মঙ্গলবার   ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৬ ১৪২৬   ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
সব কারখানায় ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপনের নির্দেশ আজ বাংলাদেশ-নেপাল পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক সরকার-জনগণের মধ্যে সম্পর্ক জোরদার করতে সাংসদের রাষ্ট্রপতির আহ্বান দেশে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বিরাজ করছে : নাসিম ব্যাংকের জঙ্গি অর্থায়ন নজরদারিতে রয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ৪০০ মেট্রিক টন মধু রফতানির অর্ডার পেয়েছে বাংলাদেশ : কৃষিমন্ত্রী নয় বছরে সাড়ে ৯৭ হাজার কর্মকর্তা নিয়োগ : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী দেশে মোবাইল টাওয়ার রেডিয়েশনের মাত্রা ক্ষতিকর নয় : বিটিআরসি সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী ২০ বছর পর আজ ঢাকায় আসছেন নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খালেদার প্যারোলে মুক্তির কোনো আবেদন পাইনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উহান ফেরত শিক্ষার্থীরা নজরদারিতেই থাকবেন : আইইডিসিআর রোহিঙ্গা ইস্যুতে ইন্দোনেশিয়ার সহায়তা চাইলেন ড. মোমেন ইউএনও’দের মাধ্যমে রাজাকারের তালিকা করা হবে : মোজাম্মেল হক মানবপাচারে অভিযুক্ত এমপির বিষয়ে দুদককে তদন্তের আহ্বান কাদেরের হত্যা মামলায় ৯ জনের যাবজ্জীবন বিশ্বকাপজয়ী ৬ ক্রিকেটারকে নিয়ে বিসিবি একাদশ ঘোষণা মশা মারার পর্যাপ্ত ঔষধ মজুত আছে : স্থানীয় সরকারমন্ত্রী রহমত আলীর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক সাবেক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট রহমত আলী আর নেই
৫০

ডিসি ও ইউএনওদের গাড়ির তেল খরচ বাড়াল সরকার

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

মাঠ প্রশাসন পর্যায়ের শীর্ষ দুই কর্মকর্তার গাড়ির জ্বালানি খরচ বাড়িয়েছে সরকার। ডিসি ও ইউএনওরা তাঁদের গাড়িতে ব্যবহারের জন্য সর্বোচ্চ ২৫০ লিটার করে জ্বালানি তেল পাবেন। তবে যেসব ইউএনওর উপজেলায় ইউনিয়নের সংখ্যা ১৬টির বেশি, শুধু তাঁরাই ডিসিদের সমান জ্বালানি খরচ পাবেন। আগে ডিসিরা পেতেন ২০০ লিটার এবং ইউএনওরা পেতেন ১৮০ লিটার।

উপজেলা ও জেলা সদরে বিভিন্ন সভা, কর্ম এলাকা পরিদর্শন এবং অন্যান্য সরকারি কাজে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করতে হয় ডিসি ও ইউএনওদের। এর বাইরে প্রটোকলের কাজেও সরকারি গাড়ির ব্যবহার আগের চেয়ে অনেক বেড়েছে। এসব কারণ উল্লেখ করে কয়েক বছর ধরে ডিসি সম্মেলনে ডিসি ও ইউএনওদের গাড়ির জ্বালানি খরচ বাড়ানোর জন্য প্রস্তাব এসেছে। এর মধ্যে ডিসিরা তাঁদের প্রয়োজনমতো তেল খরচ চেয়েছেন। সেই সঙ্গে ইউএনওদের জন্য দ্বিগুণ জ্বালানি খরচের চাহিদা দেওয়া হয়েছিল। এর পরিপ্রেক্ষিতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ডিসি ও ইউএনওদের জ্বালানি তেল ব্যবহারের নতুন সিলিং বেঁধে দিল।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, নতুন জারি করা প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী সব ডিসিই ২৫০ লিটার পর্যন্ত তেল খরচ নিতে পারবেন। তবে ইউএনওদের জন্য তিনটি সিলিং করা হয়েছে।

নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, যেসব উপজেলার ইউনিয়নসংখ্যা ১০টি বা তার কম সেসব উপজেলায় জ্বালানি তেলের বরাদ্দ ১৮০ লিটারের জায়গায় ২১০ লিটার পেট্রল বা অকটেন। তবে কেউ যদি গ্যাস ব্যবহার  করেন তাহলে তার পরিমাণ হবে সর্বোচ্চ ৩০০ ঘনমিটার।

উপজেলায় ইউনিয়নের সংখ্যা ১১ থেকে ১৫টি হলে সেসব উপজেলার জন্য জ্বালানি তেলের বরাদ্দ ২৩০ লিটার, গ্যাস নিলে ৩২৮ ঘনমিটার। আর ১৬টির বেশি ইউনিয়ন হলে সেসব উপজেলার ইউএনওদের জন্য তেলের বরাদ্দ হবে ২৫০ লিটার পেট্রল বা অকটেন। গ্যাসের ক্ষেত্রে ৩৫৮ ঘনমিটার।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, প্রথমে বিভাগীয় কমিশনার ও ডিসিদের গাড়ির জ্বালানি তেলের খরচ বাড়িয়েছিল সরকার। পরবর্তী সময়ে আলাদা প্রজ্ঞাপনে বিভাগীয় কমিশনারদের জন্য বাড়তি বরাদ্দ বাতিল করা হয়। একই সঙ্গে ইউএনওদের জন্য বরাদ্দ বাড়ানোর আদেশ জারি করা হয়।

জ্বালানি তেল খরচ বাড়ানো প্রসঙ্গে জানতে চাইলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, মূলত ডিসি ও ইউএনওদেরই জেলা-উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় বেশি চলাচল করতে হয়। তাই তাঁদের জ্বালানি খরচ বাড়ানো হয়েছে। তিনি বলেন, বিভাগীয় কমিশনারদের জ্বালানি খরচের বিষয়টি এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তাই তাঁদের আগের জ্বালানি খরচ, অর্থাৎ মাসে সর্বোচ্চ ২০০ লিটার ব্যবহারের নিয়ম বহাল রাখা হয়েছে।

 

এই বিভাগের আরো খবর