• রোববার   ১১ এপ্রিল ২০২১ ||

  • চৈত্র ২৮ ১৪২৭

  • || ২৮ শা'বান ১৪৪২

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
১২-১৩ এপ্রিল চলমান লকডাউনের নির্দেশনা জারি থাকবে: সেতুমন্ত্রী টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিলেন প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ ৭৭ জনের মৃত্যু অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা : আইনমন্ত্রী দু`দিন আগেই শেষ হচ্ছে বইমেলা আমাদের সামনে নির্ঘাত অশনি সংকেত : কাদের করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৭৪ জনের মৃত্যু সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে হচ্ছে দ্বিতীয় আমিনবাজার সেতু: সেতুমন্ত্রী দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী মানুষ বাঁচাতে আরও কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী রফিকুল ইসলাম মাদানী আটক জনগণের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখেই লকডাউন দেয়া হয়েছে: অর্থমন্ত্রী টিকাদানে বিশ্বের শীর্ষ ২০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী করোনায় আরো ৬৬ জনের মৃত্যু ৮ এপ্রিল শুরু হচ্ছে টিকার দ্বিতীয় ডোজ: স্বাস্থ্য সচিব রাজধানীতে চলাচল করা গাড়ি গণপরিবহন নয়: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ২৪ ঘণ্টায় ৭০৭৫ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ৫২ শীতলক্ষ্যায় লঞ্চডুবি: আরও ২১ জনের মরদেহ উদ্ধার আরো ৬ কোটি ৮০ লাখ ডোজ টিকা আনা হচ্ছে: অর্থমন্ত্রী একদিনে দেশে রেকর্ড শনাক্ত ৭০৮৭, মৃত্যু ৫৩

ইউএনওর হস্তক্ষেপে শিকল থেকে মুক্ত হয়ে হাসপাতালে মোহাম্মদ উল্লাহ

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর ২০২০  

দুই বছর শিকল বন্দি থাকা মানসিক ভারসাম্যহীন এক ব্যক্তির চিকিৎসা সেবার ব্যবস্থা করে মানবিকতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন বরিশাল জেলার হিজলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বকুল চন্দ্র কবিরাজ।

মানসিক ভারসাম্যহীন ওই ব্যক্তির নাম মোহাম্মদ উল্লাহ।

হিজলা উপজেলার গুয়াবাড়িয়া গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক অহিদুল আলম তালুকদার ছেলে মোহাম্মদ।

মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) দুপুরে স্থানীয়রা জানান, উচ্চ শিক্ষিত ও কয়েকবার বিদেশ ভ্রমণ করা মোহাম্মদ উল্লাহ গত দুই বছর ধরে মানসিক ভারসাম্যহীন অবস্থায় ঘরের মধ্যে শিকলবন্দি অবস্থায় ছিলেন। দিনের পর দিন অনাহারে, অর্ধাহারে তার মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ার উপক্রম হচ্ছিলো।  

বিষয়টি হিজলা উপজেলা নির্বাহী ইউএনওর দৃষ্টিগোচর হওয়ার পর মানসিক ভারসাম্যহীন মোহাম্মদ উল্লাহর চিকিৎসা সেবায় এগিয়ে আসেন ওই ইউএনও বকুল চন্দ্র কবিরাজ।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বকুল চন্দ্র কবিরাজ জানান, উপজেলা প্রশাসন, থানা ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় বিষয়টি জানার পর গত ২২ নভেম্বর অ্যাম্বুলেন্সে করে পাবনা মানসিক হাসপাতালে পাঠানো হয় মোহাম্মদকে। পরবর্তীতে পাবনা উপজেলা ইউএনও সঙ্গে যোগাযোগ করে মোহাম্মদকে মানসিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসা শেষে মোহাম্মদ উল্লাহ স্বাভাবিক জীবনে ফিরবে আসবে বলেও ইউএনও আশা প্রকাশ করেন।

অপরদিকে একজন মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তির চিকিৎসা সেবায় এগিয়ে আসার জন্য উপজেলা ইউএনও বকুল চন্দ্র কবিরাজের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন ওই ব্যক্তির স্বজনসহ স্থানীয়রা।