সোমবার   ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১১ ১৪২৬   ২৯ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
পতাকার মর্যাদা ধরে রাখতে সেনা সদস্যদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান জুয়ার আসর থেকে আটক ২৬ দুই ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের সহযোগী র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার দৃশ্যমান পদ্মা সেতুর পৌনে চার কিলোমিটার সারা দেশে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত ইংরেজি উচ্চারণে বাংলা বলার সমালোচনা প্রধানমন্ত্রীর উন্নত দেশ গড়তে বেসরকারি সহযোগিতা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুজিববর্ষে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের ভণ্ডপীরসহ ৯ জনের কারাদণ্ড প্রধানমন্ত্রী সব সময় শিক্ষাকে গুরুত্ব দেন: পরিকল্পনামন্ত্রী মুজিব বর্ষে নতুন শিল্প কারখানা স্থাপন করা হবে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী আসন্ন সেচ মৌসুমে লোডশেডিংয়ের শঙ্কা নেই : বিদ্যুৎ বিভাগ একুশে পদক হাতে তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস শুক্রবার একুশে পদক মেধা ও মনন চর্চার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করবে : রাষ্ট্রপতি আজ একুশে পদক প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী এনামুল বাছিরের পদোন্নতির আবেদন হাইকোর্টে খারিজ জাপানের সঙ্গে জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী সমৃদ্ধ দেশ গড়তে সুস্থ যুব সমাজের বিকল্প নেই : প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ
১৪

এত সুন্দরভাবে নির্বাচন হচ্ছে কীভাবে: ইসি সচিব

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৭ জানুয়ারি ২০২০  


  
ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনের আগে কমিশনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নেই বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার। এ প্রসঙ্গে ইসির সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর বলেন, কমিশনের লেভেল ফিল্ড বলতে কী বুঝাতে চেয়েছেন তা জানি না। 

তিনি বলেন, পাঁচজন কমিশনার নিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠিত। তারা বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। অনেক সময় অনেক বিষয়ে একমত হন, আবার অনেক সময় দুই-একজনের দ্বিমত থাকে, পরে আবার একমতও হন। তা হলে না এত সুন্দরভাবে নির্বাচন হচ্ছে কীভাবে? 

রবিবার (২৬ জানুয়ারি) বিকালে নির্বাচন ভবনে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

ইসি সচিব বলেন, অনেক জায়গায় অনেক নির্বাচন হয়েছে। কখনো কী কমিশনের গণ্ডগোলের কারণে, সিদ্ধান্তহীনতার কারণে নির্বাচন হয়নি বা পিছিয়ে গেছে? ইসির কাজ-কর্ম সব ঠিকমতো চলছে।

মাহবুব তালুকদারকে দুই রিটার্নিং কর্মকর্তার তথ্য না দেওয়া প্রসঙ্গে ইসি সচিব বলেন, একজন নির্বাচন কমিশনার রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে তথ্য চাইলে তা দিতে বাধ্য। তা হবে কমিশনের মাধ্যমে। তারা সরাসরি একজন কমিশনারের কাছে জবাবদিহি করতে বাধ্য নয়।

তিনি বলেন, কমিশন সভায় কি আলোচনা হবে তা কমিশন ঠিক করে। কমিশন সচিবালয় তা নথিভুক্ত করে এবং তা প্রধান নির্বাচন কমিশনারের কাছে পাঠায়। সিইসি তা অনুমোদন দিলেই ওই বিষয়ে আলোচনা হয়। এ বিষয়ে কমিশন সচিব হিসেবে আমার বলার কিছু নেই।

আচরণ বিধি প্রসঙ্গে ইসি সচিব বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে গণতান্ত্রিক পরিবেশে বিবেচনায় এগুলোর হয়তো কিছু রিভিউ করার প্রয়োজন হতে পারে। আমিও তা মনে করি। তবে যদি তা কমিশন মনে করে।

আচরণ বিধি সংশোধনের আরও যৌক্তিকতা তুলে ধরে সচিব বলেন, শুধু নির্বাচনের সময় কেন, অন্যান্য সময়ে কোনো দিবস উপলক্ষে শোভাযাত্রা বের হয় তখন পুলিশ রাস্তা বন্ধ করে দেয় না? আমাদের দেশে রাস্তা ন্যারো, মানুষ বেশি। ঘটনাগুলো ইচ্ছা করে ঘটে তা নয়, অনেকটা বাস্তবতা। বাস্তবতার দৃষ্টিতে বিবেচনা করলে তা কঠিন।
নির্বাচনী সহিংসতার বিষয়ে তিনি বলেন, ইশরাকের ওপর হামলার ঘটনা এখনো আমি জানি না। এ ঘটনা রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে গেলে তা খতিয়ে দেখবে। আর রিপোর্ট কমিশনের কাছে আসলে তখন ব্যবস্থা নেবে। কেউ ফৌজদারি অপরাধ করলে সেভাবে বিচার হবে। তবে কমিশন কাউকে জেল-ফাসি দিতে পারে না। প্রার্থিতা বাতিল করতে পারে।

এই বিভাগের আরো খবর