• মঙ্গলবার   ২৬ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪২৭

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
জীবন বাঁচাতে জীবিকাও সচল রাখতে হবে: কাদের ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৮৭৩ জন শনাক্ত, মৃত্যু আরও ২০ জনের র‌্যাব-৮ এর অভিযানে মাদারীপুর থেকে জেএমবি’র সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার ২৪ ঘণ্টায় ২৪ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ছাড়াল ৩০ হাজার মমতাকে সহমর্মিতা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফোন মোংলা ও পায়রা বন্দরে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত মহাবিপদ সংকেত জারি সকালে, রাতের মধ্যে আসতে হবে আশ্রয় কেন্দ্রে ২ লাখ ৫ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন বাজেট অনুমোদন আম্পানের আঘাতে ১০ ফুটের অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা আরও ১২৫১ করোনা রোগী শনাক্ত, মৃত্যু ২১ জনের আরও ৭ হাজার কওমি মাদ্রাসাকে প্রধানমন্ত্রীর অর্থ সহায়তা পায়রা-মংলায় ৭, চট্টগ্রাম-কক্সবাজারে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত দেশে একদিনে আক্রান্ত ও মৃত্যুর নতুন রেকর্ড বরিশালে ঘণ্টায় ৪৫-৬০ কিমি. বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টির আশঙ্কা সমুদ্রসীমায় অবৈধ মৎস্য আহরণ বন্ধ করতে হবে: প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী পাঁচ হাজার টেকনোলজিস্ট নিয়োগের ঘোষণা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর করোনা সংক্রমণে বাংলাদেশ কিছুটা ভালো অবস্থানে আছে: কাদের করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ১৪ মৃত্যু, শনাক্ত ১২৭৩ আম্ফান : সমুদ্রবন্দরে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’, সাগরে ২ নম্বর সংকেত
১৮৭

`ডব্লিউ পজিশনে` বসা ক্ষতিকর অভ্যাস!

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

বাচ্চাদের প্রিয় কাজগুলোর মধ্যে প্লাস্টিকের খেলনা কামড়ানো, মাটি মুখে দেয়া, মাটিতে খেলা ছাড়াও আরো নানান কিছু রয়েছে। তারা জানে না কোন জিনিসটা তাদের জন্য ভাল এবং কোন জিনিসটা তাদের জন্য খারাপ। আর এসব কাজে বাঁধা দিলেই ঘটে বিপত্তি।

আপনি যতই তাদের সুরক্ষিত রাখতে চান না কেন, অনুচিত কাজগুলো তারা করতে চাইবেই। এসব কাজের ফলে তাদের কি কি অসুবিধা হতে পারে তা তারা বুঝে না। তাই তাদের সব সময় বড়দের নজরদারিতে রাখতে হয়।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ঠিক তেমনি ডব্লিউ (W) পজিশনে বসা বাচ্চাদের জন্য অনুচিত। তাই যদি কখনও কোনো বাচ্চাকে W পজিশনে বসতে দেখেন সাথে সাথে তাকে থামাবেন!

কেন? চলুন জেনে আসি-

এই বিশেষ পজিশনে বসলে পায়ের গোড়ালি শরীরের পেছনের দিকে এবং হাঁটু সামনের দিকে অবস্থান করে।  এতে হাঁটুর অংশে একটা V এর আকৃতি নেয় এবং দুই পা মিলিয়ে W এর আকার নেয়।

এখন বলবো এভাবে বসার ফলে প্রথমত, শরীরে খুব জলদি ক্লান্তি চলে আসে। কারণ এই পদ্ধতিতে বসলে প্রচুর শক্তি খরচ হয়। তাই বাচ্চারা অলস অনুভব করবে!

এটা বাচ্চাদের পায়ের অঞ্চলকেও ক্ষতিগ্রস্ত করবে। পায়ের পেশিকে টান টান করে দিবে, যা বাচ্চাদের জন্যে মোটেও ভাল না।

এটা লম্বা সময় ধরে বসলে আরো খারাপ ফল নিয়ে আসবে। এভাবে দীর্ঘসময় বসে থাকলে বাচ্চার স্নায়ুবিক সমস্যা দেখা দিতে পারে। স্নায়ুবিক সমস্যা মানেই মগজের সঙ্গে জড়িত এবং এটা কখনই এড়িয়ে যাওয়ার মত বিষয় নয়।

এর ফলে পায়ের পেশি অসাড় করে দিবে এবং পায়ের অঙ্গবিন্যাস নষ্ট করে দিতে পারে। কারণ পায়ের পেশি এবং হাড় অনেক নরম হয়।

বাচ্চারা দীর্ঘদিন ধরে এভাবে বসার ফলে শরীর সমন্বয় এবং ভারসাম্য হারাবে। এর সঙ্গে সঙ্গে ঘটতে পারে হিপ ডিসপ্লেসিয়া বা কোমরের হাড়ের পাশাপাশি পায়ের হাড়ের অবস্থান পরিবর্তন। এর ফলে একটা স্বতঃস্ফূর্ত শিশুর ভবিষ্যৎ একেবারে বদলে যেতে পারে।

তাই আপনাদের বলবো যখনই কোনো শিশুকে W পজিশনে বসতে দেখবেন সঙ্গে সঙ্গে তার বসার পজিশন পরিবর্তন করে দিন। আর সবারই তো জানা আছে, প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধ ভাল। একটা বাচ্চার সুরক্ষার চেয়ে বড় আর কিছু কী হতে পারে?

লাইফস্টাইল বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর