শনিবার   ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৯ ১৪২৬   ১৬ রবিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
বিশ্বের প্রভাবশালী ১০০ নারীর তালিকায় শেখ হাসিনা বরিশালে ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস উদযাপন আজকের নবীন কর্মকর্তারাই হবেন ৪১ সালের সৈনিক : প্রধানমন্ত্রী ঘুষ-দুর্নীতির বিরুদ্ধে সজাগ থাকার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারে দায়িত্বশীল হতে হবে: স্পিকার বয়স্ক বাবা-মাকে না দেখলে জেল চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোতে যারা ফখরুল-রিজভীসহ ১৩৫ জনের বিরুদ্ধে দুই মামলা আগৈলঝাড়ায় ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস পালন  সবার জন্য উন্মুক্ত থাকছে ‘কনসার্ট ফর ডিজিটাল বাংলাদেশ’ এসক্যাপ অধিবেশনে যোগ দিতে শেখ হা‌সিনা‌কে আমন্ত্রণ কৃষি আধুনিক হলেই মাথাপিছু আয় বাড়বে: কৃষিমন্ত্রী ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস আজ মাওলানা ভাসানীর জন্মবার্ষিকী আজ ববি শিক্ষক সমিতির নির্বাচন : সভাপতি আরিফ-সম্পাদক খোরশেদ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিলো সুখী সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ার কাল নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকতে বললেন ওবায়দুল কাদের ‘ফুড চেইনের মাধ্যমে প্লাস্টিক শরীরে প্রবেশ করছে’ বিশাল জয়ে শুরু কুমিল্লার বঙ্গবন্ধু বিপিএল মিশন টাইম ম্যাগাজিনের ‘পারসন অব দ্য ইয়ার’ গ্রেটা থানবার্গ
১০৮

এবারও জানুয়ারিতে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ!

প্রকাশিত: ১৮ নভেম্বর ২০১৯  

২০১৮ ও ২০১৯ সালের জানুয়ারি মাসে দেশের তাপমাত্রা রেকর্ড গড়ে ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমেছিল। এবারও সে আভাস দিচ্ছে আবহাওয়ার গতি-প্রকৃতি।

আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, জানুয়ারিতে অন্তত দু’টি তীব্র শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে দেশের ওপর দিয়ে। তাপমাত্রা ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নামলে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ হিসেবে ধরা হয়।

এছাড়া দু থেকে তিনটি মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহের আভাস রয়েছে।

প্রবাদ আছে ঊনো বর্ষায় দুনো শীত। অর্থাৎ, যে বছর বৃষ্টি কম, সে বছর শীত বেশি। প্রকৃতি যদি এই মেনে চলে তাহলেও এবার শীত বেশি হওয়ারই কথা। কেননা, এবারের বর্ষা মৌসুমে তুলনামূক কম বৃষ্টিপাত হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদফতরের উপ-পরিচালক মাহনাজ খান জানান, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরের শেষার্ধে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে এক থেকে দু’টি মৃদু অথবা মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। আর রাতের শেষ থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের উত্তরাঞ্চল ও নদ-নদী অববাহিকায় মাঝারি অথবা ঘন কুয়াশা এবং অন্যত্র হালকা কুয়াশা পড়তে পারে।

অন্যদিকে জানুয়ারি মাসে দেশের ওপর দিয়ে দুই থেকে তিনটি মৃদু থেকে মাঝারি এবং দু’টি তীব্র শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। আর রাতের শেষ থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের উত্তরাঞ্চল, উত্তর-পূর্বাঞ্চল, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে এবং নদ-নদী অববাহিকায় মাঝারি অথবা ঘন কুয়াশা এবং অন্যত্র হালকা কুয়াশা পড়তে পারে।

ইতোমধ্যে পূর্বাভাসটি কৃষি মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট সব দফতরে পাঠিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

সারাদেশে শীত নেমে এসেছে হিম ছড়িয়ে। প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোতে নামানো হয়েছে শীতের কাপড়ও। ধীরে ধীরেই এটা বাড়ছে।

এদিকে আবহাওয়াবিদ দিলরুবা বেগম কৃষি আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানিয়েছেন, দৈনিক গড় সূর্য কিরণের স্থায়িত্ব গত সপ্তাহের চেয়ে বাড়ছে। পুরো সপ্তাহজুড়ে সূর্য কিরণের স্থায়িত্ব দাঁড়াবে ৬ দশমিক ৫০ ঘণ্টা থেকে ৭ দশমিক ৫০ ঘণ্টা। আর গড় বাষ্পীভবন হবে ২ দশমিক ২৫ মিলিমিটার থেকে ৩ দশমিক ৫০ মিলিমিটার। আর এসময় সারাদেশে বিচ্ছিন্নভাবে হালকা কুয়াশা পড়বে।

 

এই বিভাগের আরো খবর