রোববার   ২০ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৪ ১৪২৬   ২০ সফর ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
রাজীবের মোহাম্মদপুরের বাসায় অভিযান পরিচালনা করছে র‌্যাব অস্ত্র ও মাদকসহ রাজীবকে আটক করেছে র‌্যাব কাউন্সিলর তারেকুজ্জামান রাজিব গ্রেফতার আসছে ‘জলের গান’র অ্যালবাম, থাকছে বারী সিদ্দিকীর গান বছর শেষ হলেই বাতিল হচ্ছে ২ হাজার রুপির নোট ঢাকায় আসছেন নিউইয়র্ক সিটির ৫ সিনেটর বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত দাইয়ুস জান্নাতে যাবে না ড্রাগনের রক্ত বয়ে চলেছে যে গাছ! বালিশকাণ্ডের মতো কলঙ্কজনক কাজ যেন না হয় :পরিকল্পনামন্ত্রী দলে অনুপ্রবেশকারীদের জায়গা দেওয়া হবে না: নাসিম দোয়া পাওয়ার জন্য রাজনীতি করি : শামীম ওসমান আর্থিক সংকটে দুদিন বন্ধ জাতিসংঘ ওজন কমাতে খান মিষ্টি আলু ফেসবুক সমাজের `পঞ্চম স্তম্ভ`: জাকারবার্গ দুর্নীতি ও মাদক নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত অভিযান চলবে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বৈজ্ঞানিক সরঞ্জাম বিতরণ করেণ পংকজ নাথ কেরানি থেকে ধর্মীয় গুরু, আশ্রমে মিলল ৫০০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ! মদিনায় দুর্ঘটনায় নিহতদের ১১ জন বাংলাদেশি দীর্ঘদিন ধরেই পদ্মায় ইলিশ ধরছিলেন ভারতীয় জেলেরা!
৭৪

জটিল ২ রোগ নিয়ন্ত্রণে করলা চা

প্রকাশিত: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

ডায়াবেটিস ও কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে অনেক কিছুই করে থাকি আমরা। তবে একটি সবজি আছে যা খেলে আপনার ডায়াবেটিস ও কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে থাকবে। এই সবজির নাম হচ্ছে করলা।

করলা খেতে তেঁতো হলেও এই সবজি অনেক পুষ্টিগুণ সম্পূর্ণ। করলা রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে, লিভার পরিষ্কার করে, ওজন নিয়ন্ত্রণেও সাহায্য করে। করলার দিয়ে তৈরি করে খেতে পারে করলার চা।

করলা চা কেন খাবেন?

প্রাচীনকাল থেকেই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে করলার ব্যবহার হয়ে আসছে করলার চা ।রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। এছাড়া রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে শরীর সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

করলা লিভার পরিষ্কার করতে সাহায্য করে, বদহজম রোধ করে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। এই চায়ে থাকা ভিটামিন সি যেকোনো ইনফেকশনের হাত থেকে রক্ষা করে। এছাড়া করলা চায়ে থাকা ভিটামিন-এ চোখ ভালো রাখে।

জেনে নেই কীভাবে তৈরি করবেন করলা চা?

কিছু পরিমাণ আগে থেকেই শুকনো বা তাজা করলার টুকরো নিন, সাথে পানি ও মিষ্টির জন্য মধু নিন। করলা গাছের পাতাও ব্যবহার করা যায়, তবে করলা সহজলভ্য তাই করলা ব্যবহার করুন।

পানি ফুটিয়ে নিন, তার মধ্যে শুকনো করলার টুকরো দিয়ে ১০ মিনিট মাঝারি আঁচে ফোটান যাতে করলার সমস্ত পুষ্টিদ্রব্য পানিতে মিশে যায়। আঁচ থেকে নামিয়ে আরও কিছুক্ষণ ঢেকে রাখুন।

এরপর কাপে চা ছেঁকে নিন এবং মিষ্টির জন্য মধু মেশান। আপনার করলার চা তৈরি। তবে রক্তে সুগার নিয়ন্ত্রণে এই চা খেলে মিষ্টি ব্যবহার করবেন না।

হাইপোগ্লাইসেমিয়া রোগীর ক্ষেত্রে করলার কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। তাই করলার চা আপনার প্রতিদিনের ডায়েটে ব্যবহার করার আগে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।