বৃহস্পতিবার   ১৭ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ১ ১৪২৬   ১৭ সফর ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
রাজধানীতে `ফইন্নী গ্রুপের` ৬ সদস্য আটক স্পিকারের সঙ্গে সার্বিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রীর সৌজন্য সাক্ষাৎ ক্লাসিকোর ভেন্যু পাল্টানোর অনুরোধ লা লিগার উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ১৮ কাউন্সিলর নজরদারিতে যেমন ছিল নবিজির জীবনের শেষ মুহূর্তটি দলের নাম ভাঙিয়ে অন্যায় করতে দেবেন না মেয়র সাদিক কমছে রাতের তাপমাত্রা, প্রকৃতিতে শীতের আগমনী বার্তা কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা এসআই আকরামসহ ১১ জন জেলহাজতে মানবতাবাদী নাট্যকার আর্থার মিলারের জন্ম মুখের কথায় চলে সাইদের ‘আশ্চর্য মোটরসাইকেল’ বরিশালে জাল-ইলিশসহ ২২জেলে আটক নীলনদের তীরে মিললো ‘গুরুত্বপূর্ণ’ প্রাচীন কফিন পর্দা নামলো ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড এক্সপোর কুষ্টিয়ায় শুরু হলো তিনদিন ব্যাপী লালনমেলা বাংলাদেশই বিশ্বসেরা, প্রবৃদ্ধি হবে ৭.৮ শতাংশ হাজার কোটি টাকার চেকের কপি প্রতারক চক্রের বাসায়! ৯ কর্মীকে তলব, একজনের বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ ইন্দোনেশিয়া থেকে সরাসরি পণ্য আমদানির সুযোগ চায় বাংলাদেশ পার্বত্য জেলায় সন্ত্রাস-মাদক নির্মূল করা হবে-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
১৪

উখিয়ায় হত্যা মামলার আসামিসহ ছয় রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রেফতার

প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

কক্সবাজারের উখিয়ার হত্যা মামলার আসামিসহ ছয় রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রবিবার রাতে পৃথক অভিযানে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ জানায়, রাতে কুতুপালং ক্যাম্পে অভিযান চালিয়ে চাঞ্চল্যকর নবী হোসেন হত্যা মামলার অন্যতম আসামি দুধর্ষ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী মৃত মো. আলীর ছেলে মো. সৈয়দকে (৩৫) একটি কিরিচসহ আটক করা হয়।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল মনসুর জানান, ২০১৯ সালের ২৫ মে রাস্তা নির্মাণের ঘটনা নিয়ে উভয় পক্ষের তর্ক বির্তকের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। এই মামলার মো. সৈয়দ আসামি।

একই রাতে উখিয়ায় কুতুপালং ক্যাম্প এলাকার ঘোনারপাড়ায় অভিযান চালিয়ে অস্ত্র গুলিসহ ছব্বির আহম্মদ (২৫) নামে এক রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে আটক করে পুলিশ।

ক্যাম্প পুলিশের এস আই জিয়া উদ্দিন জানায়, সে কুতুপালং ডি-৪ এর দিন মোহাম্মদের ছেলে। তার কাছ থেকে একটি পিস্তল, ২রাউন্ড গুলি ও একটি ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়েছে। উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আবুর মনসুর জানান, ছব্বির আহম্মদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা করা হয়েছে। সোমবার সকালে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে উখিয়ায় কুতুপালং মধুরছড়া ক্যাম্প পুলিশ রবিবার রাতে অপহরণকারী রোহিঙ্গা ইমাম হোসেনের বাড়ি হতে হাত পা বাধাঁ অবস্থায় অপহৃত রোহিঙ্গা আইয়ুব আলীকে (৪৫) উদ্ধার করা হয়েছে। সে কুতুপালং ক্যাম্পের ৬নং ব্লকের হোসেন আলীর ছেলে। এ সময় পুলিশ অপহরণকারী বালুখালী ক্যাম্পের আমির উদ্দিন (৬০), ওমর মিয়া (৫০), মো. আইয়ুব (৩৫) ও মো. আরব (৩০) নামে চার রোহিঙ্গাকে আটক করে।

উখিয়া থানার উপ-পরিদর্শক মোরশেদ আলম জানান, আইয়ুব আলীর নিকট থেকে অপহরণকারীরা ১ লাখ ২০ হাজার টাকা পাওনা রয়েছে বলে দাবি করে গত ১৫ সেপ্টেম্বর রাত ১১টার দিকে তাকে অভিনব কায়দায় অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে অপহরণকারীরা তাকে নির্যাতন করে তার পরিবারের কাছ থেকে মুক্তিপণ দাবি করেন। পরে পুলিশ প্রযুক্তির সহায়তায় আইয়ুব আলীকে উদ্ধার ও চার রোহিঙ্গাকে গ্রেফতার করে।

উখিয়া থানার উপ-অফিসার ইনচার্জ আবুল মনসুর জানান, এ বিষয়ে আইয়ুব আলী বাদী হয়ে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেছেন।

এই বিভাগের আরো খবর