• মঙ্গলবার   ২২ জুন ২০২১ ||

  • আষাঢ় ৯ ১৪২৮

  • || ১১ জ্বিলকদ ১৪৪২

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
মঙ্গলবার থেকে সাত জেলায় লকডাউন, বন্ধ গণপরিবহন সেনাবাহিনীর অপারেশনাল সক্ষমতা বেড়েছে: প্রধানমন্ত্রী একসঙ্গে ঘর পেল ৫৩ হাজার অসহায় পরিবার, বিশ্বে নজিরবিহীন বিশ্ব শান্তি সূচকে সাত ধাপ এগোলো বাংলাদেশ ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠনে অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলেন রাষ্ট্রপতি বিধিনিষেধ বাড়লো আরো এক মাস সুন্দরবনের আয়তন ও বাঘের সংখ্যা বেড়েছে: প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়নে যেন কোনোভাবেই সুন্দরবন ক্ষতিগ্রস্ত না হয় রাষ্ট্রপতি কাজাখ রাজধানীতে ওআইসি সম্মেলনে ভার্চুয়ালি যোগ দিবেন এসএসএফের দক্ষতা বৃদ্ধিতে সুযোগ সৃষ্টি করে দিচ্ছি : প্রধানমন্ত্রী একটা করে বনজ, ফলজ ও ভেষজ গাছ লাগান: প্রধানমন্ত্রী করোনায় কোনো রকম রিস্ক না নিতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী এয়ার মার্শাল র‌্যাঙ্ক ব্যাজ পরলেন নতুন বিমানবাহিনী প্রধান স্কুল-কলেজে ছুটি আবার বাড়ল গণতন্ত্রের মুক্তি দিবস ১১ জুন মডেল মসজিদের মাধ্যমে ইসলামের মর্মবাণী বুঝবে মানুষ ইসলাম আমাদের মানবতার শিক্ষা দিয়েছে : প্রধানমন্ত্রী খুন করে কি বেহেশতে যাওয়া যায়, প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্ন ‘লেবাস নয়, ইনসাফের ইসলামে বিশ্বাস করি’ একযোগে ৫০ মডেল মসজিদ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

করোনা থেকে রক্ষা পেতে সকল রাষ্ট্রকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ৯ জুন ২০২১  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘বিশ্ব এ্যাক্রেডিটেশন দিবস ২০২১’ উদযাপন দেশের জাতীয় মান অবকাঠামো উন্নয়ন, জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জন, সকলের জন্য নিরাপদ খাদ্য, গুণগত মানসম্পন্ন ঔষধ এবং প্রতিষেধক নিশ্চিত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

বুধবার বিশ্ব এ্যাক্রেডিটেশন দিবস উপলক্ষে দেয়া এক বাণীতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভিন্ন একটি প্রেক্ষাপটে এ বছর দিবসটি পালিত হচ্ছে। প্রতিনিয়ত করোনা ভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট এর সংক্রমণ এবং বিস্তৃতি বিশ্বব্যাপী ভয়াবহ আকার ধারণ করছে। এর ভয়াল থাবা থেকে রক্ষা পেতে উন্নত এবং উন্নয়নশীল নির্বিশেষে সকল রাষ্ট্রকে ভেদাভেদ ভুলে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন ‘আমি আশা করি, ‘বিশ্ব এ্যাক্রেডিটেশন দিবস ২০২১’ উদযাপন দেশের জাতীয় মান অবকাঠামো উন্নয়ন, জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জন, সকলের জন্য নিরাপদ খাদ্য, গুণগত মানসম্পন্ন ঔষধ এবং প্রতিষেধক নিশ্চিত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।’

তিনি বলেন,“বিশ্ব এ্যাক্রেডিটেশন দিবস ২০২১’ উদযাপন করা হচ্ছে জেনে তিনি আনন্দিত। এ উপলক্ষে বাংলাদেশ এ্যাক্রেডিটেশন বোর্ড (বিএবি) এর সকল অংশীজন এবং উন্নয়ন সহযোগী সংস্থাকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান প্রধানমন্ত্রী। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ‘এ্যাক্রেডিটেশন: সাপোটিং দ্যা ইমপ্লেমানটেসান অভ দ্যা সাসটেইনবল ডেভোলাপমেন্ট গোলস”’ বর্তমান বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে সময়োপযোগী হয়েছে বলে মনে করেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, পণ্য ও সেবার গুণগত মান নিশ্চিতকরণ, পরিবেশ দূষণ হ্রাস, নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতকরণ, নিরাপদ খাদ্যব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ঝুঁকি মোকাবিলা, গুণগত মানসম্পন্ন জীবনরক্ষাকারী ঔষধ এবং প্রতিষেধক উৎপাদন ও সরবরাহের মতো জনগুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ করছে।

এ সকল কর্মকান্ডের মাধ্যমে বিএবি ‘টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট-২০৩০’ বাস্তবায়নে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সহায়ক ভূমিকা রাখছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘দেশে উৎপাদিত এবং বিএবি এ্যাক্রেডিটেশন ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষিত গুণগত মানসম্পন্ন ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী (মাস্ক ও অন্যান্য) দেশের অভ্যন্তরে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে এবং বিদেশেও প্রচুর রপ্তানি হচ্ছে। যা দেশের অভ্যন্তরীণ বাজারসহ রপ্তানি বাণিজ্য সম্প্রসারণে সহায়ক ভূমিকা পালন করছে।’

প্রধানমন্ত্রী ‘বিশ্ব এ্যাক্রেডিটেশন দিবস ২০২১’- এর সার্বিক সাফল্য কামনা করেন।- বাসস