• শুক্রবার   ০৫ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২২ ১৪২৭

  • || ১৩ শাওয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
৩ হাজার মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট নিয়োগে অনুমোদন দিলেন প্রধানমন্ত্রী মানুষকে সুরক্ষিত করতে প্রাণপণে চেষ্টা করছি: প্রধানমন্ত্রী করোনায় মৃত্যুর মিছিলে আরও ৩৫ জন, নতুন শনাক্ত ২৪২৩ হলিক্রস-নটরডেমসহ চার কলেজে ভর্তি বন্ধ গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৩৭ মৃত্যু, শনাক্ত আরও ২৬৯৫ আজ থেকে চলবে আরও ৯ জোড়া ট্রেন হাসপাতাল থেকে রোগী ফেরানো শাস্তিযোগ্য অপরাধ: তথ্যমন্ত্রী যেকোনো প্রতিবন্ধকতা মোকাবিলা করে এগিয়ে যেতে পারব: প্রধানমন্ত্রী সময় যত কঠিনই হোক দুর্নীতি ঘটলেই আইনি ব্যবস্থা: দুদক চেয়ারম্যান জেলা হাসপাতালগুলোতে আইসিইউ ইউনিট স্থাপনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর করোনা বিশ্ব বদলে দিলেও বিএনপিকে বদলাতে পারেনি: কাদের করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ মৃত্যু, শনাক্ত ২৯১১ সীমিত আকারে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার নির্দেশনা খাদ্য উৎপাদন আরও বাড়াতে সব ধরনের প্রচেষ্টা চলছে: কৃষিমন্ত্রী সারা দেশকে লাল, সবুজ ও হলুদ জোনে ভাগ করা হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২৩৮১ জনের করোনা শনাক্ত পুরোপুরি স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেন চলছে: রেলমন্ত্রী দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৫৪৫ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ৪০ জন বাস ভাড়া যৌক্তিক সমন্বয়, প্রজ্ঞাপন আজই: ওবায়দুল কাদের এখনই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবো না: প্রধানমন্ত্রী
২৮

ঈদ উপহার দেয়ার নামে বিএনপির তামাশা, তৃণমূলে ক্ষোভ

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১২ মে ২০২০  

ঈদ উপলক্ষে নিম্ন-আয়ের তৃণমূল নেতাকর্মীর পরিবারকে এবারও ‘ঈদ উপহার’ দিয়েছে বিএনপি। তবে মাত্র আড়াই হাজার টাকার উপহার নিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো হতাশা প্রকাশ করেছে। আবার টাকা ঠিকভাবে বণ্টন না করায় জেলা নেতাদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। অনেক স্থানে বিএনপির জেলা কমিটির নেতাদের বাদ দিয়ে অন্যদের দিয়ে উপহার দেয়া হয়েছে। এতে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তরা বাদ পড়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সাতক্ষীরা ও বরিশালসহ বেশ কয়েকটি জেলার নেতাদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

দলীয় সূত্র জানায়, এ বছর সারাদেশে ৮৬৭ পরিবারকে ঈদ উপহার দিয়েছে বিএনপির হাইকমান্ড। এর মধ্যে বিএনপির ৩৩৩ জন, যুবদলের ২৫২ জন, ছাত্রদলের ২৩১ জন এবং স্বেচ্ছাসেবক দলের ৫১ জন রয়েছেন। উপহারের টাকা বণ্টনের বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শহীদুল ইসলাম বাবুল বলেন, ছাত্রদলের উপহার তাদের কেন্দ্রীয় নেতাদের দেয়া হয়েছে। জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের মাধ্যমে নিজ জেলায় উপহার দেয়া হয়েছে। একইভাবে বিএনপি ও অন্যসব অঙ্গসংগঠনেরও জেলা নেতাদের মাধ্যমে উপহার দেয়ার কথা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, যারা উপহার পেতে পারে- এমন অনেককেই তালিকায় রাখা হয়নি। হিন্দু ধর্মাবলম্বী হওয়ার কারণে উপহার থেকে বঞ্চিত হয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদলের নয়ন বাছার (পায়ে গুলিবিদ্ধ)। দলের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে তার পায়ে গুলি লেগেছিল। ঢাকা মহানগরের এ রকম আরও কয়েকজন ঈদ উপহার না পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

টাকা দেয়ার নামে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সঙ্গে অমানবিক আচরণ

বিএনপির এক নেতা জানান, কুমিল্লার প্রত্যন্ত এলাকায় বিএনপি সমর্থক নিম্ন-আয়ের একটি পরিবার রয়েছে। সিএনজি ভাড়া করে কুমিল্লা সদর থেকে পরিবারের সদস্যকে ঈদ উপহার নিতে হয়েছে। টাকা হাতে পাওয়ার পর পরিবারটি কেঁদে ফেলেছে। বলেছেন, যাতায়াতের খরচের পর যা থাকবে সেই টাকা দিয়ে কী হবে? সাতক্ষীরায় প্রয়াত বিএনপি নেতা অলি মোল্লার স্ত্রী গ্রাম থেকে ৪০০ টাকায় ভ্যান ভাড়া করে শ্যামনগর সদর থেকে আড়াই হাজার টাকা নিয়েছেন। তার পরিবারের সদস্য সংখ্যা সাতজন।

নীলফামারীর এক বিএনপি নেতা বলেন, ঈদ উপহার দেয়ায় নামে তামাশা করা হয়েছে। নেতারা টাকা দিতে গিয়ে ফটোসেশন করে তা ফেসবুকে দিচ্ছেন। পরিবারগুলোরও সম্মান আছে, তা নেতারা একবারও চিন্তা করছেন না।

জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক নেতা বলেন, কত টাকা তা বড় কথা নয়। এটি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের ঈদ উপহার। দলের নির্দেশনা ছিল নেতাকর্মীদের বাড়িতে উপহার পৌঁছে দেয়া হবে।

জেলা কমিটির নেতাদের কাছে উপহারের টাকা না দেয়ায় ক্ষোভ

বেশ কয়েকটি জেলায় বিএনপির নেতাদের কাছে ঈদ উপহারের টাকা দেয়া হয়নি। এ নিয়ে ক্ষুব্ধ কয়েকটি জেলার শীর্ষ নেতারা। তারা জানান, জেলা কমিটিকে পাশ কাটিয়ে এবং বিএনপির নেতা নন এমন কাউকে উপহারের টাকা বণ্টনের দায়িত্ব দেয়া হলে আমাদের রাজনীতির কি থাকে? যাদের দিয়ে টাকা দেয়া হয়েছে তারা নিজ বলয়ের লোকদের বিতরণ করেছেন। সাতক্ষীরা, পাবনা, চাঁপাইনবাবগঞ্জসহ বেশ কয়েকটি জেলায় এমন ঘটনা ঘটেছে। আবার বরিশাল, ঝালকাঠিসহ আরও কয়েকটি জেলায় নেতাকর্মীদের তালিকায় আসামির নামও দেয়া হয়েছে। বরিশাল বিভাগের এক নেতা আক্ষেপ করে বলেন, মামলার আসামির নাম এ তালিকায় থাকলে তো রাজনৈতিক মামলার আসামি কমপক্ষে কয়েক লাখ নেতাকর্মীর নাম থাকা উচিত।

জানা গেছে, সাতক্ষীরায় ঈদ উপহারের টাকা জেলা ছাত্রদল ও যুবদলকে দেয়া হলেও বিএনপি নেতাদের কাছে দেয়া হয়নি। কেন্দ্রীয় দফতর থেকে টাকা নিয়েছেন সাবেক এমপি হাবিবুল ইসলাম হাবিব। এ বিষয়ে সাতক্ষীরা জেলা বিএনপির সঙ্গে কোনো আলোচনা না করে পছন্দের লোক দিয়ে উপহার সামগ্রী সংশ্লিষ্টদের কাছে তিনি পৌঁছে দিয়েছেন।

রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর