শুক্রবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৪ ১৪২৬   ২০ মুহররম ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
ছাত্রলীগের পর যুবলীগকে ধরেছি : প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগকে সংযমের সঙ্গে চলার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর প্রধানমন্ত্রীর সাথে যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি দলের সাক্ষাত অবৈধ জুয়ার আড্ডা বা ক্যাসিনো চলতে দেওয়া হবে না: ডিএমপি কমিশনার পটুয়াখালীতে ধর্ষণ মামলার বাদীকে পেটানো প্রধান আসামিসহ গ্রেপ্তার-৪ শাহজালালে বিমানের জরুরি অবতরণ শুক্রবার নিউইয়র্ক যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী ফকিরাপুলের ক্যাসিনো থেকে আটক ১৪২ জনের জেল রাজধানীর তিনটি ক্যাসিনোতে র‌্যাবের অভিযান জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে বাংলাদেশ রিয়াদের ফিফটিতে টাইগাররা ১৭৬ রানের লক্ষ্য দিলো জিম্বাবুয়েকে টস হেরে ব্যাটিং এ বাংলাদেশ রিফাত হত্যা : পলাতক ৯ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা রোহিঙ্গা সংকট : ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে বসছে চীন-মিয়ানমার-বাংলাদেশ আমাদের কাজই হচ্ছে জনগণকে সেবা দেয়া : প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীন বাংলাদেশের পক্ষে: মোমেন আজ গাজীপুর যাবেন প্রধানমন্ত্রী পরিবেশ দূষণ: ৪ প্রতিষ্ঠানকে কোটি টাকা জরিমানা স্বর্ণজয়ী রোমান সানার মায়ের চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন প্রধানমন্ত্রী আরো দু’টি বোয়িং বিমান কেনার ইঙ্গিত দিলেন প্রধানমন্ত্রী
১৭

চিত্রনায়ক ফেরদৌসসহ ৪০ তারকার বিরুদ্ধে হুমকি,থানায় জিডি

প্রকাশিত: ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

লন্ডনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজনের কথা বলে বাংলাদেশের ৪০ জন তারকাশিল্পী, কলাকুশলীর পাসপোর্ট ও জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি নেওয়ার পর হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় গুলশান থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে।

হুমকি দেওয়া ব্যক্তি নিজেকে প্রবাসী বাংলাদেশি ও নাম জুবাইর বলে পরিচয় দিয়েছেন বলে জিডিতে উল্লেখ করা হয়েছে। হুমকি পাওয়া শিল্পীদের তালিকায় আছেন, চিত্রনায়ক ফেরদৌস, সংগীতশিল্পী ফাহমিদা নবী, আগুন, কনা, দিনাত জাহান মুন্নী, আঁখি আলমগীর, ইমরান, গীতিকার কবির বকুল, অভিনেত্রী সোহানা সাবাসহ অনেকে।

হুমকি পাওয়া শিল্পীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, একটি ব্রিটিশ মুঠোফোন নম্বর থেকে শিল্পীদের সবার মুঠোফোনে বার্তা পাঠিয়ে এই হুমকি দেওয়া হচ্ছে। মুঠোফোনে পাঠানো এসব বার্তায় ‘জুবাইর’ নাম উল্লেখ করা হচ্ছে।

কয়েকজন শিল্পী জানান, গত মাসে লন্ডন থেকে জুবাইর নামের এক ব্যক্তি নিজেকে প্রবাসী বাংলাদেশি বলে পরিচয় দিয়ে তাঁদের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করেন। ফোনে তিনি জানান যে, ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে আগামী ৩ অক্টোবর পর্যন্ত লন্ডনে ‘বাংলাদেশ মেলা’ নামে সাংস্কৃতিক উৎসব আয়োজন করা হবে। ৯ দিনের এই উৎসবে লন্ডনের তিনটি স্থানে অনুষ্ঠান আয়োজনের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে কথা বলতে জনৈক জুবাইর নামের ওই ব্যক্তি গতকাল ৩ সেপ্টেম্বর ঢাকায় আসবেন বলে শিল্পীদের জানান। ওই দিন ঢাকায় এসে ওয়েস্টিন হোটেলে তাঁদের সঙ্গে কথা বলে অনুষ্ঠান সম্পর্কে বিস্তারিত জানাবেন তিনি। এর মধ্যে প্রায়ই ফোনে জুবাইর পরিচয়ধারী ওই ব্যক্তি বাংলাদেশে ফোন করে শিল্পীদের সঙ্গে কথা বলেছেন। ফোনে যোগাযোগ করে ওই ব্যক্তি প্রায় ৪০ জন শিল্পীর কাছ থেকে জাতীয় পরিচয়পত্র, পাসপোর্টের ফটোকপিসহ আনুষঙ্গিক কাগজপত্র সংগ্রহ করেন। 
২ সেপ্টেম্বর ফোন করে জুবাইর নামের ওই ব্যক্তি জানান যে, তিনি ফ্লাইটে উঠেছেন। ঢাকায় ৩ সেপ্টেম্বর বিকেলের মধ্যে পৌঁছে যাবেন। সবাই যেন সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার মধ্যে গুলশানে হোটেল ওয়েস্টিনে চলে আসেন। 
গতকাল নির্ধারিত সময়ে ৩৫-৪০ জন তারকাশিল্পী হোটেল ওয়েস্টিনে চলে আসেন। এরপরই মুঠোফোনে হুমকি দিয়ে হোটেলে উপস্থিত সবাইকে বার্তা পাঠান জুবাইর নামধারী ওই ব্যক্তি। 
বার্তায় জুবাইর অভিযোগ করেন, বাংলাদেশের একজন অভিনেত্রী এবং ওই অভিনেত্রীর ভাই প্রতারণা করে তাঁর কাছ থেকে সাড়ে তিন কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। এ বিষয়ে তিনি অনেক শিল্পীর কাছে অভিযোগ করেছেন। কিন্তু সবাই এড়িয়ে গেছেন। তাই শিল্পীদের পাসপোর্ট, জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি সংগ্রহ করেছেন। তিন দিনের মধ্যে ওই দুজনের কাছ থেকে সব টাকা ফেরত দেওয়ার ব্যবস্থা করতে বলেন তিনি। তা না হলে কোনো শিল্পী যেন দেশের বাইরে যেতে না পারেন, সেই ব্যবস্থা করবেন বলে হুমকি দেন ওই জুবাইর।

এরপর রাতেই শিল্পীদের পক্ষ থেকে গুলশান থানায় জিডি করা হয়। তবে জিডির পরও হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন ওই ব্যক্তি। সবশেষ আজ বুধবার সন্ধ্যা পৌনে ছয়টার দিকে টাকা ফেরতের দাবি করে বার্তা পাঠানো হয়। এতে বলা হয়, টাকা পাওয়া গেলে কারও কোনো ক্ষতি হবে না। আর না পাওয়া গেলে পাসপোর্টের কপি দিয়ে কী করা যায়, সেটি টের পাওয়া যাবে। এ ছাড়া আগামী সাত দিনের মধ্যে কেউ না কেউ ‘শেষ’ হবে বলে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয়। 
পুরো ঘটনাটি অসম্মানজনক ও বিব্রতকর বলে জানান হয়রানির শিকার হওয়া তারকাশিল্পীরা। তাঁরা জানান, বিদেশে কোনো অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার আগে ফোনের মাধ্যমেই যোগাযোগ হয়ে থাকে। পরে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পাঠানো হয়। লন্ডন যাবেন কি না, সে ব্যাপারে ৩ সেপ্টেম্বর আলোচনার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া কথা ছিল বলে জানান তাঁরা।

এ ব্যাপারে গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম কামরুজ্জামান বলেন, এ বিষয়ে জিডি হয়েছে। বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করা হচ্ছে।

এই বিভাগের আরো খবর