• শুক্রবার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৯ ১৪২৭

  • || ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
ভাস্কর্যবিরোধী বক্তব্য রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত: তথ্যমন্ত্রী এমসি কলেজে গণধর্ষণ : ৮ জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৩৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৩১৬ বিদ্রোহী প্রার্থীদের পরবর্তীতে আর মনোনয়ন নয়: ওবায়দুল কাদের ঢাবি শিক্ষার্থী ধর্ষণ: ছাত্র অধিকার পরিষদের তিন নেতা রিমান্ডে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৩৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২১৯৮ বীর মুক্তিযোদ্ধা আতিক হত্যা মামলায় ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড ফাইজারের ভ্যাকসিন অনুমোদন দিলো যুক্তরাজ্য করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩১, শনাক্ত ২২৯৩ ঘরোয়া অনুষ্ঠানের কথাও পুলিশকে জানাতে হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সম্রাটের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি ৭ জানুয়ারি ভাস্কর্য নিয়ে উস্কানি ছড়ালে সরকার বসে থাকবে না: তথ্যমন্ত্রী চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, ২৮ প্রতারক আটক করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৯, শনাক্ত ১৭৮৮ মূর্তি আর ভাস্কর্য এক নয়: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বিএনপির গণতন্ত্র হচ্ছে ‘মুখে শেখ ফরিদ আর বগলে ইট’: কাদের ঢাকা থেকে পায়রাবন্দর পর্যন্ত রেললাইন নিয়ে যাব: প্রধানমন্ত্রী একুশে পদকপ্রাপ্ত ওস্তাদ শাহাদাত হোসেন খান আর নেই করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৬, শনাক্ত ১৯০৮ ভ্যাকসিনের জন্য ৫০ শতাংশ টাকা ছাড়: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

‘আ`লীগকে ধ্বংস করতে একটি প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠী কাজ করেছে’

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম বলেছেন, ২০০১ সালের অক্টোবরের পর ভয়ঙ্কর নৈরাজ্য কায়েম করেছিল তখনকার জামায়াত-বিএনপি জোট সরকারের লেলিয়ে দেওয়া সন্ত্রাসী বাহিনী। শহর, গ্রাম কোথাও ঘর থেকে বের হতে পারেনি আওয়ামী লীগের লোকজন। সে সময়ে আওয়ামী লীগের ১১শ নেতাকর্মীকে হত্যা করা হয়েছিল।

বৃহস্পতিবার (২০ডিসেম্বর) পিরোজপুরে পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার করা ও হয়রানি করা হয়েছে। এছাড়া  বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময়ে অপারেশন ক্লিনহার্টের নামে আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের নির্যাতন করা হয়েছিল।

আওয়ামী লীগের অনেক জাতীয় নেতাকে ঢাকার রাস্তায় পিটিয়ে, বুট দিয়ে লাথি মেরে নির্যাতন করা হয়েছিল উল্লেখ করে শ ম রেজা বলেন, সেই কঠিন সময় অতিক্রম করে শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় নিয়ে এসেছেন। তাই আমাদের মধ্যে ঐক্যের ইস্পাত কঠিন দৃঢ়তা থাকতে হবে। দলের মধ্যে কোনো নেতাকে বেশী ভালো লাগতে পারে, কাউকে কম লাগতে পারে। নেতা-কর্মীদের মধ্যে মান-অভিমান থাকতে পারে, তাই বলে দলের মধ্যে ঐক্য নষ্ট করা যাবে না। অকারণে কাউকে দল থেকে তাড়িয়ে দিলে দল দুর্বল হয়ে যাবে। দুর্বল হয়ে যাবে শেখ হাসিনার উন্নয়নের অগ্রযাত্রা, বঙ্গবন্ধু’র সোনার বাংলা বির্নিমাণ দুর্বল হয়ে যাবে।

এ সময় মন্ত্রী আরও বলেন, দল ক্ষমতায় আছে বলেই কিন্তু সুসময় আছে এটা ভাবা যাবে না। কেননা আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করার জন্য সব সময় একটি প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠী কাজ করে যাচ্ছে। ওরা ‘৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘটিয়েছে, ওরাই ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা ঘটিয়েছে, ওরা ৩ নভেম্বর ঘটিয়েছে, ওরাই ১৯ বার শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করেছে। ওরা এখনও থেমে নেই।

তাই তৃণমূল থেকে সব পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের একসঙ্গে থেকে সবাইকে নিয়ে সম্মিলিতভাবে ঐক্যের ইস্পাত কঠিন দৃঢ়তার সঙ্গে সংগঠনকে গড়ে তুলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বির্নিমাণ করতে হবে।

পিরোজপুর গোপাল কৃষ্ণ টাউন ক্লাব মাঠে পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট খান মো. আলাউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনের উদ্বোধন করেন পিরোজপুর-১ আসনের সাবেক এমপি এবং জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এ কে এম এ আউয়াল। বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শাহজাহান খান তালুকদার, সহ-সভাপতি ও পৌর মেয়র মো. হাবিবুর রহমান মালেক, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এম এ হাকিম হাওলাদার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আক্তারুজ্জামান ফুলু, সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউল আহসান গাজী প্রমুখ।

সম্মেলন সংগঠনের বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপন এবং সভা পরিচালনা করেন পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন নান্না।