বৃহস্পতিবার   ১৪ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ৩০ ১৪২৬   ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
কলকাতা টেস্ট দেখতে আমন্ত্রণ জানিয়ে শেখ হাসিনাকে মোদীর চিঠি কৃষি জমি রক্ষায় কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী চার বছরের মধ্যে দারিদ্র্র্যের হার কমবে : প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে ঋণ দিতে দৌড়ঝাঁপ করছে বিদেশিরা : প্রতিমন্ত্রী আজ ঝালকাঠির দুই বিচারক হত্যা দিবস পিকেএসএফ উন্নয়ন মেলার উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী আয়কর মেলা: ১১৩ কোটি থেকে লক্ষ্যমাত্রা তিন হাজার কোটি টাকা রোহিঙ্গা নিপীড়নে এবার সুচি’র বিরুদ্ধে আর্জেন্টিনায় মামলা টেস্ট বিশ্বকাপ অভিষেকে টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ আয়কর মেলা শুরু আজ রোহিঙ্গা সমস্যার পেছনে জিয়াউর রহমানের হাত ছিল: প্রধানমন্ত্রী খেলাপি ঋণ অবশ্যই আদায় করা হবে: অর্থমন্ত্রী ধেয়ে আসছে ‘বুলবুলে’র চেয়েও ভয়ানক ঘূর্ণিঝড় ‘নাকরি’ বরিশালের বর্ধিত এলাকার কাঁচাসড়ক অচিরেই পাকা করার উদ্যোগ দেশের কল্যাণে প্রয়োজনে বাবার মতো জীবন দেবো: শেখ হাসিনা বিমানে উড়ে বাংলাদেশ এল ২২৫টি গরু! বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্থ ২৭ পরিবারের মাঝে ঢেউটিন ও অর্থ সহায়তা দেশে রফতানি বাড়াতে দরকার পরিবহন খাতে উন্নয়ন: বিশ্বব্যাংক মা হারানো সেই শিশুর দায়িত্ব নিলেন উপমন্ত্রী শামীম মালয়েশিয়ায় বীমার আওতায় দুই লাখ বাংলাদেশি কর্মী
৫২

দেশের প্রথম বাণিজ্যিক সৌর প্লান্টের উৎপাদন শুরু

প্রকাশিত: ১৬ অক্টোবর ২০১৯  

 


চুক্তির নির্ধারিত সময়ের দু’মাস আগেই মংলায় নির্মাণাধীন দেশের প্রথম ভাসমান সৌরবিদ্যুত প্লান্ট থেকে প্রথমধাপে প্রাথমিকভাবে বিদ্যুত উৎপাদন শুরু হয়েছে। ১৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন ভাসমান এ সৌরবিদ্যুত কেন্দ্র থেকে চলতি সপ্তাহে উৎপাদিত ২ মেগাওয়াট বিদ্যুত পরীক্ষামূলক পৌরসভার পানি শোধনাগারের প্রকল্পে ব্যবহার করা হচ্ছে। বাকি ১৩ মেগাওয়াট বিদ্যুত উৎপাদন আগামী দুবছরের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। ভাসমান এ সৌরবিদ্যুত কেন্দ্র বাস্তবায়নে ভারত সরকার মংলা পোর্ট পৌরসভাকে দিয়েছে ১৫০ কোটি টাকা। ভারতীয় ও বাংলাদেশী একটি কোম্পানির সঙ্গে গত ২৩ জুন মংলা পোর্ট পৌর কর্তৃপক্ষের এ বিষয়ে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

মংলা পোর্ট পৌরসভার প্রকৌশল বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, একটি ভারতীয় ও দেশী একটি কোম্পানির সঙ্গে গত ২৩ জুন মংলা পোর্ট পৌর কর্তৃপক্ষের এ বিষয়ে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। মংলা পোর্ট পৌরসভার মাছ মারা এলাকায় পানি শোধনাগার কেন্দ্রের দুটি পুকুর ও পুকুরপাড়ে ১৫ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন ভাসমান ও পুকুরধার সৌর বিদ্যুত কেন্দ্র প্রকল্পটি দুই বছরের মধ্যে বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে জুলাই মাস থেকে কাজ শুরু করা হয়। চুক্তি অনুযায়ী ভারত সরকারের দেয়া অফেরতযোগ্য ১৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রথম পর্যায়ে আগামী ডিসেম্বর মাসের মধ্যে ২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে সোলার পাওয়ার প্লান্ট থেকে ২ মেগাওয়াট বিদ্যুত উৎপাদন করে তা সরবরাহ করার কথা থাকে। কিন্তু প্রথম পর্যায়ের নির্ধারিত সময় শেষ হবার দুমাস আগেই চলতি অক্টোবর মাস থেকে এ কেন্দ্র থেকে বিদ্যুত উৎপাদন শুরু করা সম্ভব হয়েছে। অপরদিকে চুক্তির অপর শর্ত অনুযায়ী ১২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে আগামী ২ বছরের মধ্যে বাকি ১৩ মেগওয়াট বিদ্যুত উৎপাদন করা হবে এ প্রকল্প থেকে। এই ১৫ মেগাওয়াট ভাসমান সৌরবিদ্যুত কেন্দ্রের উৎপাদিত বিদ্যুত মোংলা পোর্ট পৌরসভা ব্যবহার করার পর উদ্বৃত্ত বিদ্যুত জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা হবে।

মংলা পোর্ট পৌরসভার মেয়র জুলফিকার আলী জানান, সোলার পাওয়ার প্যান্ট স্থাপন পরিবেশবান্ধব এবং টেকসই উন্নয়ন প্রকল্প। এ প্রকল্পের প্রথম দফার কাজ সম্পন্ন হয়েছে। পানি শোধনাগারের পুকুর পাড়ে সোলার বসিয়ে উৎপাদিত বিদ্যুত গত শুক্রবার থেকে পরীক্ষামূলকভাবে পানি প্রকল্পে ব্যবহার করা হচ্ছে। তিনি আরও জানান, সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী দুবছরের মধ্যেই এ পুকুর পাড় ও পুকুরের মধ্যে ভাসমান সোলার প্লান্ট বসিয়ে মোট ১৫ মেগাওয়াট বিদ্যুত উৎপাদন করা সম্ভব হবে। পরে এসব বিদ্যুত মংলা পোর্ট পৌর এলাকায় ব্যবহার করার পর উদৃত্ত বিদ্যুত জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা হবে।

এই বিভাগের আরো খবর