• শনিবার   ৩১ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ১৫ ১৪২৭

  • || ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
কারিগরি-জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা হবে : শিক্ষামন্ত্রী ১২ বছরে ৪৫০ কিলোমিটার মহাসড়ক ৪ লেনে উন্নীত: কাদের রায়হান হত্যা: এএসআই আশেক এলাহী গ্রেফতার করোনার কারণে ২০২১ সালে হবে না বই উৎসব: শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ল ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত ব্লকচেইন আগামী প্রযুক্তির নিরাপদ ভিত্তি: পলক করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৩, শনাক্ত ১৪৯৩ স্কুল বাস সার্ভিসে নারী চালক সম্পৃক্ত করা জরুরি: সেতুমন্ত্রী দেশের মানুষের ভরসা ও বিশ্বাসের প্রতীক সেনাবাহিনী: প্রধানমন্ত্রী ৩ দিনের রিমান্ডে ইরফান ও সহযোগী জাহিদ প্রকল্পের বিরুদ্ধে মামলা হলে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা: প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২০, শনাক্ত ১৩৩৫ রিফাত হত্যা: অপ্রাপ্তবয়স্ক ৬ জনের ১০ বছরের কারাদণ্ড হাজী সেলিমের ছেলের ১ বছরের কারাদণ্ড করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১৫, শনাক্ত ১৪৩৬ সাংসদ হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান গ্রেপ্তার কেউ অপরাধ করলে তাকে আইনের মুখোমুখি হতে হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মিল মালিক, পাইকার ও ফড়িয়ারা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত: কৃষিমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৩, শনাক্ত ১৩০৮ পদ্মা সেতুতে বসলো ৩৪তম স্প্যান

আর্মেনিয়ার গোলায় ১৩ সাধারণ নাগরিক নিহত : আজারবাইজান

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৭ অক্টোবর ২০২০  

গানজা শহরে আর্মেনিয় সেনাদের গোলায় বাড়িঘর ধ্বংস হওয়া ছাড়াও কমপক্ষে ১৩ জন সাধারণ নাগরিক নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে আজারবাইজান। এ ছাড়া আহত হয়েছেন আরও ৪০ জন। বিতর্কিত নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে চলমান যুদ্ধ-সংঘাতের মধ্যে এ হতাহতের খবর জানা গেল।

ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানের অনলাইন প্রতিবেদন অনুযায়ী আজারবাইজানের প্রসিকিউটর জেনারেলের কার্যালয় জানিয়েছে, দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর গানজার দুটি আবাসিক ভবনে আর্মেনিয়ার গোলা আঘাত হানলে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। তবে আর্মেনিয়ার পক্ষ থেকে এখনও আনুষ্ঠানিক কোনো প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি।

গানজার অপর অংশে দ্বিতীয়বারের মতো হামলা হয়েছে শনিবার। এ ছাড়া তৃতীয় হামলাটি করা হয়েছে কাছাকাছি কৌশলগত শহর মিনজেসিভিরে। আজেরি বাহিনী বিচ্ছিন্নতাবাদী আর্মেনিয়া জাতিগোষ্ঠী শাসিত অঞ্চল নাগোরনো-কারাবাখের রাজধানী স্টেপানাকার্টে হামলা করার কয়েক ঘন্টা পর এই হামলা হয়।

গানজার সাংবাদিকরা বলছেন, আর্মেনিয়ার গোলার আঘাতে শহরের অনেক বাড়িঘর মুহূর্তেই ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে। ছিন্নভিন্ন শরীরের বিভিন্ন অংশ কালো ব্যাগে করে বহন করতে দেখা গেছে উদ্ধারকর্মীদের। হামলায় বাড়িঘর দেয়াল আরও ছাদ ধসে পড়েছে। সেই ধ্বংসাবশেষে পূর্ণ হয়ে রয়েছে পাশের রাস্তুগুলো।

আন্তর্জাতিকভাবে অঞ্চলটি আজারবাইজানের হলেও দখলে রয়েছে আর্মেনিয়া খিস্টান জাতিগোষ্ঠীর। সম্প্রতি শুরু হওয়া এই যুদ্ধ-সংঘাত বন্ধে আন্তার্জাতিক পরিসরে যে চেষ্টা চলছে চলমান হামলা তা হুমকির মুখে ফেলেছে। এ ছাড়া দুই পক্ষের হয়ে সংঘাতে রাশিয়া ও তুরস্কের মুখোমুখি অবস্থান নেয়ার শঙ্কা তো রয়েছেই।