সোমবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৭ ১৪২৬   ২৩ মুহররম ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
বাচ্চাকে মারধর করায় থানা ঘেরাও হনুমানের! জাতীয় নারী দাবায় শীর্ষস্থানে রানী হামিদ ইউজিসির কাঠগড়ায় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ ভিসি ক্যাসিনোতে মিলল ধর্মীয় উপাসনা সামগ্রী! বিজয়নগর সায়েম টাওয়ার থেকে ১৭ জুয়ারী আটক ১৩ নেপালিকে মোটা অংকের বেতনে রাখা হয় জুয়া চালাতে স্পা সেন্টার থেকে আটক ১৬ নারী, ৩ পুরুষ আরও ১০ লক্ষ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান করা হবে- পলক আবুধাবি থেকে নিউইয়র্কের পথে প্রধানমন্ত্রী অজুহাতে কাজ আটকে রাখলে কঠোর ব্যবস্থা: গণপূর্তমন্ত্রী ব্যাংক নোটের আদলে টোকেন ব্যবহার করা যাবে না ঢাকা আসছেন বিশ্ব ব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও জাতিসংঘের দূত খিলক্ষেতে বোমা হামলা: ৫ জেএমবির ১২ বছরের দণ্ড আরামবাগ-দিলকুশা ক্লাবে জুয়ার সরঞ্জাম উদ্ধার ভিক্টোরিয়া ক্লাব থেকে নগদ টাকা ও মদের বোতল উদ্ধার সৌদিতে শিরশ্ছেদ করে ১৩৪ জনের মৃত্যুদণ্ড শিশুদের কোলবালিশের ভেতর থেকে ১০ কেজি গাঁজা উদ্ধার! মতিঝিলে ৪ ক্লাবে পুলিশের অভিযান রিমান্ডে খালেদ ও শামীমের কাছ থেকে চাঞ্চল্যকর তথ্য ঢাকায় বাংলাদেশ-ভারত নৌবাহিনী প্রধানের সাক্ষাত
১৩২

ঘন ঘন প্রস্রাব! এড়িয়ে চলুন ৬ খাবার

প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

বার বার টয়লেটে যেতে দেখা যায় অনেককেই। কারণ হিসেবে বলেন প্রস্রাবের চাপ। এরা কোথাও বেরনোর আগে একবার হলেও বাথরুমে ঢুঁ মারেন। আবার গাড়িতে বা বাসে-ট্রেনে যাতায়াতের সময়ও অন্তত চার-পাঁচবার এই সমস্যায় পড়েন। এমন পরিস্থিতি পুরুষরা সামলে নিতে পারলেও বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়েন মহিলারা। তাই কোথাও বেরনোয় তাদের মধ্যে একটা আতঙ্ক কাজ করে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, এই সমস্যা দুর্বল মূত্রস্থলীর লক্ষণ হতে পারে। এমন বেশ কয়েকটি কারণ রয়েছে যেগুলোর প্রভাবে মূত্রস্থলী (ব্লাডার) দুর্বল হয়ে পড়তে পারে। যেমন মেনোপজ বা বয়সের কারণে, গর্ভধারণের পরও ঘন ঘন প্রস্রাবের বেগ আসতে পারে। এ ছাড়াও কিছু স্নায়বিক, মানসিক বা প্রদাহজনিত কারণে মূত্রস্থলী দুর্বল হতে পারে। 

তবে এমন কয়েকটি খাবার রয়েছে, যেগুলো এড়িয়ে চললে বা কম খেলে এই সমস্যা অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আসে। এবার এ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক...

১. মূত্রনালির সংক্রমণ, মূত্রস্থলী (ব্লাডার) সমস্যা বা ওএবি থাকলে সোডা বা সোডাযুক্ত খাবার অথবা সোডাপানীয় খেলে সমস্যা আরও বেড়ে যেতে পারে। তাই কার্বনেটেড বা সাইট্রাস সোডা বা সোডাযুক্ত খাবার অথবা এসব পানীয় থেকে দূরে থাকুন।

২. যদি আপনার মূত্রস্থলীতে সংক্রমণ হয়ে থাকে তাহলে কফি খাওয়ার অভ্যাস ছাড়ুন। কফির মধ্যে থাকা ক্যাফেইন মূত্রস্থলীর অস্বস্তি আরও বাড়িয়ে দেয়।

৩. ফল খাওয়া শরীর-স্বাস্থ্যের পক্ষে ভাল। তবে যদি আপনার মূত্রস্থলীতে কোন সমস্যা থাকে তাহলে অ্যাসিডিক ফল (যেমন আঙুর, কমলালেবু, আপেল, টমেটো, আনারস ইত্যাদি) মূত্রনালির সংক্রমণ বাড়িয়ে দিতে পারে। সে ক্ষেত্রে এসব ফল না খাওয়া বা যতটা সম্ভব কম খাওয়াই ভাল।

৪. ক্যালরির পরিমাণ কমানোর জন্য অনেকেই খাবারে চিনির বদলে কৃত্রিম সুইটেনার ব্যবহার করে থাকেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, যদি মূত্রনালিতে সংক্রমণ বা কোন রকম সমস্যা থাকে তাহলে কৃত্রিম সুইটেনার থেকে দূরে থাকাই ভাল। কারণ এতে সমস্যা আরও বাড়তে পারে।

৫. মূত্রনালি বা মূত্রস্থলীতে সংক্রমণ বা কোন রকম সমস্যা থাকলে অতিরিক্ত মশলাদার খাবার-দাবার এড়িয়ে চলুন। কারণ ঝাল বা অতিরিক্ত মশলাদার খাবার-দাবার মূত্রস্থলীতে অস্বস্তি তৈরি করে।

৬. মদ পান করলে যে বেশি প্রস্রাব পায়, এ কথা অনেকেই জানেন। অ্যালকোহলের প্রভাবে পেটের সঙ্গে সঙ্গে মূত্রস্থলীতেও অস্বস্তি তৈরি হয়। তাই সংক্রমণের প্রবণতা থাকলে বা মূত্রস্থলীতে কোন রকম সমস্যা থাকলে অ্যালকোহল থেকে যতটা সম্ভব দূরে থাকুন।