সোমবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৭ ১৪২৬   ২৩ মুহররম ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
বাচ্চাকে মারধর করায় থানা ঘেরাও হনুমানের! জাতীয় নারী দাবায় শীর্ষস্থানে রানী হামিদ ইউজিসির কাঠগড়ায় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ ভিসি ক্যাসিনোতে মিলল ধর্মীয় উপাসনা সামগ্রী! বিজয়নগর সায়েম টাওয়ার থেকে ১৭ জুয়ারী আটক ১৩ নেপালিকে মোটা অংকের বেতনে রাখা হয় জুয়া চালাতে স্পা সেন্টার থেকে আটক ১৬ নারী, ৩ পুরুষ আরও ১০ লক্ষ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান করা হবে- পলক আবুধাবি থেকে নিউইয়র্কের পথে প্রধানমন্ত্রী অজুহাতে কাজ আটকে রাখলে কঠোর ব্যবস্থা: গণপূর্তমন্ত্রী ব্যাংক নোটের আদলে টোকেন ব্যবহার করা যাবে না ঢাকা আসছেন বিশ্ব ব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও জাতিসংঘের দূত খিলক্ষেতে বোমা হামলা: ৫ জেএমবির ১২ বছরের দণ্ড আরামবাগ-দিলকুশা ক্লাবে জুয়ার সরঞ্জাম উদ্ধার ভিক্টোরিয়া ক্লাব থেকে নগদ টাকা ও মদের বোতল উদ্ধার সৌদিতে শিরশ্ছেদ করে ১৩৪ জনের মৃত্যুদণ্ড শিশুদের কোলবালিশের ভেতর থেকে ১০ কেজি গাঁজা উদ্ধার! মতিঝিলে ৪ ক্লাবে পুলিশের অভিযান রিমান্ডে খালেদ ও শামীমের কাছ থেকে চাঞ্চল্যকর তথ্য ঢাকায় বাংলাদেশ-ভারত নৌবাহিনী প্রধানের সাক্ষাত

একীভূত হচ্ছে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক ও রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক

প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক (বিকেবি) ও রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংককে (রাকাব) একীভূত করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে মতামত চেয়ে বাংলাদেশ ব্যাংককে একটি চিঠি দিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়। পাশাপাশি কৃষি ছাড়া ভিন্ন খাতে ঋণ না দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে ব্যাংক দুটিকে। কারণ ইতিমধ্যে অন্য খাতে বড় অংকের ঋণ বিতরণ করেছে এ দুই ব্যাংক। শুধু বিকেবি অকৃষি খাতে ১ হাজার ৩৫ কোটি টাকা ঋণ দিয়েছে।

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রায়ত্ত ও বিশেষায়িত ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের (এমডি) সঙ্গে বৈঠকে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ব্যাংকগুলোকে সেবার মান বাড়াতে বলেন। দুই কৃষি ব্যাংকে অকৃষি খাতে ঋণ না দেয়ার নির্দেশ দেন। বৈঠকের কার্যবিবরণী সূত্রে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

এ প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ‘মুনাফার জন্য নয়, সেবা দেয়ার জন্যই রাষ্ট্রায়ত্ত ও বিশেষায়িত ব্যাংকগুলোকে পরিচালনা করা হচ্ছে। সেবা না দিতে পারলে একীভূত করা হবে। এক্ষেত্রে বিকেবি ও রাকাবকে একীভূত করার বিষয়টি খতিয়ে দেখার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।’

সূত্র জানায়, অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে রাষ্ট্রায়ত্ত ও বিশেষায়িত ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও এমডিদের সঙ্গে বৈঠকে অন্যান্য ব্যাংকের পাশাপাশি বিকেবি ও রাকাবের সার্বিক অবস্থা তুলে ধরা হয়।

বিকেবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আলী হোসেন প্রধানিয়া জানান, গত ২ বছরে এ ব্যাংকে খেলাপি ঋণের হার ৪ শতাংশ কমানো হয়েছে। আর অকৃষি খাতে কৃষি ঋণ বিতরণ করা হয়েছে ১ হাজার ৩৫ কোটি টাকা। আর খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৩ হাজার ৭৪০ কোটি টাকা। বর্তমান ঋণ বিতরণ করা হয়েছে ২২ হাজার কোটি টাকা এবং আমানত রয়েছে ২৫ হাজার ৬০০ কোটি টাকা। বিকেবির মূলধন ঘাটতি হচ্ছে ৮ হাজার কোটি টাকা।

অপরদিকে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের ২০১৯ সালের জুন পর্যন্ত খেলাপি ঋণের পরিমাণ ১ হাজার ৬৭ কোটি টাকা, যা মোট ঋণের ১৯ দশমিক ৫৪ ভাগ। এ ব্যাংকের আমানতের পরিমাণ ৫ হাজার ২০২ কোটি টাকা। এ পর্যন্ত গ্রাহকদের কাছে ঋণ বিতরণ হয়েছে ৫ হাজার ৮৩১ কোটি টাকা।

ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও এমডিদের বৈঠকে অকৃষি খাতে ঋণের সমালোচনা করা হয়। এদিকে অকৃষি খাতের ঋণ নিয়ে চালানো এক জরিপের ফল মে মাসে প্রকাশ করে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)।

জরিপের ফল থেকে জানা যায়, কৃষকরা যে পরিমাণ ঋণ সুবিধা পান, তার ৬৩ শতাংশের জোগান দিচ্ছে এনজিও। মহাজন ও আত্মীয়স্বজন থেকে ধারকর্জ করেন ১০ শতাংশ। মাত্র ২৭ শতাংশ ঋণ যাচ্ছে ব্যাংক খাত থেকে।

সূত্র জানায়, রাষ্ট্রায়ত্ত ও বিশেষায়িত ব্যাংক একীভূত করতে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ একটি তালিকা করেছে। প্রাথমিকভাবে চারটি সরকারি ব্যাংকের নাম অন্তর্ভুক্ত করা হয় ওই তালিকায়।

সেগুলো হচ্ছে- বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক ও বেসিক ব্যাংক। এছাড়া দেশে সরকারি-বেসরকারি-বিদেশি মিলিয়ে আরও ১৩ ব্যাংক আর্থিক অবস্থার অবনতির তালিকায় রয়েছে। ব্যাংকগুলো একীভূত করার বিষয়ে মতামত চেয়ে বাংলাদেশ ব্যাংককে একটি চিঠি দেয়া হয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক সূত্র জানিয়েছে, দুর্বল ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান একীভূত করার সুনির্দিষ্ট নীতিমালা নেই। সেজন্য একটি মার্জার নীতিমালা তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আর্থিক স্থিতিশীলতা বিভাগের সমন্বয়ে এ সংক্রান্ত একটি কমিটি গঠন করা হয়। সেখানে সদস্য হিসেবে থাকছে আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগ, ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ এবং অফসাইট সুপারভিশন বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। ওই কমিটি একটি প্রতিবেদন তৈরি করে ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগের কাছে দাখিল করবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট কয়েকজন কর্মকর্তা জানান, বিপর্যয়ের হাত থেকে দেশের ব্যাংকিং খাতকে বাঁচাতে নানামুখী পদক্ষেপ নিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এরই অংশ হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংক মার্জার নীতিমালা তৈরি করছে।

রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের একীভূত করা নিয়ে সম্প্রতি বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের (বিআইবিএম) একটি জরিপধর্মী গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

এতে বলা হয়, ‘৭২ শতাংশ ব্যাংক কর্মকর্তা মনে করেন দেশে ব্যাংকের সংখ্যা কমাতে হবে। এক্ষেত্রে দুর্বল ব্যাংকগুলোকে মার্জার বা একীভূতকরণের পক্ষে মত দেন তারা। তবে তারা দুর্বল ব্যাংকের সঙ্গে আরেকটি দুর্বল ব্যাংককে একীভূত না করার পরামর্শ দিয়েছেন।’

এই বিভাগের আরো খবর