• সোমবার   ০১ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৮ ১৪২৭

  • || ০৯ শাওয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
খাদ্য উৎপাদন আরও বাড়াতে সব ধরনের প্রচেষ্টা চলছে: কৃষিমন্ত্রী সারা দেশকে লাল, সবুজ ও হলুদ জোনে ভাগ করা হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২৩৮১ জনের করোনা শনাক্ত পুরোপুরি স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেন চলছে: রেলমন্ত্রী দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৫৪৫ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ৪০ জন বাস ভাড়া যৌক্তিক সমন্বয়, প্রজ্ঞাপন আজই: ওবায়দুল কাদের এখনই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবো না: প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে এসএসসির ফল প্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল ১২টার পরিবর্তে ১১টায় প্রকাশ হবে এসএসসির ফল করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ২৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৭৬৪ পদ্মাসেতুর সাড়ে ৪ কি.মি. দৃশ্যমান, বসল ৩০তম স্প্যান পদ্মা সেতুর ৩০তম স্প্যান বসছে আজ একদিনে সর্বোচ্চ আড়াই হাজার শনাক্ত, মৃত্যু ২৩ জনের বিকেল ৪টার মধ্যে বন্ধ করতে হবে দোকান-শপিংমল দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২ হাজার ছাড়ালো, মৃত্যু ১৫ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৩১ মে থেকে গণপরিবহন চালুর সিদ্ধান্ত দেশে একদিনে নতুন শনাক্ত ১৫৪১, মৃত্যু ২২ জীবন বাঁচাতে জীবিকাও সচল রাখতে হবে: কাদের ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৮৭৩ জন শনাক্ত, মৃত্যু আরও ২০ জনের র‌্যাব-৮ এর অভিযানে মাদারীপুর থেকে জেএমবি’র সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার
২২৩

করোনায় বিপর্যস্ত মানবজাতি, তবে সেরে উঠছে পৃথিবী

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৮ মার্চ ২০২০  

 


বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) বিপর্যয়ের সম্মুখীন গোটা মানবজাতি। ক্রমেই বিস্তৃতি ঘটছে এটির। আর এর ফলে প্রতিনিয়তই বাড়ছে আক্রান্ত মানুষ ও প্রাণহানীর সংখ্যা। ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে বিশ্বের বেশির ভাগ দেশেই জনগণকে ঘর থেকে বের হওয়ার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এছাড়া বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে স্কুল-কলেজ, বিনোদন কেন্দ্র, বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ও কলকারখানাও। এর ফলে বড় ধরনের ধাক্কা খেয়েছে বৈশ্বিক অর্থনীতি। তবে অর্থনৈতিক দিক থেকে বিশ্ব বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হলেও উপকৃত হচ্ছে বিশ্বের পরিবেশ।
সম্প্রতি এক সমীক্ষায় দেখা গেছে যে, লোকজন ঘর থেকে বের না হওয়ায় ও শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকায় বিশ্বে পরিবেশ দূষণের হার অনেকটাই কমে এসেছে। এছাড়া সেরে উঠছে বায়ু মণ্ডলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ স্তর ওজোন- এর ক্ষতও।

সূর্য থেকে আসা আলোর ফলে পৃথিবীতে প্রাণের সঞ্চার হয়। তবে এই আলোর সঙ্গে সেখান থেকে অতি বেগুনি রশ্মিসহ আরো অনেক ক্ষতিকর আলোক রশ্মিও চলে আসে, যা পৃথিবীতে থাকা বিভিন্ন প্রাণীর জন্য মারাত্মক হুমকি হয়ে দাঁড়ায়।

তবে এই ক্ষতিকর আলোক রশ্মিগুলোকে শোষণ করে নেয় ওজোন স্তর, এছাড়া শুষে নেয় কার্বন-ডাই-অক্সাইডও। এর মাধ্যমে পৃথিবীকে ও পৃথিবীর সব প্রাণকে রক্ষা করে এটি। কিন্তু ক্রমবর্ধমান পরিবেশ দূষণ ও ক্ষতিকর সিএফসি গ্যাসের ব্যবহারের ফলে ক্রমেই ক্ষয় হচ্ছিলো এই স্তরটি, যার ফলে পৃথিবীতে প্রবেশ করছিলো ক্ষতিকর সব রশ্মি, বাড়ছিলো কার্বন-ডাই-অক্সাইডের পরিমাণও। এর ফলশ্রুতিতে বিশ্বের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাওয়াসহ নানা ধরণের প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের ঘটনা ঘটছিলো।

কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে ধীরে ধীরে সেরে উঠছে ওজোন স্তরের সেই ক্ষত। ওজোন স্তর ও বিশ্বের পরিবেশ নিয়ে এই সমীক্ষাটি পরিচালণা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের কলোরোডা বিশ্ব বিদ্যালয়ের একদল গবেষক, যার নেতৃত্ব দিয়েছেন অন্তরা ব্যানার্জি।

গবেষণাটিতে দাবি করা হয়েছে যে, ওজোন স্তরকে রক্ষায় ১৯৮৭ সালে স্বাক্ষরিত মন্ট্রিয়াল চুক্তির সঙ্গে বর্তমান পরিস্থিতি যোগ হওয়ায় বহু বছর ধরে এর যে ক্ষতি হয়ে আসছিলো, তা পুষিয়ে যাচ্ছে। এই ধরনের পদক্ষেপ যদি আমরা গ্রিন হাউস গ্যাস নিস্বরণের ক্ষেত্রেও নেই, তবে পৃথিবী অনেকটাই দূষণ মুক্ত হয়ে উঠবে।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর