ-সম্পাদক খোরশেদ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিলো সুখী সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ার কাল নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকতে বললেন ওবায়দুল কাদের ‘ফুড চেইনের মাধ্যমে প্লাস্টিক শরীরে প্রবেশ করছে’ বিশাল জয়ে শুরু কুমিল্লার বঙ্গবন্ধু বিপিএল মিশন টাইম ম্যাগাজিনের ‘পারসন অব দ্য ইয়ার’ গ্রেটা থানবার্গ বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নে ৩০ কোটি ডলার দেবে এডিবি ‘বিদেশগামীদের জন্য চালু হচ্ছে প্রবাসী কর্মী বিমা’ বানারীপাড়ায় ট্রিপল মার্ডার: প্রবাসীর স্ত্রী কারাগারে প্রেষণে বদলি রাষ্ট্রীয় ব্যাংকের ৯ জিএম জনতা ব্যাংকের অর্থ আত্মসাৎ: আসামিকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ মাদককে দেশ ছাড়া করবো: আইজিপি বিটিসিএলের সব স্কুলের প্রাথমিক শাখা হবে ডিজিটাল কাল থেকে শুরু এইচএসসির ফরম পূরণ টস জিতে ব্যাটিং নিয়েছে কুমিল্লা বিধ্বংসী ইমরুলে সিলেটকে হারিয়ে শুভসূচনা চট্টগ্রামের
১০

পর্দাকাণ্ডে ৩ ডাক্তারকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদ

প্রকাশিত: ১৪ নভেম্বর ২০১৯  

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পর্দাকাণ্ডে দুর্নীতির অনুসন্ধান করতে ৩ ডাক্তারকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সাড়ে ৩৭ লাখ টাকার পর্দাসহ ১৬৬টি চিকিৎসা সরঞ্জাম কেনাকাটার ঘটনা দেশজুড়ে আলোচিত হয়। এরপর দুদকসহ সংশ্লিষ্টদের টনক নড়ে। তিন চিকিৎসক হলেন- ফরিদপুর মেডিকেল কলেজের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. শেখ আবদুল, ডা এমানুল করিম ও ডা. মিজানুর রহমান।

বুধবার (১৩ নভেম্বর) দুদকের প্রধান কার্যালয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। সংস্থাটির জনসংযোগ দপ্তর এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এ ঘটনা অনুসন্ধানে গত অক্টোবরে মাঠে নামে দুদকের উপপরিচালক শামছুল আলমের নেতৃত্বে একটি দল। অনুসন্ধান দলের অন্য সদস্যরা হলেন- উপসহকারী পরিচালক মো. সহিদুর রহমান ও ফেরদৌস রহমান। ওই দল যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জামাদি স্পেসিফিকেশন অনুযায়ী যাচাই ও মূল্য নির্ধারণে সরেজমিনে পরিদর্শনে যায়।

জানা যায়, হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউতে) রোগীকে আড়াল করে রাখার এক সেট পর্দার দাম ৩৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা দেখানো হয়।

২০১২ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে মেসার্স অনিক ট্রেডার্স অতিরিক্ত বিল দেখিয়ে ৫২ কোটি ৬৬ লাখ ৭১ হাজার ২০০ টাকার ১৬৬টি যন্ত্রপাতি সরবরাহ করে। যেখানে এগুলোর প্রকৃত বাজার মূল্য ১১ কোটি ৫৩ লাখ ৪৬৫ টাকা। এরইমধ্যে অনিক ট্রেডার্স ৪১ কোটি ১৩ লাখ ৭০ হাজার ৭৩৭ টাকার বিল উত্তোলন করে।

 

এই বিভাগের আরো খবর