বুধবার   ১৬ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ১ ১৪২৬   ১৬ সফর ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
একাদশ সংসদের পঞ্চম অধিবেশন শুরু ৭ নভেম্বর যেখানে দুর্নীতি-টেন্ডারবাজি সেখানে অভিযান- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ন্যাম সম্মেলনে যোগ দিতে বাকু যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী রিফাত হত্যা : প্রধান আসামির জামিন নামঞ্জুর বিএসএমএমইউয়ে বিশ্ব অ্যানেসথেসিয়া ও মেরুদণ্ড দিবস পালিত মুন্সিগঞ্জের ১৩টি সেতু উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেসের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী সরকারের ধারাবাহিকতার কারণেই উন্নয়ন প্রকল্প গতিশীল: প্রধানমন্ত্রী আজ কম্বোডিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ বিশ্ব অ্যানেসথেসিয়া দিবস আজ মিনিস্ট্রিয়াল কনসালটেশনে যোগ দিতে আমিরাতে প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী বিশ্ব খাদ্য দিবস আজ নিরাপদ খাদ্য নি‌শ্চিত করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর বরিশালে ২৭ জেলের জেল-জরিমানা কখন গোসল করা ভালো, সকালে না রাতে? জনপ্রশাসনের ৬ কর্মচারী মাসের সেরা কর্মী নির্বাচিত নতুন প্রজন্মকে পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়ার আহ্বান দেশের প্রথম বাণিজ্যিক সৌর প্লান্টের উৎপাদন শুরু পাকিস্তান সফরে প্রিন্স উইলিয়াম ও কেট মিডলটন বদলে গেল বাংলা বর্ষপঞ্জি, বুধবার ৩১ আশ্বিন
৩০

এমপিওভুক্ত হচ্ছেন তৃতীয় শিক্ষকরা

প্রকাশিত: ৮ অক্টোবর ২০১৯  

দেশের বেসরকারি কলেজগুলোতে বিনা বেতনে কিংবা সামান্য বেতনে চাকরি করা তৃতীয় শিক্ষকদের এমপিওভুক্ত করার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। এ বছরেই সারাদেশ থেকে হাজারেরও বেশি এসব তৃতীয় শিক্ষককে এমপিওভুক্ত করা হবে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যক্রম অনুসারে, ডিগ্রি কোর্সে একটি বিষয়ে তিনজন শিক্ষক পাঠদান করাবেন। কিন্তু মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর কলেজগুলোতে একই বিষয়ে কেবল দুই জন শিক্ষককে এমপিওভুক্ত করে থাকে। ফলে বাকি এক জন শিক্ষকের বেতন-ভাতা কলেজ তহবিল থেকে পরিশোধ করতে হয়। এদেরকেই বলা হয় তৃতীয় শিক্ষক।

মাউশির ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বলছে, এবার এসব শিক্ষকরাও সরকারি বেতন ভাতার আওতায় আসবেন।

মাউশি মহাপরিচালক সৈয়দ গোলাম ফারুক বলেন, তৃতীয় শিক্ষকদের এমপিওভুক্ত করার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। এদিকে এমপিওভুক্ত করতে বছরে কি পরিমাণ অর্থ ব্যয় হবে সে ব্যাপারেও একটি সুস্পষ্ট ধারণা পাওয়া গেছে। এ বছরের মধ্যে এ ব্যাপারে একটি সিদ্ধান্ত পাওয়া যেতে পারে।

মাউশি সূত্রে জানা গেছে, ডিগ্রি কলেজের জনবল কাঠামো-২০১০ নীতিমালা প্রকাশের পরে বিধি অনুযায়ী সারাদেশে ৮৪১ জন তৃতীয় শিক্ষক নিয়োগ পেয়েছেন। চলতি বছরে তাদেরকে এমপিওভুক্ত করার কথা চলছে। এজন্য বছরে ২৫ থেকে ৩০ কোটি টাকা খরচ করবে সরকার।

তৃতীয় শিক্ষকদের মধ্যে ২০১৩ ও ২০১৫ সালের অক্টোবরের আগে যারা নিয়োগ পেয়েছিলেন তাদেরকেই এমপিওভুক্ত করা হবে বলে মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে। এমন শিক্ষকের সংখ্যা ১ হাজার ১২০ জন। এই সময়ের পর নিয়োগ পাওয়া কয়েকশো শিক্ষককে এমপিওভুক্ত করা হবে না।

তবে ২০১৫ সালের পরও যারা বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ বা এনটিআরসিএর মাধ্যমে নিয়োগ পেয়েছেন তারা এই ধাপে এমপিওভুক্তির জন্য বিবেচিত হবেন।

এ ব্যাপারে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব সোহরাব হোসাইন বলেন, শিক্ষক বান্ধব বেশ কিছু কাজ এখন মন্ত্রণালয়ে দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে। এরমধ্যে এমপিওভুক্তি, প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষক সরকারিকরণসহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ কাজ রয়েছে। তৃতীয় শিক্ষকদের এমপিওভুক্তির বিষয়টিও প্রক্রিয়াধীন। এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের পরবর্তী সভায় আলোচনা হবে। 

এই বিভাগের আরো খবর