সোমবার   ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯   ভাদ্র ৩১ ১৪২৬   ১৬ মুহররম ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
আ. লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা ১৮ সেপ্টেম্বর বরিশাল নগরীতে আসছে স্মার্ট এলইডি লাইটিং বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপের জন্মদিন আজ আজ থেকে ট্রাকে পেঁয়াজ বিক্রি করবে টিসিবি বিশ্ব ওজন দিবস আজ শিগগিরই বন্দর-ট্রেনে যুক্ত হচ্ছে ত্রিপুরা-বাংলাদেশ দিল্লিতে শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠক ৫ অক্টোবর সারাদেশে ৭৫ প্রতিষ্ঠানকে পাঁচ লক্ষাধিক টাকা জরিমানা প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের ফল প্রকাশ এ পি জে আব্দুল কালাম স্মৃতি পুরস্কারে ভূষিত শেখ হাসিনা টস হেরে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ বরিশালকে যানজট মুক্ত রাখতে কাজ করছে ট্রাফিক সদস্যরা- ডিসি ট্রাফিক সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করুন : প্রধানমন্ত্রী বরিশালে কাজী নজরুল ইসলামের ৪৩তম প্রয়াণ বার্ষিকী অনুষ্ঠিত রাজশাহীর পুলিশ একাডেমিতে কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী গণপরিবহনে মাসিক বেতনে চালক নিয়োগের নির্দেশ হাইকোর্টের সারদার পথে প্রধানমন্ত্রী হাজিদের দেশে ফেরার শেষ ফ্লাইট আজ আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবস আজ শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইনস্টিটিউটের কার্যক্রম আজ শুরু
১২

ক্যান্সার প্রতিরোধকারী আলু ‘নীলকণ্ঠ’ আসছে বাজারে

প্রকাশিত: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

 


ভারতের শিমলার কুফরি নামক গবেষণাকেন্দ্রের বিজ্ঞানীরা সম্প্রতি ‘কুফরি নীলকণ্ঠ’ জাতের আলু উৎপাদন করেছেন । রঙ বেগুনি। খেতে সুস্বাদু। আবার স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারি। এই আলু মোকাবিলা করতে পারবে ক্যান্সার রোগ।

ভারতে ওই জাতের আলু প্রথম উৎপাদন হলেও বিদেশের বাজারে এমন আলু এরই মধ্যে চলে এসেছে। আলু গবেষণা কেন্দ্রের প্রধান বিজ্ঞানী ও বিভাগীয় প্রধান ড. নরেন্দ্র কুমার পান্ডে বলেন, প্রায় ১২ বছর ধরে কঠোর পরিশ্রমের পর বিজ্ঞানীদের পক্ষে এই জাতের আলু উৎপাদন করা সম্ভব হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, এই জাতের আলুতে এমন উপাদান রয়েছে, যা ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সহায়ক। এছাড়াও এই ‘নীলকণ্ঠ’ আলু অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট।

তিনি আরো বলেন, বর্তমানে সারা ভারতে আলু চাষে মন্দার একটি প্রধান কারণ হলো, আলু চাষে জুলসা রোগ। এই আলু জুলসা রোগ প্রতিরোধক। ফলে চাষিদের এই আলু চাষের সময় কোনোরকম স্প্রে কিংবা রাসায়নিক দেওয়ার দরকার পড়বে না।

তিনি আরো বলেন, এই বিশেষ বৈশিষ্টের কারণেই ‘নীলকণ্ঠ’ রাসায়নিক মুক্ত। অন্যদিকে কৃষকদের চাষের খরচও কমবে। ভারতে এতদিন দুই ধরনের আলু ছিল। একটি সাদা খোসার জাতের আলু, অন্যটি লাল খোসার আলু। এই আলুটি বেগুনি রঙের।

এই আলুর চাষ কৃষকদের পক্ষেও লাভজনক। এই আলুর উৎপাদন ক্ষমতা হেক্টর প্রতি ৩৫ থেকে ৩৮ টন। উত্তর ভারতের আবহাওয়ায় ওই আলুর চাষ ভালো হবে। এছাড়াও পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ ও মধ্যপ্রদেশেও ভালো ফলন হবে।