রোববার   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১১ ১৪২৬   ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
পতাকার মর্যাদা ধরে রাখতে সেনা সদস্যদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান জুয়ার আসর থেকে আটক ২৬ দুই ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের সহযোগী র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার দৃশ্যমান পদ্মা সেতুর পৌনে চার কিলোমিটার সারা দেশে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত ইংরেজি উচ্চারণে বাংলা বলার সমালোচনা প্রধানমন্ত্রীর উন্নত দেশ গড়তে বেসরকারি সহযোগিতা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুজিববর্ষে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের ভণ্ডপীরসহ ৯ জনের কারাদণ্ড প্রধানমন্ত্রী সব সময় শিক্ষাকে গুরুত্ব দেন: পরিকল্পনামন্ত্রী মুজিব বর্ষে নতুন শিল্প কারখানা স্থাপন করা হবে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী আসন্ন সেচ মৌসুমে লোডশেডিংয়ের শঙ্কা নেই : বিদ্যুৎ বিভাগ একুশে পদক হাতে তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস শুক্রবার একুশে পদক মেধা ও মনন চর্চার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করবে : রাষ্ট্রপতি আজ একুশে পদক প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী এনামুল বাছিরের পদোন্নতির আবেদন হাইকোর্টে খারিজ জাপানের সঙ্গে জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী সমৃদ্ধ দেশ গড়তে সুস্থ যুব সমাজের বিকল্প নেই : প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ
২১০

আবরার হত্যাকাণ্ড: আসামিদের দেখতে আসছে না পরিবারও

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১২ অক্টোবর ২০১৯  

বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় পুরো দেশের মানুষ যেমন বিচার চাচ্ছে, হত্যায় জড়িত বুয়েট শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরাও বলছেন একই কথা। তিন দিন পার হলেও শুক্রবার (১১ অক্টোবর) পর্যন্ত গ্রেফতারদের দেখতে তাঁদের মা-বাবা, ভাই-বোন কিংবা আত্মীয়-স্বজন কেউ রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিবি কার্যালয়ে আসতে দেখা যায়নি। হত্যায় জড়িত আসামিদের পরিবারের সদস্যরাও আবরার হত্যার বিচার চাচ্ছেন।

এই হত্যা মামলার ৯ নম্বর আসামি ইশতিয়াক আহমেদ মুন্নার মা কুলসুমা আক্তার বলেন, আমার ছেলেকে পুলিশ আটক করেছে সন্দেহজনকভাবে। আমার ছেলে এমন বর্বর হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার প্রশ্নই আসে না। যদি আমার সন্তান দোষী প্রমাণিত হয়, তাহলে আমি শাস্তি চাই। আমিও আবরার হত্যার বিচার চাই।

আবরার হত্যাকাণ্ডে জড়িত ১৮ জনকে আজ সন্ধ্যা পর্যন্ত গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এর মধ্যে হত্যাকাণ্ডের পরদিন গ্রেফতার হন ১০ জন। তাঁদের ডিবিতে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। এর মধ্যে তিন দিন পার হলেও শুক্রবার পর্যন্ত তাঁদের দেখতে পরিবারের কেউ আসেননি।

এ বিষয়ে ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম বলেন, আসামি গ্রেফতারের তিন দিন পার হলেও এখনো পর্যন্ত আমাদের কাছে কেউ আসেনি আসামিদের সঙ্গে দেখা করতে।

জানা গেছে, আবরার হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ১৪ জনকে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। প্রতিদিন রাতে তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। বৃহস্পতিবার পুরো রাতও তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

আরেক আসামি ইফতি মোশাররফ সকালের বাবা মোশাররফ হোসেন বলেন, যে ছেলে মুরগি জবাই করতেও ভয় পায়, সে কিভাবে এমন ঘটনায় জড়িত থাকতে পারে’ তা তাঁরা ভাবতেও পারছেন না। যদি আমার সন্তান দোষী হলে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

এই বিভাগের আরো খবর