• বুধবার   ০৩ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৮ ১৪২৭

  • || ১৯ রজব ১৪৪২

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
১০ বছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে শীর্ষে বাংলাদেশ: অর্থমন্ত্রী মানুষকে খাদ্য সরবরাহ-সময়মতো ভ্যাকসিন দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৭, শনাক্ত ৫১৫ মুক্তিযুদ্ধকে অসম্মান করেছে বিএনপি: সেতুমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর নীতির ভিত্তিতেই বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতি: ড. মোমেন প্রেস ক্লাবের সংঘর্ষে ছাত্রদলের ১৩ জন রিমান্ডে ঢাবির ১২ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কার দেশবিরোধী একটি মহল সরকার হটানোর ষড়যন্ত্র করছে: কাদের করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৮, শনাক্ত ৫৮৫ মুশতাকের মৃত্যুর কারণ তদন্তে বেরিয়ে আসবে: তথ্যমন্ত্রী আজ থেকে ২ মাস ইলিশ আহরণ নিষিদ্ধ দেশে কোনো গরিব মানুষ থাকবে না : তথ্যমন্ত্রী বেসরকারি চিকিৎসা সেবা ব্যয় নির্ধারণ শিগগিরই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাটকা সংরক্ষণে কাল থেকে ৬ জেলায় মাছ ধরা নিষিদ্ধ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৮, শনাক্ত ৩৮৫ আমরা শিক্ষিত ও দক্ষ মানবসম্পদ গড়তে বদ্ধপরিকর: প্রধানমন্ত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ৬০ কর্মদিবস পর পরীক্ষা: শিক্ষামন্ত্রী এ এক বদলে যাওয়া বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের কৃতিত্ব নতুন প্রজন্মের : প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৫, শনাক্ত ৪০৭

এবার যেন গণনা থেকে বাদ না পড়ি: পরিসংখ্যান সচিব

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৮ জানুয়ারি ২০২১  

জনশুমারি কার্যক্রমে যাতে কেউ বাদ না পড়ে সে ব্যাপারে পরিসংখ্যান কর্মকর্তাদের নিষ্ঠার সাথে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব ইয়ামিন চৌধুরী।  

সোমবার (১৮ জানুয়ারি) সকালে আগারগাঁওয়ে পরিসংখ্যান ব্যুরো কার্যালয়ে জনশুমারি বিষয়ক প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। 

এ সময় নিজের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে পরিসংখ্যান সচিব বলেন, জনশুমারি গণনায় মাঠ পর্যায়ের কর্মীদের গাফলতিতে অনেকই বাদ পড়ে। ২০১১ সালের জনশুমারি গণনা থেকে আমি নিজেই বাদ পড়েছিলাম। এবার যেন না পড়ি। অনেকেই ভালো কাজ করে। কিন্তু দু-একজন ভুল তথ্য দিলে পুরো কার্যক্রমই প্রশ্নবিদ্ধ হয়। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এম মান্নান, জনশুমারি ও গৃহগণনা কার্যক্রম পরিচালনা করতে তথ্য ও কেনাকাটা কোনটাই যেন অনিয়ম কিংবা অর্থের অপচয় যেন না হয় সেদিকে নজর রাখার নির্দেশ দেন। 

পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, আগে তথ্যের জন্য মানুষ বিশ্বব্যাংকের কাছে যেত, এখন তথ্যের জন্য বিশ্বব্যাংকই পরিসংখ্যান ব্যুরোর কাছে আসে। এই সুনাম ধরে রাখার তাগিদ দেন তিনি।

এ সময় নির্বাচন কমিশনে কাজ করার অভিজ্ঞতা তুলে ধরে পরিকল্পনা মন্ত্রী আরও বলেন, আমার নির্বাচন কমিশনে কিছুদিন কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। আমি দেখেছি প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রচুর কেনাকাটা করা হতো। যার সবটা কাজে লাগতো না। এতে নানা অনিয়ম এমনকি রাষ্ট্রীয় অর্থের প্রচুর অপচয় হতো। প্রয়োজনীয় অর্থ ব্যয়ে কার্পণ্য না করতে পরিসংখ্যান কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন এম এ মান্নান। তবে অপচয় কিংবা অনিয়ম না করার আহ্বান জানান তিনি। 

জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২১ কার্যক্রম চারটি ধাপে সম্পন্ন হবে বলেও অনুষ্ঠানে জানানো হয়। এ সময়, পরিসংখ্যান ব্যুরোর মহাপরিচালক তাজুল ইসলামসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, আগামী ২৩ জানুয়ারি থেকে জনশুমারি ও গৃহগণনার জোনাল অপারেশন-এক এর মাঠ পর্যায়ের তথ্য সংগ্রহ কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। যা চলবে ১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।