রোববার   ২০ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৪ ১৪২৬   ২০ সফর ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
রাজীবের মোহাম্মদপুরের বাসায় অভিযান পরিচালনা করছে র‌্যাব অস্ত্র ও মাদকসহ রাজীবকে আটক করেছে র‌্যাব কাউন্সিলর তারেকুজ্জামান রাজিব গ্রেফতার আসছে ‘জলের গান’র অ্যালবাম, থাকছে বারী সিদ্দিকীর গান বছর শেষ হলেই বাতিল হচ্ছে ২ হাজার রুপির নোট ঢাকায় আসছেন নিউইয়র্ক সিটির ৫ সিনেটর বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত দাইয়ুস জান্নাতে যাবে না ড্রাগনের রক্ত বয়ে চলেছে যে গাছ! বালিশকাণ্ডের মতো কলঙ্কজনক কাজ যেন না হয় :পরিকল্পনামন্ত্রী দলে অনুপ্রবেশকারীদের জায়গা দেওয়া হবে না: নাসিম দোয়া পাওয়ার জন্য রাজনীতি করি : শামীম ওসমান আর্থিক সংকটে দুদিন বন্ধ জাতিসংঘ ওজন কমাতে খান মিষ্টি আলু ফেসবুক সমাজের `পঞ্চম স্তম্ভ`: জাকারবার্গ দুর্নীতি ও মাদক নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত অভিযান চলবে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বৈজ্ঞানিক সরঞ্জাম বিতরণ করেণ পংকজ নাথ কেরানি থেকে ধর্মীয় গুরু, আশ্রমে মিলল ৫০০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ! মদিনায় দুর্ঘটনায় নিহতদের ১১ জন বাংলাদেশি দীর্ঘদিন ধরেই পদ্মায় ইলিশ ধরছিলেন ভারতীয় জেলেরা!
১৮

খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে বিএনপির নতুন মিথ্যাচারে সমালোচনার ঝড়!

প্রকাশিত: ৪ অক্টোবর ২০১৯  

দুর্নীতির দায়ে দণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে বিএনপির ষড়যন্ত্র ও মিথ্যাচার আবারো প্রমাণিত হলো। বিএনপি নেতারা বেগম জিয়া গুরুতর অসুস্থ বলে প্রচার করলেও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) কর্তৃপক্ষ সেটি নাকচ করে দিয়ে জানিয়েছে যে, বেগম জিয়া সুস্থ ও স্বাভাবিক রয়েছেন।

বুধবার (২ অক্টোবর) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম মাহবুবুল হক জানিয়েছেন, খালেদা জিয়া ভালো আছেন, তার অবস্থার কোনও অবনতি হয়নি।

এদিকে মঙ্গলবার (১ অক্টোবর) ও বুধবার (২ অক্টোবর) বিএনপির সংসদ সদস্যরা খালেদা জিয়াকে দেখে এসে অভিযোগ করেন, তার শরীরের অবস্থা খুব খারাপ। তিনি নিজ হাতে খেতে পারেন না এবং নিজে পোশাকও পরতে পারছেন না। এ অবস্থায় বিএনপি চেয়ারপারসনের সুস্থতার জন্য উন্নত চিকিৎসার কথা বলে তার জামিন দাবি করেন বিএনপির সাংসদরা।

বিএনপির সংসদ সদস্যদের এসব অভিযোগের মধ্যেই ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম মাহবুবুল হক জানালেন, খালেদা জিয়ার শারীরিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক। তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের চিকিৎসা চলছে। আমাদের পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড রয়েছে, তারা তাকে সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করছেন। তার যখন যা প্রয়োজন হচ্ছে সেটাই করা হচ্ছে। তার কোনও ‘‘সমস্যা হচ্ছে” বলে মনে হচ্ছে না। তার ডায়াবেটিস, আর্থাইটিসের ব্যথাই প্রধান শারীরিক সমস্যা, এছাড়া বিশেষ কোনো সমস্যা নেই। তার উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। দাঁতের সমস্যা ছিল, সেটাও দূর হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে রাজনৈতিক বিশ্লেষক বিভুরঞ্জন সরকার বলেন, বিএসএমএমইউ কর্তৃপক্ষের কথার মাধ্যমেই প্রমাণ হয়, খালেদা জিয়া সম্পূর্ণ সুস্থ। শুধু মাত্র রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিলের জন্যই বিএনপির নেতারা এমনটি করছেন।
রাজনৈতিক বিশ্লেষক এ আরাফাত মনে করেন, বিগত দেড় বছরে বহুবার দুর্নীতির দায়ে দণ্ডিত বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে বিএনপি ষড়যন্ত্র ও মিথ্যাচার করেছিলো। সেসময়ও বিএসএমএমইউ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল, বেগম জিয়া সম্পূর্ণ সুস্থ। তাকে নিয়ে দুশ্চিন্তার কিছু নেই।

বিষয়টিকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) একজন সিনিয়র নেতা বলেন, চিকিৎসা নিয়ে মিথ্যাচার করে বেগম জিয়া ও বিএনপিকে বিতর্কিত করছেন দলটির নেতারা। বিএনপি বেগম জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে নতুন করে অপরাজনীতি করে দেশকে অস্থিতিশীল করার পাঁয়তারা করছিল । তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের রিপোর্টে সম্ভবত বিব্রত হয়ে পড়েছেন বিএনপির নেতৃবৃন্দ। বেগম জিয়াকে জাতির কাছে সংগ্রামী ও আপোষহীন হিসেবে তুলে ধরার মিথ্যা চেষ্টায় হিতে বিপরীত হচ্ছে। বিএনপির বোকামির জন্য বেগম জিয়ার সম্মানহানি হচ্ছে।c

এই বিভাগের আরো খবর