শুক্রবার   ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৬   ০৮ রবিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
দেশ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণের পথে এগিয়ে চলছে: তথ্যমন্ত্রী বিএনপিপন্থিদের হট্টগোল কলঙ্কজনক-আদালত অবমাননা অন-অ্যারাইভাল ভিসাসহ বাংলাদেশ-ভারতের নৌপথে খুলছে অনেক জট ‘বিশ্বসুন্দরী’র রোমান্টিক গান নিয়ে হাজির সিয়াম-পরী মেয়েদের রৌপ্য, বাকী জিতেছেন ব্রোঞ্জ আইনজীবী তালিকাভুক্তি নিবন্ধন পরীক্ষা ২৮ ফেব্রুয়ারি পদক পাচ্ছেন ডিজিসহ বিজিবির ৬০ সদস্য আখেরাতের জীবন চিরস্থায়ী ডাক ও টেলিযোগাযোগের নতুন সচিব নূর-উর রহমান অপরাধীদের স্থান আওয়ামী লীগে নেই: ওবায়দুল কাদের গৌরনদীতে প্রান্তিক চাষীদের মাঝে বিনা মুল্যে সার ও বীজ বিতরন হ‌লি আ‌র্টিজান মামলার ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্রের বিরুদ্ধে একজোট হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রসহ ইউরোপ কিডনি দান করা যাবে, কেনাবেচা যাবে না: হাইকোর্ট বাংলাদেশে কোনো আর্থিক সংকট নেই: স্পিকার টেলিযোগাযোগ বিভাগে নতুন সচিব, ট্যারিফ কমিশনে চেয়ারম্যান গণতন্ত্র এখন মজবুত ভিতের ওপর প্রতিষ্ঠিত: রাষ্ট্রপতি বাড়াবাড়ির একটা সীমা থাকা দরকার: প্রধান বিচারপতি তরুণদের মেধাশ্রম মানব কল্যাণে ব্যয় করার আহ্বান বিএনপির কাছে কোনো প্রতিষ্ঠান নিরাপদ নয়: আইনমন্ত্রী
৪৮

এবছর হজের খুতবা দেবেন যিনি

প্রকাশিত: ৯ আগস্ট ২০১৯  

 

এবারের হজে খুতবা দেওয়ার দায়িত্ব পেয়েছেন সৌদি আরবের বিশিষ্ট আলেম, শায়খ মুহাম্মদ বিন হাসান আলে  আশ-শায়খ। তিনি সৌদি আরবের সর্বোচ্চ ওলামা পরিষদ এবং গবেষণা-মুফতি বোর্ডের সদস্য। পাশাপাশি খাদেমুল হারামাইন শরিফাইন হাদিস কমপ্লেক্সর পরিচালক।

শনিবার (১০ আগস্ট) ঐতিহাসিক আরাফার ময়দানে অবস্থিত মসজিদে নামিরায় তিনি এবছরের হজের খুতবা দেবেন। ধারাবাহিকতায় তিনি সৌদির দশ নম্বর হজের খতিব। সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিয ইতোমধ্যে এ সংক্রান্ত একটি রাজকীয় ফরমান জারি করেছেন, যা বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমগুলোতে প্রকাশ হয়েছে।

শায়খ মুহাম্মাদ বিন হাসান বর্তমান বিশ্বে হাদিস ও তাফসিরশাস্ত্রের অন্যতম প্রাজ্ঞ-পণ্ডিত আলেমে দীন। প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পড়াশোনা সম্পন্ন করেন। এরপর ইমাম মুহাম্মদ বিন সাউদ আল-ইসলামিয়া ইউনিভার্সিটির শরিয়াহ অনুষদ থেকে অনার্স সম্পন্ন করেন। এরপর উচ্চতর বিচারব্যবস্থা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে মাস্টার্স সম্পন্ন করেন।

প্রায় দশ বছর তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শরিয়াহ অনুষদে লেকচাচার হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন। এরপর শীর্ষস্থানীয় আদেশের মাধ্যমে উচ্চতর গবেষণা ও ফতোয়া বিভাগের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত ফতোয়া বোর্ডের সদস্যপদ লাভ করেন ১৯৯৮ সালে। এর পাঁচ বছর পর রাজকীয় আদেশে সৌদি আরবের সর্বোচ্চ ওলামা পরিষদের সদস্য হন। এছাড়াও তিনি সৌদি আরবের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বোর্ড-পরিষদের সদস্য।

এই বিভাগের আরো খবর