বৃহস্পতিবার   ১৪ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ২৯ ১৪২৬   ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
রোহিঙ্গা সমস্যার পেছনে জিয়াউর রহমানের হাত ছিল: প্রধানমন্ত্রী খেলাপি ঋণ অবশ্যই আদায় করা হবে: অর্থমন্ত্রী ধেয়ে আসছে ‘বুলবুলে’র চেয়েও ভয়ানক ঘূর্ণিঝড় ‘নাকরি’ বরিশালের বর্ধিত এলাকার কাঁচাসড়ক অচিরেই পাকা করার উদ্যোগ দেশের কল্যাণে প্রয়োজনে বাবার মতো জীবন দেবো: শেখ হাসিনা বিমানে উড়ে বাংলাদেশ এল ২২৫টি গরু! বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্থ ২৭ পরিবারের মাঝে ঢেউটিন ও অর্থ সহায়তা দেশে রফতানি বাড়াতে দরকার পরিবহন খাতে উন্নয়ন: বিশ্বব্যাংক মা হারানো সেই শিশুর দায়িত্ব নিলেন উপমন্ত্রী শামীম মালয়েশিয়ায় বীমার আওতায় দুই লাখ বাংলাদেশি কর্মী আওয়ামী লীগে দূষিত রক্তের প্রয়োজন নেই: সেতুমন্ত্রী ঘুরে দাঁড়িয়ে দুর্দান্ত জয় বাংলাদেশের মেয়েদের শেখ হাসিনার নেতৃত্ব মানুষের দিন বদল হয়েছে-তথ্যমন্ত্রী ৭৫ পরবর্তীতে অনেকে উচ্ছিষ্টের লোভে দল ছেড়ে চলে গেছেন: নওফেল নকল মুদ্রা দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার ৯ বাংলাদেশ থেকে কেউ বিচ্ছিন্নতাবাদী তৎপরতা চালাতে পারবে না সমুদ্রের ঢেউয়ে ভেসে আসছে কোটি কোটি টাকার কোকেন! বাবার সঙ্গে কঙ্গনার সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন সুরাজ! ব্যাটসম্যানদের টেস্ট মেজাজে ব্যাট করতে হবে: দুর্জয় ববি উপাচার্যের এর সাথে গনিত অলিম্পিয়াডে বিজয়ীর সাক্ষাত
৩৯

জি কে শামীমের ৭ দেহরক্ষী ফের রিমান্ডে

প্রকাশিত: ৬ অক্টোবর ২০১৯  

আলোচিত যুবলীগ নেতা জি কে শামীমের সাত দেহরক্ষীর আবারও তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গুলশান থানায় করা মানি লন্ডারিং মামলায় তাদের এ রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।

এরআগে ১ অক্টোবর মানি লন্ডারিং মামলায় তাদের ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিলেন আদালত। ওই মামলায় রিমান্ড শেষে আজ তাদের আদালতে হাজির করা হয় এবং অস্ত্র মামলায় সাত দিনের রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‍্যাব-১ এর উপরিদর্শক শেখর চন্দ্র মল্লিক।

অন্যদিকে রিমান্ড বাতিল করে জামিন আবেদন করেন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম মইনুল ইসলাম তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। সাত দেহরক্ষী হলেন-দেলোয়ার হোসেন, মুরাদ হোসেন,জাহিদুল ইসলাম, সহিদুল ইসলাম, কামাল হোসেন, সামসাদ হোসেন ও আমিনুল ইসলাম।

টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজির সুনির্দিষ্ট অভিযোগে গত ২০ সেপ্টেম্বর যুবলীগ নেতা জি কে শামীম ও তার সাত দেহরক্ষীকে আটক করে র‌্যাব। পরদিন তাদের গুলশান থানায় হস্তান্তর করা হয়।

ওই অভিযানে এক কোটি ৮০ লাখ নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়। এছাড়া ১৬৫ কোটি টাকার ওপর এফডিআর (স্থায়ী আমানত) পাওয়া যায়, যার মধ্যে তার মায়ের নামে ১৪০ কোটি ও ২৫ কোটি টাকা শামীমের নামে। একই সঙ্গে পাওয়া যায় মার্কিন ডলার, মাদক ও আগ্নেয়াস্ত্র।

এই বিভাগের আরো খবর