শনিবার   ২৩ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৮ ১৪২৬   ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
সরকার আলেমদের সঙ্গে নিয়ে দেশের উন্নয়ন করতে চায়: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী নরসিংদীর এমপি বুবলীকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার চালের বাজার অস্থিতিশীল করলে কাউকে ছাড় নয়: খাদ্যমন্ত্রী ভারত মুক্তিযুদ্ধের সময় পাশে ছিল তা ভুলিনি: প্রধানমন্ত্রী চিকিৎসকদের নৈতিক শিক্ষা খুবই প্রয়োজন: পরিকল্পনামন্ত্রী আ’লীগে অনুপ্রবেশকারী-সন্ত্রাসীদের স্থান নাই: শিল্পমন্ত্রী সামাজিক মাধ্যমে গুজব বন্ধে বিধিমালা হচ্ছে- তথ্যমন্ত্রী শুক্রবারের মধ্যে যান চলাচল স্বাভাবিক হবে: কাদের ঘণ্টা বাজিয়ে খেলার উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সশস্ত্র বাহিনীকে গড়ে তোলা হবে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে সশস্ত্র বাহিনীকে কাজ করার আহ্বান আজ বরিশালে জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে যুদ্ধ জাহাজ সড়ক পরিবহন আইনের অসঙ্গতি দূর করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ‘বিএনপি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুজব সৃষ্টি করছে’- কাদের অনার্স ২য় বর্ষের ২৫ নভেম্বরের পরীক্ষা স্থগিত কোন অপপ্রচারে কান না দিতে জনগণের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান ‘গোলাপি’ যাত্রা রাঙ্গাতে কাল মাঠে নামছে বাংলাদেশ সারাবিশ্বে বাংলাদেশ এখন সম্মানের দেশ: প্রধানমন্ত্রী আগৈলঝাড়ায় প্রতিবন্ধি শিশু ধর্ষণ, এক ঘন্টার মধ্যে ধর্ষক গ্রেফতার সশস্ত্র বাহিনী দিবসের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী
৫৯

ক্যাম্পাসের বটতলায় গায়ে হলুদ!

প্রকাশিত: ৬ নভেম্বর ২০১৯  

 

বাঁশের ডালা, কুলা, চালুন ও মাটির সরা, ঘড়া, মটকা, কলাগাছের গেটে গ্রামীণ সাজসজ্জায় রঙিন তেকোনা কাগজ দিয়ে বিয়ের বাড়ির আমেজ তৈরির মধ্য দিয়ে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাককানইবি) ফোকলোর বিভাগের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী হাবীবা দিপুর গায়ে হলুদ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

দিপুর বাসা নেত্রকোনা জেলার আটপাড়ায় এবং পাত্রের বাসা মদনে। সমাজসেবা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা মুহিব্বুল্লাহ হক লালনের সঙ্গে পারিবারিক ভাবে বিয়ে ঠিক হয়েছে দিপুর। বিয়ের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ১৪ নভেম্বর।

মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুদ্বীপের বটতলায় কনের সহপাঠীদের আয়োজনে দিপুর গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান শুরু হয়। বন্ধুবান্ধব ছাড়াও বিভাগের সিনিয়র-জুনিয়রদের পাশাপাশি এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিভাগীয় প্রধান সহকারী অধ্যাপক সাকার মুস্তাফা ও মেহেদী উল্লাহ।

বান্ধবী আসমাউল হুসনা শান্তা বলেন, ‘বিয়েতে সবার পক্ষে ওর বাড়িতে যাওয়া সম্ভব না তাই বান্ধবীর বিয়ের মজা করার জন্য ক্যাম্পাসে এই হলুদের ব্যতিক্রমী আয়োজন। বান্ধবীর ভবিষ্যত দাম্পত্য জীবনের জন্য সবার শুভকামনা জানানোই এই আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য ছিল।’

সাজসজ্জা নিয়ে কনের অপর বান্ধবী সেঁজুতি ধর জানান, ‘ফোকলোরের শিক্ষার্থী হিসেবে আমরা গায়ে হলুদ লোকাচারটি চিরায়ত বাংলার যথাযথ আঙ্গিকে ফুটিয়ে তুলতে চেয়েছি। ছিল দেশীয় খাবারের সমাহার।’

এই বিভাগের আরো খবর